আন্তর্জাতিক মাতৃভাষা দিবস উপলক্ষে কুলাউড়া শুভসংঘের উদ্যোগে চিত্রাঙ্কন প্রতিযোগিতা

February 18, 2021, এই সংবাদটি ১৭৪ বার পঠিত

মাহফুজ শাকিল॥ কুলাউড়ায় প্রতি বছরের ন্যায় এবারও কালের কণ্ঠ শুভসংঘের উদ্যোগে মহান শহীদ দিবস ও আন্তর্জাতিক মাতৃভাষা দিবস ২১ শে ফেব্রুয়ারি উপলক্ষে শিশু-কিশোরদের নিয়ে ব্যতিক্রমী চিত্রাঙ্কণ প্রতিযোগিতার আয়োজন করা হয়।
বৃহস্পতিবার ১৮ ফেব্রুয়ারি বিকেলে কুলাউড়া শহীদ মিনার প্রাঙ্গণে এ চিত্রাঙ্কণ প্রতিযোগিতা অনুষ্ঠিত হয়। প্রতিযোগিতায় কুলাউড়া পৌর শহরের বিভিন্ন শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানের শিক্ষার্থী অংশ নেন।
প্রতিযোগিতার আলোচনা পর্বে শুভসংঘ কুলাউড়া উপজেলা শাখার সভাপতি উপাধ্যক্ষ মো. জহিরুল ইসলামের সভাপতিত্বে ও সাধারণ সম্পাদক মহি উদ্দিন রিপনের সঞ্চালনায় প্রধান অতিথির বক্তব্য রাখেন উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা এ টিএম ফরহাদ চৌধুরী। বিশেষ অতিথির বক্তব্য রাখেন কুলাউড়া সদর ইউপি’র সাবেক চেয়ারম্যান অধ্যাপক মোঃ শাহজাহান, কর্মধা ইউপি’র চেয়ারম্যান এম এ রহমান আতিক, শুভসংঘের উপজেলা কমিটির উপদেষ্টা ও জেলা সাংবাদিক ফোরামের সহ-সভাপতি এম. মছব্বির আলী, কালের কণ্ঠের কুলাউড়া উপজেলা প্রতিনিধি ও শুভসংঘের উপদেষ্ঠা মাহফুজ শাকিল, শুভসংঘের সাংগঠনিক সম্পাদিকা তানজিদা আক্তার সেবিন, প্রচার ও প্রকাশনা সম্পাদক হাবিবুর রহমান সুজন, ক্রীড়া সম্পাদক রুমেল আহমদ চৌধুরী, দুবাই প্রবাসী মোহাম্মদ মাসুম, সাংবাদিক বশির আল ফেরদাউস, প্রবাসী শাহেদ আহমদ প্রমুখ।
চিত্রাঙ্কণ প্রতিযোগিতায় অংশগ্রহণকারী প্রতিযোগীদের অভিভাবক প্রতিনিধি হিসেবে আফসানা পারভীন মিতা ও রিতা পারভীন শুভসংঘের প্রশংসা করে বলেন, ভাষার মাসে ভাষা শহীদদের স্মরণ করে কুলাউড়া শুভসংঘ যে ব্যতিক্রমী চিত্রাঙ্কণ প্রতিযোগিতার আয়োজন করেছে তাতে আমাদের সন্তানেরা নতুন করে অনেক কিছু জানবে। বিশেষ করে করোনাকালীন সময়ে স্কুল বন্ধ থাকায় আমাদের বাচ্চারা বাসায় বন্দি জীবন যাপন করছে। সেই মুহুর্তে শুভসংঘের এমন আয়োজনের কারণে আমাদের বাচ্চারা অনেকটা মুক্ত বাতাসে এসে বেশ আনন্দ উপভোগ করেছে। শুভসংঘের এমন আয়োজনকে সাধুবাদ জানাই।
অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তব্যে ইউএনও এটিএম ফরহাদ চৌধুরী শুভসংঘের ভালো কাজের ভূয়সী প্রশংসা করে বলেন, চিত্রাঙ্কণ প্রতিযোগিতা আয়োজনের মধ্যে দিয়ে শিক্ষার্থীরা যে চিত্র অঙ্কণ করেছে তাতে ভাষা আন্দোলনের বিভিন্ন প্রতীকি ছবি ও স্লোগান ফুঠে ওঠেছে। শুভসংঘের সকল ভালো কাজের পাশে থেকে উপজেলা প্রশাসনের পক্ষ থেকে সবসময় সহযোগিতার হাত প্রসারিত থাকবে বলে তিনি আশ্বস্ত করেন।
প্রতিযোগিতায় অংশগ্রহণকারী সকল শিক্ষার্থীকে পরবর্তীতে আনুষ্ঠানিকভাবে পুরস্কৃত করা হবে। এ ছাড়া তিন গ্রুপের প্রথম তিনজন করে মোট নয়জনের নাম ঘোষণা করে পুরস্কার ও সনদপত্র দেওয়া হবে।

সংবাদটি শেয়ার করতে নিচের “আপনার প্রিয় শেয়ার বাটনটিতে ক্লিক করুন”
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •