জঙ্গি মোকাবেলায় মৌলভীবাজার সীমান্তে বিজিবির টহল বৃদ্ধি

August 2, 2016,

কুলাউড়া অফিস॥ জঙ্গি হামলা মোকাবেলা ও অপরাধীরা যাতে সীমান্ত পথে ভারতে যেতে না পারে এ জন্য মৌলভীবাজারের সীমান্তবর্তী এলাকা ও দর্শনীয় স্থানে বিশেষ নিরাপত্তা ও টহল জোরদার করেছে বর্ডার গার্ড বাংলাদেশ (বিজিবি)।
বিজিবি সূত্রে জানা গেছে, জঙ্গি তৎপরতা মোকাবেলার জন্য জেলার সীমান্তবর্তী কুলাউড়া জুড়ী, বড়লেখা উপজেলার চাতলাপুর, আলীনগর,মুড়ইচড়া ফুলতলার বিঠুলী,রাজকী,বোবারতল সীমান্ত গুলোতে নিরাপত্তা ব্যবস্থা জোরদার করতে প্রতিটি গুরুত্বপূর্ণ মোড়ে রাতে চেকপোষ্ট বসানোর সিদ্বান্ত নেয়া হয়েছে। একই সঙ্গে সীমান্ত জুড়ে বিজিবির টহলের পাশাপাশি গোয়েন্দা পুলিশের নজরদারি বাড়ানো হয়েছে। বিশেষ নিরাপত্তার ব্যবস্থা জোরদারের লক্ষ্যে বিজিবির প্রতিটি ইউনিটে কয়েকগুণ জনবল বৃদ্ধি করা হয়েছে।এছাড়াও সীমান্তের ১২০ কিলোমিটার এলাকাজুড়ে বিজিবি সদস্যদের টহল জোরদার ও নিরাপত্তা বৃদ্ধি করা হয়েছে।

Pic-Bgb-3
বিজিবি সূত্রে আরো জানা যায়,সীমান্তে জঙ্গি হামলা মোকাবেলায় বাংলাদেশ-ভারত সীমান্ত পথে অবস্থিত সিসিটিভি ক্যামেরাগুলো সচল ও সক্রিয় করা হয়েছে।সীমান্ত এলাকার সড়কের পাশের ঝোপঝাড় গাছপালা কেটে পরিষ্কার করা হচ্ছে। সীমান্তের যেসব রুট চোরাকারবারিরা ব্যবহার করত সেগুলো বন্ধ করে দেয়া হয়েছে।সীমান্ত এলাকার বাসিন্দাদের সন্ধ্যার পর বাইরে ঘোরাফেরা না করার জন্য পরামর্শ দিয়েছে বিজিবি।
এ বিষয়ে জেলার কুলাউড়ার চাতলাপুর সীমান্তের বিজিবি ক্যাম্পের কোম্পানী কামান্ডার হযরত আলী বলেন,উর্ধতন কর্মকর্তার নির্দেশে আগের চেয়ে এখন টহল দ্বিগুন করা হয়েছে। অপর দিকে জুড়ীর উপজেলার সীমান্তবর্তী ফুলতলা ক্যাম্পের কোম্পানী কামান্ডার মোহাম্মদ শরিফুল ইসলাম বলেন,সন্ধ্যা হলেই বিপুল সংখ্যক বিজিবির সদস্যদের
নিয়ে বিঠুলী,বিরইনতলাসীমান্ত বিশেষ সতর্কতার সহিত বিশেষ টহল অব্যাহত রয়েছে।
এ ব্যাপারে বর্ডার গার্ড বাংলাদেশ (বিজিবি) ৪৬ ব্যাটালিয়নের লে. কর্নেল মোহাম্মদ আখতার ইকবাল (পিএসসি) মোবাইলে নিরাপত্তার বিষয়টির সত্যতা নিশ্চিত করে জানান, সম্প্রতি ঢাকা গুলশান হলি আর্টিজান রেস্তোরাসহ দেশের বিভিন্ন জায়গায় জঙ্গি হামলার ঘটনার পর থেকে মৌলভীবাজারের সীমান্তবর্তী এলাকায় আগের চেয়ে ৫ গুন নিরাপত্তা ও বিশেষ টহল জোরদার করা হয়েছে।

সংবাদটি শেয়ার করতে নিচের “আপনার প্রিয় শেয়ার বাটনটিতে ক্লিক করুন”
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •