জেলা পরিষদ নির্বাচনে কে কত ভোট পেলেন

January 1, 2017, এই সংবাদটি ৪৩০ বার পঠিত

হোসাইন আহমদ॥ মৌলভীবাজার জেলা পরিষদ নির্বাচনে ২১টি পদে প্রার্থী ছিলেন ১১৪জন। নানা কৌশল অবলম্ভন করে ভোটারদের মন জয় করে অনেকেই জয়ের মালা পড়েছেন আবার অনেক প্রার্থী শূন্য হাতে ঘরে ফিরেছেন। নির্বাচনে বিজয়ীদের দেয়া প্রতিশ্রুতি কতটুকু বাস্তবায়ন হবে এমন প্রশ্ন এখন সর্ব মহলে। তবে প্রতিদিনই বিভিন্ন সংগঠন ও ব্যক্তির পক্ষ থেকে বিজয়ীদের দেয়া হচ্ছে ফুলের মালা এবং তাদের সমর্থকদের মধ্যে বিতরণ করা হচ্ছে মিষ্টি।
জেলা নির্বাচন অফিস সূত্রে জানাযায়, চেয়ারম্যান পদে আওয়ামী লীগ সমর্থিত প্রার্থী মোঃ আজিজুর রহমান (চশমা) ৩৪২ ভোট পেয়ে বিজয়ী হয়েছেন। তার নিকটতম প্রতিদ্বন্ধী প্রার্থী এম এম শাহীন (আনারস) পেয়েছেন ২৮৯ ভোট। এছাড়া এম এ রহিম শহিদ (মোটরসাইকেল) পেয়েছেন ২৫৩টি, শাহাবুদ্দিন সাবুল (প্রজাপতি) ৫৭টি, বকসি ইকবাল আহমেদ ৫টি, সোহেল আহমদ (তালগাছ) ২টি ভোট পেয়েছেন।
সাধারণ সদস্য পদে ১নং ওয়ার্ডে আবু আহমদ হামিদুর (ঘুড়ি) ২৪টি, দেলোয়ার হোসেন (বৈদ্যুতিক পাখা) ০১টি, জাহিদুল ইসলাম (টিউবয়েল) ১৪টি , নাহিদ আহমদ (তালা) ১৯টি, মো: আব্দুন নূর (উটপাখি) ৫টি ভোট পেয়েছেন। এই ওয়ার্ডে আবু আহমদ হামিদুর (ঘুড়ি) বিজয়ী হয়েছেন।
২নং ওয়ার্ড মো: নজরুল ইসলাম (হাতি) ০, মো: ফয়জুল হক (অটোরিক্সা) ০৩টি, মো: সেলিম উদ্দিন (বৈদ্যুতিক পাখা) ৪টি, লোকমান আহমদ (তালা) ১৭টি, শহীদুল আলম শিমুল (ক্রিকেট ব্যাট) ১৯টি, স্বপন কুমার চক্রবর্তী (টিউবয়েল) ১২টি ভোট পেয়েছেন। এই ওয়ার্ডে শহীদুল আলম শিমুল (ক্রিকেট ব্যাট) বিজয়ী হয়েছেন।
৩নং ওয়ার্ডে আজিম উদ্দিন (বৈদ্যুতিক পাকা) ১৯টি, মো: ফখরুল ইসলাম (টিউবয়েল) ৫টি, আব্দুল কাদির (অটোরিক্সা) ৫টি, মো: জুবের হাসান জেবলু (তালা) ১১টি, সুব্রত কুমার দাস (হাতি) ১১টি ভোট পেয়েছেন। এই ওয়ার্ডে আজিম উদ্দিন (বৈদ্যুতিক পাকা) বিজয়ী হয়েছেন।
৪নং ওয়ার্ডে: আব্দুল হান্নান (তালা) ০, জুয়েল আহমদ (ক্রিকেট ব্যাট) ০, মো: ইমরুল ইসলাম (টিউবয়েল) ২টি, জাহাঙ্গীর আলম (অটোরিক্সা) ২৪টি, বদরুল ইসলাম (হাতি) ২৯টি, জায়েদ আনোয়ার চৌধুরী (বৈদ্যুতিক পাখা) ০ ভোট পেয়েছেন। এই ওয়ার্ডে বদরুল ইসলাম(হাতি) বিজয়ী হয়েছেন।
৫নং ওয়ার্ডে আব্দুল জব্বার (বক) ০, দেলোয়ার হোসেন (বৈদ্যুতিক পাখা) ১টি, বদরুল আলম (হাতি) ২৩টি, মো:আব্দুল মতলিব (অটোরিক্সা) ১টি, বদরুল ইসলাম (ঘুড়ি) ৫টি, মো: ময়নুল ইসলাম (টিফিন ক্যারিয়ার) ৩টি, মো: ময়নুল হক (ক্রিকেট ব্যাট) ১টি, সি এম জয়নাল আবেদীন (তালা) ১টি, সেলিম আহমদ (টিউবয়েল) ৩৩টি ভোট পেয়েছেন। এই ওয়ার্ডে সেলিম আহমদ (টিউবয়েল) বিজয়ী হয়েছেন।
৬নং ওয়ার্ডে খন্দকার মুহিবুর রহমান মলাই (বৈদ্যুতিক পাখা) ৪টি, নওয়াব আলী সাজ্জাদ খান (ঘোড়ি) ২টি, ফরিদ উদ্দিন আহমেদ (ঢোল) ০, মো: আব্দুল মানিক (বেহালা) ২২টি, মো: আব্দুল লতিফ (ক্রিকেট ব্যাট) ৮টি, মো: আব্দুস শহীদ (টিফিন ক্যারিয়ার) ৪টি, মো: মুহিবুল ইসলাম আযাদ (হাতি) ৫টি, মো: লুৎফুর রহমান (অটো রিক্সা) ৭টি, মো: শফিউল আলম (তালা) ১২টি, সুয়েল আহমদ (টিউবয়েল) ১টি ভোট পেয়েছেন। এই ওয়ার্ডে মো. আব্দুল মানিক (বেহালা) বিজয়ী হয়েছেন।
৭নং ওয়ার্ডে মো: মঈনুল হক (তালা) ১১টি, এম এ আহাদ (টিউবয়েল) ২৪টি, নাসির উদ্দিন আহমদ (ঘুড়ি) ৬টি, মো: আতাউর রহমান (ক্রিকেট ব্যাট) ২টি, মো: আব্দুল্লাহ আল মামুন (অটো রিক্সা) ৪টি, মোহাম্মদ জাহাঙ্গীর আলম (বৈদ্যুতিক পাখা) ৪টি, সেলিম আহমদ (হাতি) ১৪ টি ভোট পেয়েছেন। এই ওয়ার্ডে এম এ আহাদ (টিউবয়েল) বিজয়ী হয়েছেন।
৮নং ওয়ার্ডে বদরুল হোসেন (হাতি) ১৭টি, আব্দুল আজিজ বদরুল (তালা) ৮টি, মো: আব্দুল হাকিম তালুকদার (অটোরিক্সা) ০, মো: এহতেশামুল হক টিউবয়েল ১৬টি, মো: ফজর আলী (ক্রিকেট ব্যাট) ২টি, রওনক আহমেদ (বৈদ্যুতিক পাখা) ২৩টি, সৈয়দ আবুল কালাম আযাদ (ঘোড়ি) ১টি, হুমায়ুন আলম (ঢোল) ১টি ভোট পেয়েছেন। এই ওয়ার্ডে রওনক আহমদ (বৈদ্যুতিক পাখা) বিজয়ী হয়েছন।
৯নং ওয়ার্ডে শেখ মাহমুদুর রহমান (ঘুড়ি) ১টি, আবু তাহেল রানা (তালা) ২টি, এলেমান হোসেন (অটো রিক্সা) ১টি, মো: আতাউর রহমান (উট পাখি) ২৫টি, মো: শাহাজান তালুকদার (ক্রিকেট ব্যাট) ৩টি, মো: হুমায়ুন তালুকদার (টিউবয়েল) ১২টি, শিব্রত চক্রবর্ত্তী (বৈদ্যুতিক পাখা) ২টি ভোট পেয়েছেন। এই ওয়ার্ডে মো. আতাউর রহমান (উটপাখি) বিজয়ী হয়েছেন।
১০ নং ওয়ার্ডে আকবর আলী (বৈদ্যুতিক পাকা) ২৪টি, মাহবুব ইজদানী (ঘুড়ি) ১০টি, মো: মামুনুর রশিদ (তালা) ৩০টি ভোট পেয়েছেন। এই ওয়ার্ডে মো. মামুনুর রশীদ চৌধুরী (তালা) বিজয়ী হয়েছেন।
১১নং ওয়ার্ডেঃ মো: ইমরান (টিউবয়েল) ১টি, হাসান আহমদ জাবেদ (তালা) ৩৯টি, সুজিত দাস (অটোরিক্সা) ২৬টি ভোট পেয়েছেন। এই ওয়ার্ডে মো. মামুনুর রশীদ চৌধুরী (তালা) বিজয়ী হয়েছেন।
১২ নং ওয়ার্ডে: বিকুল চক্রবর্তী (হাতি) ১টি, মোছাব্বির আলী মুন্না (বক) ১৩টি, মো: নিয়ামুল হক তরফদার (অটোরিক্সা) ১০টি, পরিমল দাশ (বৈদ্যুতিক পাখা) ৫টি, মো: আফজল হক (টিউবয়েল) ৬টি, মো: মশিউর রহমান (তালা) ২৬টি। এই ওয়ার্ডে মো. মশিউর রহমান (তালা) বিজয়ী হয়েছেন।
১৩নং ওয়ার্ড নাজিম উদ্দিন (অটোরিক্সা) ৯টি, পংকজ আউলেসিয়োস কন্দ (তালা) ১০টি, মো: আবুল বাসার (বৈদ্যুতিক পাখা) ৬টি, মো: বদরুজ্জামান সেলিম (টিউবয়েল) ৪৩টি ভোট পেয়েছেন। এই ওয়ার্ডে মো. বদরুজ্জামান সেলিম (টিউবয়েল) বিজয়ী হয়েছেন।
১৪ নং ওয়ার্ড কমলা বাবু সিংহ (টিউবয়েল) ৩টি, গোলাম রব্বানী তৈমুর (অটোরিক্সা) ২৫টি, হেলাল উদ্দিন (তালা) ৩৭টি ভোট পেয়েছেন। এই ওয়ার্ডে মো. হেলাল উদ্দিন (তালা) বিজয়ী হয়েছেন।
১৫ নং ওয়ার্ডে মো: ইলিয়াছুর রহমান (টিউবয়েল) ১১টি, মো: মুর্শেদুর রহমান (তালা) ৩৭টি, মো: মুহিবুর রহমান (অটোরিক্সা) ১৯টি ভোট পেয়েছেন। এই ওয়ার্ডে মো. মুর্শেদুর রহমান (তালা) বিজয়ী হয়েছেন।
সংরক্ষিত মহিলা সদস্য পদে ১নং ওয়ার্ডে (১,২,৩ ): জুবেদা ইকবাল (ফুটবল) ৯৬টি, আমেনা বেগম (হরিণ) ৭৩টি ভোট পেয়েছেন। জুবেদা ইকবাল (ফুটবল) বিজয়ী হয়েছেন।
২নং ওয়ার্ডে (৪.৫.৬): শিরিন আক্তার চৌঃ মুন্নি (মাইক) ৫৫টি, জিশান আরা বেগম (টেলিফোন) ৩১টি, আজিবুন খানম (হরিণ) ১২টি, ফরহান বেগম চৌধুরী দোয়াত (কলম) ৪৯টি, মোছা: আমেনা আক্তার (ফুটবল) ৫টি, মোছা: খোদাজা বেগম (বই) ৫টি, শিল্পী বেগম (টেবিল ঘড়ি) ৩০টি ভোট পেয়েছেন। এই ওয়ার্ডে শিরিন আক্তার চৌধুরী মুন্নি (মাইক) বিজয়ী হয়েছেন।
৩ নং ওয়ার্ডে (৭.৮.৯): রাজিয়া সুলতানা শেখ (ফুটবল) ২৪টি, মুক্তি চক্রবর্ত্তী (টেবিল ঘড়ি) ৫০টি, রাকিবা সুলতানা তালুকদার (দোয়াত কলম) ১২৩ ভোট পেয়েছেন। এই ওয়ার্ডে রাকিবা সুলতানা (দোয়াত কলম) বিজয়ী হয়েছেন।
৪ নং ওয়ার্ডে (১০.১১.১২): রহিমা আক্তার (বই) ৩২টি, রেজিয়া রহমান (ফুটবল) ১৩টি, সৈয়দা জেরিন আক্তার (টেবিল ঘড়ি) ৮৪টি, সুরাইয়া ইয়াছমিন (হরিণ) ৬২টি ভোট পেয়েছেন। এই ওয়ার্ডে সৈয়দা জেরিন আক্তার (টেবিল ঘড়ি) বিজয়ী হয়েছেন।
৫ নং ওয়ার্ড (১৩.১৪.১৫): তরফদার রেজওয়ানা ইয়াছমিন (বই) ১০১, মমতা আক্তার সুমী (মাইক) ০, মুন্না দেব রায় (দোয়াত কলম) ৪০টি, মেরী রাল্ফ (হরিণ) ০, শেলী রানী পাল (টেবিল ঘড়ি) ২টি, রোকশানা আক্তার (ফুটবল) ০ ভোট পেয়েছেন। এই ওয়ার্ডে তরফাদার রিজওয়ানা ইয়াসমিন (বই) বিজয়ী হয়েছেন।

সংবাদটি শেয়ার করতে নিচের “আপনার প্রিয় শেয়ার বাটনটিতে ক্লিক করুন”
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •