কুলাউড়ায় ৪ ইউনিয়নে নির্বাচনপূর্ব সহিংসতায় ১৫ জন আহত-৮ বহিরাগত আটক

April 23, 2016, এই সংবাদটি ২৫৩ বার পঠিত

বিশেষ প্রতিনিধি॥ কুলাউড়া উপজেলায় ৪টি ইউনিয়নে নির্বাচনপূর্ব সহিংসতায় এক চেয়ারম্যার প্রার্থী লাঞ্চিত হয়েছে। এছাড়া সহিংসতায় ১৫ জন আহত হয়েছে। চেয়ারম্যান প্রার্থীর প্রবাসী ভাইয়ের বাড়ীতে হামলা হয়েছে। পুলিশ ৮ জন বহিরাগত ব্যক্তিকে আটক করেছে।
বরমচাল ইউনিয়নের বর্তমান চেয়ারম্যান ও স্বতন্ত্র চেয়ারম্যান প্রার্থী ইছহাক আহমদ ইমরান জানান, ২১ এপ্রিল বৃহস্পতিবার বিকাল ও রাতে আওয়ামী লীগের প্রার্থীর সমর্থকরা ৪ দফায় হামলা চালায়। এমনকি তাকেও লাঞ্চিত করেন। এসময় তার ৫ সমর্থক আহত হয়। পরে পুলিশ ঘটনাস্থলে গিয়ে পরিস্থিতি শান্ত করে।
জয়চন্ডী ইউনিয়নের বর্তমান চেয়ারম্যান ও স্বতন্ত্র চেয়ারম্যান প্রার্থী কমর উদ্দিন আহমদ কমরু জানান, বৃহস্পতিবার রাত আনুমানিক আড়াইটার সময় পুলিশের ড্রেসপরা ১৫-২০ জনের একদল সন্ত্রাসী তাঁর বাড়িতে হামলা চালায়। এসময় তিনি বাড়িতে ছিলেন না। তবে পুলিশের ড্রেস পরা সন্ত্রাসীরা তাঁর বাড়ীতে হামলা চালায়। বাড়ির লোকজনের চিৎকারে স্থানীয় লোকজন এগিয়ে এলে সন্ত্রাসীরা পালিয়ে যায়। চেয়ারম্যানের স্পেন প্রবাসী ভাই কাজল বিষয়টি পুলিশকে অবহিত করেন। কুলাউড়া থানার কর্তব্যরত অফিসার মাসুদ জানান, রাতেই আওয়ামী লীগের চেয়ারম্যান প্রার্থী আব্দুর রব মাহবুবের বাড়িতে অভিযান চালিয়ে ৮জনকে আটক করেন। আটককৃতরা হলো-বাহার মিয়া, বাবুল মিয়া, জীবন মিয়া, আলী আকবর, হায়দর আলী, হাসান, আমীর হোসেন ও সাজ্জাদ হোসেন শুভ । আটককৃতদের বাড়ি দেশের বিভিন্ন জেলায় হলেও তারা সবাই বর্তমানে ঢাকার শ্যামলীর বাসিন্দা।

Kulaura-maramari
এদিকে কুলাউড়ার সদর ইউনিয়নে বিএনপি’র প্রার্থী আবু সুফিয়ানের জনতাবাজার প্রার্থীর কেন্দ্রিয় অফিসে পথসভা চলাকালে বিজিবি বেধড়ক লাটিচার্জ করলে ছামাদ, আলীম হোসেন, লুকুছ মিয়া, ছামাদ, মছব্বির, রকিব আলীসহ কমপক্ষে ১০ জন সমর্থক আহত হয়। রাউৎগাঁও ইউনিয়নের ১নং ওয়ার্ডে মেম্বার প্রার্থী নোমান আহমদের পিতা হুছন মিয়া (৬০)এর উপর হামলা চালিয়ে গুরুতর আহত করে তার প্রতিপক্ষ মেম্বার প্রার্থী সাতির মিয়ার সমর্থকরা। এব্যাপারে তিনি কুলাউড়া থানায় লিখিত অভিযোগ দিয়েছেন।
কুলাউড়া থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (তদন্ত) সাইফুল আলম ৮জন বহিরাগতদের আটকের সত্যতা নিশ্চিত করে জানান, আটককৃতদের ১৫১ ধারায় আটক দেখিয়ে ২২ এপ্রিল শুক্রবার মৌলভীবাজার কারাগারে প্রেরণ করা হয়েছে।
এদিকে স্পেন প্রবাসীর কাজলের অভিযোগের প্রেক্ষিতে মৌলভীবাজারের পুলিশ সুপার শাহজালাল ও অফিসার ইনচার্জ শামসুদ্দোহা পিপিএম জয়চন্ডী ইউনিয়ন পরিদর্শনে যান।

সংবাদটি শেয়ার করতে নিচের “আপনার প্রিয় শেয়ার বাটনটিতে ক্লিক করুন”
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •