পুলিশ কর্মকর্তার পরিচয়ে পৌর কাউন্সিলরের অর্থ হাতিয়ে নিয়েছে এক প্রতারক

May 24, 2022,

শ্রীমঙ্গল প্রতিনিধি॥ পুলিশ কর্মকর্তার ভূয়া পরিচয়ে শ্রীমঙ্গল পৌর কাউন্সিলরের কাছ থেকে অর্থ হাতিয়ে নেয়ার অভিযোগ পাওয়া গেছে। এ ঘটনায় শ্রীমঙ্গল পৌরসভার মেয়র মো. মহসিন মিয়া মধু মঙ্গলবার ২৪ মে শ্রীমঙ্গল থানায় একটি জিডি করেছেন।
জানা গেছে, সোমবার রাতে ভানুগাছ সড়কের ১০নং এলাকায় একটি সংঘর্ষের ঘটনায় পুলিশ কয়েকজনকে আটক করে। এ ঘটনাকে কেন্দ্র করে মঙ্গলবার সকালে শ্রীমঙ্গল থানা ওসি তদন্ত পরিচয়ে এক ব্যক্তি ০১৩০২৮৪৫৪৯৮ মোবাইল থেকে পৌরসভার মেয়র মহসিন মিয়া মধুকে ফোন করেন। এসময় তিনি গত রাতের সংঘর্ষের ঘটনা উল্লেখ করে একজন কাউন্সিলরকে থানায় যোগাযোগ করতে বলেন। তা না হলে আসামীদের চালান করে দেয়া হবে। পরে মেয়র পৌর কাউন্সিলর আলকাছ মিয়াকে থানায় পাঠান।
এরপর পৌর মেয়র মহসিন মিয়া মধু কাউন্সিলর আলকাছ মিয়ার সাথে যোগাযোগ করে জানতে পারেন, থানায় যাবার পথে একই ফোন নাম্বার থেকে শ্রীমঙ্গল থানার ওসি (তদন্ত) পরিচয়ে এক ব্যক্তি তার কাছ থেকে ৫ হাজার টাকা বিকাশে গ্রহন করে। শ্রীমঙ্গল থানায় গিয়ে ওই নাম্বারে ফোন করলে নাম্বারটি বন্ধ পাওয়া যায়।
মঙ্গলবার সকাল সাড়ে ১১ টার দিকে এ ঘটনা নিয়ে শ্রীমঙ্গল থানায় যোগাযোগ করা হলে, কর্তব্যরত ডিউটি অফিসার এসআই আমিনুল ইসলাম বলেন, আজ সকালে মৌলভীবাজার ডিবি পুলিশের কর্মকর্তা পরিচয় দিয়ে এক ব্যক্তি হাজত খানায় আসামীদের তালিকা ও স্বজনদের ফোন নাম্বার চান। লোকটির কথা বার্তায় এসআই আমিনুল ইসলামের সন্দেহ হলে উর্দ্ধতন কর্মকর্তাদের অনুমতি ছাড়া তালিকা দেয়া যাবে না বলে জানিয়ে দেন। এসময় লোকটি বলেন, আমি ফোনে আছি এখনই জানান। এতে এসআই আমিনুল পরে জানাবেন বলে ফোনের সংযোগ কেটে দেন।
এরপর এসআই আমিনুল ইসলাম সাথে সাথে কাউন্সিলর আলকাছ মিয়াকে ফোন দিয়ে ডিবি পুলিশের পরিচয়ে কোন ব্যক্তি টাকা পয়সা দাবী করলে না দেয়ার জন্য সতর্ক করেন।
এবিষয়ে শ্রীমঙ্গল থানার ওসি (তদন্ত) হুমায়ন কবির বলেন, এটি কোন সংঘবদ্ধ প্রতারক চক্রের কাজ হতে পারে। চক্রটিকে ধরতে তথ্য প্রযুক্তির সাহায্য নেয়া হচ্ছে বলে তিনি জানান।

সংবাদটি শেয়ার করতে নিচের “আপনার প্রিয় শেয়ার বাটনটিতে ক্লিক করুন”
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •