কুলাউড়া ছাত্র মজলিসের মানববন্ধনে বক্তারাঃ শিক্ষা আইন ২০১৬ বাতিলসহ অনতিবিলম্বে সকল হত্যাকা-ের খুনীদের সর্বোচ্চ শাস্তি দিন

April 13, 2016, এই সংবাদটি ১৬৩ বার পঠিত

কুলাউড়া প্রতিনিধি॥ ছাত্র মজলিসের মৌলভীবাজার জেলা সভাপতি মুহাম্মদ এহসানুল হক বলেন, ঢাকায় মসজিদের ভেতর মুয়াজ্জিন মাওলানা বিলাল হোসাইন নৃশংসভাবে খুন ও কুমিল্লায় তনু হত্যার দ্বারা আবারও প্রমাণ করে দেশে মানুষের জানমালের নিরাপত্তা নেই। দেশের মানুষ চরম নিরাপত্তাহীনতায় ভোগছে। যে সমাজে একজন মুয়াজ্জিনকে মসজিদের ভেতরে নৃশংসভাবে হত্যা করা হয়, যে দেশের সেননানিবাস এলাকায় মেধাবী ছাত্রী তনুকে নির্মমভাবে খুন করা হয়, সেখানে অন্যরা তো নিরাপত্তার আশাই করতে পারে না। হত্যার কয়েক সাপ্তাহ অতিক্রম হয়ে গেলো কিন্তু এখনোও প্রকৃত হত্যাকারীদের গ্রেফতার করতে পারেনি আইনশৃঙ্খলা বাহিনী। এটা কি সরকার ও আইনশৃঙ্খলা বাহিনীর ব্যর্থতার পরিচয় নয়! অতীতেও বিভিন্ন জায়গায় ইমাম, মুয়াজ্জিনসহ সাধারণ জনগণ হত্যার শিকার হয়েছেন। সেগুলোর সুষ্ঠু বিচার না হওয়ার কারণে আবারো এধরণের ঘটনার পুনরাবৃত্তি। কাজেই অনতিবিলম্বে সকল হত্যাকা-ের খুনীদের শনাক্ত করে দ্রত গ্রেফতার করে সর্বোচ্চ শাস্তি দিতে হবে। যাতে অন্য কেউ এ ধরণের ঘটনা ঘটানোর সাহসও না পায়। পাশাপাশি পাঠ্যপুস্তকে নাস্তিক-মুরতাদ বিধর্মী লেখকদের অসৎ লেখনী আর বিভ্রান্তিকর রচনাবলী বাতিলসহ শিক্ষাআইন ২০১৬, শিক্ষানীতি ২০১০ বাতিল করতে হবে এবং চলমান এইচএসসি পরীক্ষার প্রশ্নপত্রে ইসলাম অবমাননা সাথে সম্পৃক্ত ব্যক্তিদের সঠিক তদন্তের মাধ্যমে খুঁজে বের করে দৃষ্টান্তমূললক শাস্তি দিতে হবে। ১২ এপ্রিল মঙ্গলবার সাড়ে ১১টায় মৌলভীবাজারের কুলাউড়া চৌমোহনা চত্বরে ইসলামী ছাত্র মজলিস কুলাউড়া উপজেলা শাখার উদ্যোগে আয়োজিত প্রতিবাদী মানববন্ধনে তিনি একথাগুলো বলেন।

অনুষ্ঠিত মানববন্ধনে বিশেষ অতিথির বক্তব্য রাখেন, খেলাফত মজলিস কুলাউড়া উপজেলা সাধারণ সম্পাদক নেছার আহমদ, খেলাফত মজলিস কুলাউড়া উপজেলা সহসাধারণ সম্পাদক মাওলানা এমদাদুল হক, সাবেক ছাত্রনেতা ওয়াহিদুজ্জামান প্রমুখ।

কুলাউড়া উপজেলা উত্তর সভাপতি সাইফুল ইসলাম কুতুবের সভাপতিত্বে ও কুলাউড়া উপজেলা দক্ষিণ সেক্রেটারি নজরুল ইসলামের পরিচালনায় মানববন্ধনে উপস্থিত ছিলেন ছাত্র মজলিস শ্রীমঙ্গল উপজেলা তত্ত্বাবধায়ক খালিদ সাইফুল্লাহ, কুলাউড়া উপজেলা উত্তর সেক্রেটারি মুাজাহিদুল ইসলাম মামুন, কুলাউড়া পৌর ছাত্র মজলিস সভাপতি সৈয়দ মাহবুবর রহমান, কমলগন্জ উপজেলা প্রচার সম্পাদক জয়নাল আবেদীন সাইফুর, কুলাউড়া উপজেলা উত্তর বায়তুলমাল সম্পাদক সালাহউদ্দিন, কুলাউড়া পৌর সেক্রেটারি ইয়াসিনুর রহমান নাইম, বায়তুলমাল সম্পাদক  হাসেম মিয়া প্রখমুখ।

মানববন্ধনে বক্তারা সম্প্রতি এইচএসসি পরীক্ষায় বাংলা প্রথমপত্রের প্রশ্নপত্রে দেশের সংখ্যাগরিষ্ঠ মানুষের ধর্ম ইসলাম ও এর আনুষঙ্গিক বিভিন্ন বিষয়ের ব্যাপারে কটাক্ষপূর্ণ ও ব্যাঙ্গাত্মক প্রশ্ন সংযোজনের ঘটনায় দু:খ প্রকাশ করে বলেন যে বা যারা এ ধরনের প্রশ্নপত্র প্রণয়নের সাথে জড়িত তাদেরকে খুঁজে বের করে গ্রেফতার ও দৃষ্টান্তমূলক শাস্তির ব্যবস্থা করতে হবে। তারা আরও বলেন , বর্তমান পাঠ্য পুস্তকে ইসলামবিরোধী হিন্দু ও নাস্তিক লেখকদের লেখা প্রাধান্য পেয়েছে। প্রথম শ্রেণি থেকে দ্বাদশ শ্রেণি পর্যন্ত হিন্দু ও নাস্তিকদের লেখার পরিমাণ ৭১ ভাগ, যার মাধ্যমে কোমলমতি শিক্ষার্থীদের আত্মপরিচয় ভুলিয়ে হিন্দুধর্মে প্রবেশ করানো হচ্ছে। নেতৃবৃন্দ হুঁশিয়ার করে বলেন, বর্তমান সরকারের ঘাড়ে সওয়ার হয়ে যেসব নাস্তিক, মুরতাদ ও ইসলামবিদ্বেষীরা ইসলাম, মুসলমান এবং এদেশের স্বাধীনতা-স্বকীয়তার বিরুদ্ধে একের পর এক ষড়যন্ত্র করে যাচ্ছে তাদের বিরুদ্ধে অবশ্যই ছাত্রসমাজ এবং ধর্মপ্রাণ জনগণ রুখে দাড়াবে। তখন উদ্ভুত পরিস্থিতির দায় তাদেরকেই বহন করতে হবে। তাই বর্তমান সরকার যেন এসবের বিরুদ্ধে এখনই ব্যবস্থা নেয় ।

সংবাদটি শেয়ার করতে নিচের “আপনার প্রিয় শেয়ার বাটনটিতে ক্লিক করুন”
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •