কুলাউড়ায় আন্তঃজেলা ডাকাত দলের ৭ সদস্য গ্রেফতার

May 23, 2016, এই সংবাদটি ১৪৫ বার পঠিত

কুলাউড়া অফিস॥ কুলাউড়ায় উপজেলায় ডাকাতির প্রস্ততিকালে ৭ ডাকাতকে গ্রেফতার করেছে পুলিশ। গ্রেফতারকৃত ডাকাত সদস্যরা হলেন, মুহিবুর রহমান মুকিত, আব্দুর রহমান, মোতালিব মিয়া, রানা মিয়া, কনা মিয়া, আবুল মিয়া ও লালদার মিয়া। পুলিশ জানায়, ২০ মে শুক্রবার গোপন সংবাদের ভিত্তিতে কুলাউড়া শহরের ইষ্টার্ন হোটেলে অবস্থানকালে ডাকাত মুহিবুর রহমান মুকিত ও আব্দুর রহমানকে গ্রেফতার করে পুলিশ। পরে তাদের তথ্য অনুযায়ী কুলাউড়া থানার অফিসার ইনচার্জ মোঃ শামসুদ্দোহা (পিপিএম) এর নেতৃত্বে একদল পুলিশ ২১মে শনিবার গভীর রাতে শ্রীমঙ্গল উপজেলার ভৈরবগঞ্জ বাজার এলাকায় বিশেষ অভিযান চালিয়ে আন্তঃজেলা ডাকাত দলের সক্রিয় সদস্যদের গ্রেফতার করেন। ডাকাতির জন্য তাদের ব্যবহৃত একটি সিএনজি অটোরিকশা (মৌলভীবাজার-থ-১১-২০০২) জব্দ করেছে পুলিশ। ওই দিন রাতে আটককৃত ডাকাত কনা মিয়া ও লালদার মিয়া পুলিশের জিঙ্গাসাবাদে জানায় তাদের সহযোগী ডাকাত সদস্যদের মধ্যে মোতালিবসহ অজ্ঞাতনামা আরো ৩-৪ জন দূষ্কৃতিকারী রাজনগর উপজেলার কাউয়াদীঘির হাওড়ের দক্ষিন পাশে অবস্থান করে রাতে কোথায় ডাকাতি করবে সিদ্বান্ত ও পরামর্শ নিচ্ছে। পরে পুলিশ উর্ধতন কর্তৃপক্ষকে অবহিত করে রাজনগর উপজেলায় অভিযান চালিয়ে ডাকাত মোতালিবকে গ্রেফতার করলে ও অপর সদস্যরা পুলিশের অবস্থান টের পেয়ে ঐ এলাকা থেকে পালিয়ে যায়। এসময় পুলিশ তাদের কাছ থেকে ১টি দেশীয় লোহার দা ও কাঠের বাট, ১টি লম্বা ডেগার, ২টি ছোরা, ৭ পিছ কালো কাপড়, বিষাক্ত ট্যাবলেট ২৫টিসহ আরো ডাকাতির বিভিন্ন সরঞ্জাম উদ্ধার করে। গ্রেফতাকৃত ডাকাত সদস্যদ্যের বিরুদ্ধে জেলার বিভিন্ন থানায় ডাকাতির মামলা রয়েছে বলে পুলিশ জানায়।
পুলিশ আরও জানায়, গ্রেফতাকৃত ডাকাত মুহিবুর রহমান মুকিত, আব্দুর রহমান, মোতালিব মিয়া, রানা মিয়া, কনা মিয়া, আবুল মিয়া, লালদার মিয়ার সহযোগী আন্তঃজেলা ডাকাত সিন্ডিকেট দলের সক্রিয় ৭ সদস্যকে ২৭ মার্চ থেকে ২ এপ্রিল বিভিন্ন উপজেলায় বিশেষ অভিযান চালিয়ে গ্রেফতার করা হয়। গ্রেফতারকৃত ডাকাতরা হলেন, রাজনগর উপজেলার কোনাগাঁও গ্রামের মৃত মজমিল মিয়ার পুত্র মোস্তফা মিয়া, একই উপজেলার দত্তগ্রামের মৃত দিরাই মালাকারের পুত্র সেফুল মালাকার ও ওই উপজেলার আনোয়ারা বেগম, কমলগঞ্জ উপজেলার কুমড়াকাপন গ্রামের মতছির আলীর পুত্র ইসলাম আলী, একই উপজেলার কালীপুর গ্রামের মৃত উসমান খানের পুত্র সুমন আহমদ ওরফে সুলেমান, হবিগঞ্জ সদর উপজেলার উছাইল গ্রামের আইন উল্যাহর পুত্র শহিদ উল্যাহ, কুলাউড়া উপজেলার ভাটেরা ইসলামপুর গ্রামের ফিরোজ আলীর পুত্র শাকিল হাসান রুবেল। পরে তাদেরকে জেল হাজাতে প্রেরন করে পুলিশ।
এ ব্যাপারে কুলাউড়া থানার অফিসার ইনচার্জ শামসুদ্দোহা পিপিএম ডাকাত গ্রেফতারের সত্যতা নিশ্চিত করে বলেন, তাদেরকে আদালতের মাধ্যমে জেল হাজতে প্রেরন করা হবে। তাদের সিন্ডিকেট দলের অন্য ডাকাত সদস্যদের ধরতে পুলিশের অভিযান অব্যাহত রয়েছে।

সংবাদটি শেয়ার করতে নিচের “আপনার প্রিয় শেয়ার বাটনটিতে ক্লিক করুন”
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •