কুলাউড়া সদর ইউনিয়নে নৌকা পেতে চান যুবলীগ নেতা আব্দুস শহীদ

October 16, 2021, এই সংবাদটি ১২১ বার পঠিত

কুলাউড়া প্রতিনিধি॥ আসন্ন ৭নং কুলাউড়া সদর ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচনে নৌকা পেতে চান উপজেলা যুবলীগের সভাপতি মোঃ আব্দুস শহীদ। তৃণমূল আওয়ামীলীগসহ অঙ্গ সহযোগী সংগঠনের নেতাকর্মীরা নৌকার মাঝি হিসেবে তাকেই পছন্দ করেন। আব্দুস শহীদ কুলাউড়ার আওয়ামী যুবলীগের রাজনৈতিক অঙ্গনের একজন দক্ষ, নীতিবান ও সফল সংগঠক। যার হাত ধরে কুলাউড়ায় শত শত ছাত্রলীগ ও যুবলীগ নেতাকর্মী তৈরি হয়েছে।
মোঃ আব্দুস শহীদের রাজনৈতিক ক্যারিয়ার বিশ্লেষণ করে দেখা গেছে, তিনি ১৯৮৮ সালে কুলাউড়া ডিগ্রি কলেজ ছাত্রলীগের সাংগঠনিক সম্পাদক, ১৯৯১ সালে সাধারণ সম্পাদক ও ১৯৯২ সালে সভাপতির দায়িত্ব পালন করেন। ১৯৯৩ সালে কুলাউড়া উপজেলা ছাত্রলীগের সাধারণ সম্পাদক ও ১৯৯৫ সালে সভাপতির দায়িত্ব পালন করেন। ২০০৬ সালে উপজেলা আওয়ামী যুবলীগের সাধারণ সম্পাদক হিসেবে দায়িত্ব পালন করেন। সর্বশেষ ২০১৭ সাল থেকে অদ্যাবদি উপজেলা আওয়ামী যুবলীগের সভাপতির দায়িত্ব পালন করছেন।
এক সময় কুলাউড়া ডিগ্রী কলেজে ছাত্রদল, জাসদ, ছাত্রশিবির ও ছাত্র ইউনিয়নের স্বর্ণযুগ ছিল। সেই সময় কুলাউড়া ডিগ্রি কলেজে অনেকে ছাত্রলীগ নেতা পরিচয় দিতে অনেক ভয় পেতেন। তৎকালীন সময়ে (১৯৯১ সাল) তিনি কুলাউড়া ডিগ্রি কলেজে ছাত্রলীগের সাধারন সম্পাদকের দায়িত্ব নেন। তখন মোঃ আব্দুস শহীদের নেতৃত্বে কুলাউড়া ডিগ্রি কলেজে ছাত্রলীগকে প্রতিষ্ঠিত করে অসংখ্য নেতাকর্মী প্রতিপক্ষের হামলা মামলা উপেক্ষা করে ছাত্রলীগকে সুসংগঠিত করেন। পরবর্তীতে কুলাউড়া উপজেলা ছাত্রলীগের সাধারন সম্পাদক নির্বাচিত হয়ে কুলাউড়া-জুড়ীর বিভিন্ন ইউনিয়নে ইউনিয়ন কমিটি গঠন করে ছাত্রলীগকে আরো সুসংগঠিত করেন। এরপর কুলাউড়া উপজেলা যুবলীগের সাধারন সম্পাদকের দায়িত্ব পাওয়ার পর সম্মেলনের মাধ্যমে কুলাউড়ার বিভিন্ন ওয়ার্ড ও ইউনিয়ন কমিটি গঠন করে উপজেলা যুবলীগের সম্মেলনের মাধ্যমে উপজেলা যুবলীগের সভাপতি নির্বাচিত হন। বর্তমানে তিনি যুবলীগকে সুসংগঠিত করে নেতৃত্ব দিয়ে আসছেন।
নেতাকর্মীরা আরো বলেন, যারা রাজনীতি করেন তাদের সকলের একটা ইচ্ছা থাকে বৃহৎ পরিসরে নির্বাচিত প্রতিনিধি হয়ে জনগনের সেবা করার। তাই আমাদের তৃণমুল নেতাকর্মীদের বিশ্বাস আগামী ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচেন ৭নং সদর ইউনিয়ন পরিষদের নৌকার কান্ডারী হিসেবে আব্দুস শহীদকে যেন মনোনীত করা হয়।
নৌকার দাবিদার উপজেলা যুবলীগের সভাপতি মোঃ আব্দুস শহীদ বলেন, ছাত্রলীগ দিয়ে রাজনীতি শুরু করেছি। দীর্ঘ তিন দশক থেকে রাজনীতিকে বুকে লালন করে বঙ্গবন্ধুর আদর্শের একজন কর্মী হয়ে দিনরাত পরিশ্রম করে গেছি। ছাত্রলীগের যখন নেতৃত্বে ছিলাম তখন ছাত্রলীগকে কুলাউড়ায় শক্তিশালী সংগঠনে পরিণত করেছি। বর্তমানে কুলাউড়ার ১৩ ইউনিয়নে যুবলীগের অবস্থা অন্যান্য সংগঠনের চেয়ে অনেক শক্তিশালী। আমার বাবা মরহুম ছিদ্দেক আলী কুলাউড়া সদর ইউনিয়ন আওয়ামীলীগের প্রতিষ্ঠাতা সভাপতি ছিলেন এবং আমৃত্যু বঙ্গবন্ধুর আদর্শ বাস্তবায়নে দলের পক্ষে কাজ করে গেছেন। বাবার দেখানো পথে আমিও কাজ করে যাচ্ছি। তিনি আরো বলেন, জননেত্রী শেখ হাসিনার ভীষণ-২০৪১ বাস্তবায়নে দিনরাত নিরলসভাবে পরিশ্রম করে যাচ্ছি। দীর্ঘ ৩৩ বছরের রাজনৈতিক ক্যারিয়ারে দলের কাছে কখনো কিছু চাইনি। বর্তমানে অবহেলিত কুলাউড়া ইউনিয়নবাসীর দাবির প্রেক্ষিতে তাদের সেবা করার মহান ব্রত নিয়ে নৌকার একজন প্রার্থী হিসেবে চেয়ারম্যান পদে প্রতিদ্বন্ধিতা করতে যাচ্ছি। আশা করি দল আমার রাজনৈতিক ক্যারিয়ার মূল্যায়ন করে আমাকে নৌকা প্রতীক উপহার দিয়ে কুলাউড়া ইউনিয়নের মানুষের পাশে থাকার সুযোগ করে দেবেন।

সংবাদটি শেয়ার করতে নিচের “আপনার প্রিয় শেয়ার বাটনটিতে ক্লিক করুন”
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •