জেলার ৪ ইউনিয়নে নেই বিএনপির প্রার্থী

May 23, 2016, এই সংবাদটি ১৮২ বার পঠিত

ইমাদ উদ দীন॥ মৌলভীবাজার জেলার শ্রীমঙ্গলের ৩টি ইউনিয়নে ও কমলগঞ্জের ১টি ইউনিয়নে ২জন করে চেয়ারম্যান প্রার্থী মাত্র ৮জন। এর মধ্যে নির্বাচিত হবেন ৪ জন। এ ৪টি ইউনিয়নে আওয়ামীলীগ মনোনীত দলীয় প্রতীকে প্রার্থী আছেন কিন্তুু বিএনপি কোন প্রার্থী দিতে পারেনি। এ ছাড়া অন্য কোন দলেরও মনোনীত প্রার্থী নেই। তাই ভোট যুদ্ধে লড়াই হবে আওয়ামীলীগ বনাম স্বতন্ত্রের।
ইউনিয়নগুলো হচ্ছে শ্রীমঙ্গলে রাজঘাট, কালিঘাট, সাতগাঁও ও কমলগঞ্জের ইসলামপুর। এই ৪ ইউনিয়নে প্রার্থী সংকটে স্থানীয় ভোটারদের মধ্যে নির্বাচনী আমেজ ছড়াচ্ছে কম। এমন বক্তব্য ভোটারদের।
ইসলামপুর আওয়ামীলীগ মনোনীত সুলেমান মিয়া ও তার আপন ভাই আব্দুল হান্নান (বিএনপি বিদ্রাহী)। উক্ত ইউনিয়নে বিএনপি মনোনীত প্রার্থী সুন্দর আলী ১২ মে বৃহস্পতিবার তার প্রার্থীতা প্রত্যাহার করায় শুধু দলীয় প্রতীক রয়েছে নৌকা।
স্থানীয় সুত্রে জানা যায় শ্রীমঙ্গলের ৩টি ইউনিয়নে গেল নির্বাচনেও চেয়ারম্যান প্রার্থীর সংখ্যা কম না হলেও এবারের নির্বাচনে প্রার্থীর সংখ্যা একেবারেই কম। তুলানামূলক ওই ইউনিয়ন ৩টিতে এই উপজেলার অন্য ইউনিয়ন থেকে ভোটার সংখ্যা তেমন কম না হলেও প্রার্থীর সংখ্যা কম। এর কারণ হিসেবে তারা জানালেন এবারে দলীয় প্রতীকে নির্বাচন হওয়ায় গত নির্বাচনের মত এবারের নির্বাচনে তাই স্বতন্ত্র প্রার্থীদের নেই তেমন আগ্রহ। স্থানীয়রা জানালেন এই ৩টি ইউনিয়ন বাগান অধ্যুষিত হওয়ায় বরাবরের মত ওখানে নৌকা প্রতীকের ভোট বেশী। তাই ওখানে অন্য কোন দলের কিংবা স্বতন্ত্র চেয়ারম্যান পদে প্রার্থী হতে আগ্রহ দেখান না প্রার্থীরা। শ্রীমঙ্গল নির্বাচন অফিস সুত্রে জানা যায় রাজঘাট ইউনিয়নে মোট ভোটার ১৮ হাজার ২শ’৩ জন। কালিঘাট ইউনিয়নে মোট ভোটার ১৫ হাজার ২শ’ ৫১ জন। সাতগাঁও ইউনিয়নে মোট ভোটার ৮ হাজার ৫শ’৫৮ জন। শ্রীমঙ্গলের ৯টি ইউনিয়নে মোট ভোটার ১লক্ষ ৯৩হাজার ৫শ’ ৬৭ জন। কাকতালীয় ভাবে এই ৩টি ইউনিয়নের বর্তমান ৩জন চেয়ারম্যানই আওয়ামীলীগ মনোনীত নৌকা প্রতীকের প্রার্থী। আর তাদের প্রতিদ্বন্ধী ৩ জন স্বতন্ত্র প্রার্থীর প্রতীক হল আনারস। তাই আসন্ন ২৮ মে নির্বাচনে লড়াই জমবে নৌকা বনাম আনারসের। একই প্রতীক ৩ ইউনিয়নের স্বতন্ত্র প্রার্থীরা পচন্দ করা নিয়ে জানতে চাইলে তারা জানান যে হেতু আমরা কোন দলীয় প্রতীক নিয়ে নির্বাচন করছিনা তাই স্থানীয় ভোটারদের কাছে যে প্রতীকটি বেশি পরিচিত সেইটিই আমরা পচন্দ করেছি।তারা জানালেন আনারস আর লেবুর চাষের জন্য দেশের অন্যতম অঞ্চল হিসেবে খ্যাত শ্রীমঙ্গলের অধিকাংশ মানুষই এই দু’টি ফসলের সাথে তাদের জীবন জীবীকা সম্পৃক্ত। তাছাড়া প্রচন্ড গরমের সময়ে মৌসুমী এই রসালো ফসলটি এখন সকলেরই প্রিয়। তাই তাদের দাবী ঐতিহ্যের ঠানে হয়ত স্থানীয় ভোটাররা তাদের প্রতীক আনারসকেই ভালোবাসবেন। তবে প্রতীক যাই থাকুক ভোটারদের দাবী দু’জনের মধ্যে যে যোগ্য প্রার্থী তাকেই তারা বেচেঁ নিবেন। আর তাদের মূল্যবান ভোট দিয়ে জয়যুক্ত করবেন। এই ৪ ইউনিয়নে বিএপি চেয়ারম্যান প্রার্থী না থাকা প্রসঙ্গে বিএনপির জাতীয় নির্বাহী কমিটির সদস্য ও শ্রীমঙ্গল উপজেলা বিএনপির আহবায়ক হাজী মুজিবুর রহমান মুজিব বলেন বাগান অধ্যুষিত হওয়ায় ওখানে আমাদের দলের নেতাকর্মীরা কৌশলগত কারণে দলীয় প্রতীকে প্রার্থী হওয়া থেকে বিরত রয়েছেন।

সংবাদটি শেয়ার করতে নিচের “আপনার প্রিয় শেয়ার বাটনটিতে ক্লিক করুন”
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •