বঙ্গবীর এম এ জি ওসমানীর জন্ম শত বার্ষিকী পালিত : পাঠ্য পুস্তকে ব্যাপকভাবে ওসমানীর জীবনী অন্তর্ভুক্ত করার দাবী

September 2, 2018, এই সংবাদটি ২৯৬ বার পঠিত

স্টাফ রিপোটাার॥ মহান মুক্তিযুদ্ধের কমান্ডার ইন চীফ বঙ্গবীর এম এ জি ওসমানীর জন্ম শত বার্ষিকী উপলক্ষে এক আয়োজিত সভায় বক্তারা বলেছেন জাতীর জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান ছিলেন বাংলাদেশের স্বাধীনতার মহা নায়ক আর ওসমানী ছিলেন মুক্তিযুদ্ধের কমান্ডার ইন চীফ। তাই ওসমানীর প্রতি যথাযথ শ্রদ্ধা জানানোর মধ্য দিয়েই তার প্রতি প্রকৃত সম্মান দেয়া উচিত এবং প্রাথমিক শিক্ষা থেকে উচ্চতর শিক্ষা পর্যন্ত পাঠ্যপুস্তকে ব্যাপকভাবে বঙ্গবীর ওসমানীর জীবনী অন্তর্ভুক্ত করার জন্য সরকারের প্রতি আহ্বান জানানো হয়।

১ সেপ্টেম্বর শনিবার  সন্ধ্যায় মুক্তিযুদ্ধের কমান্ডার ইন চীফ জেনারেল বঙ্গবীর ওসমানীর জন্ম শত বার্ষিকী উদযাপন পরিষদ মৌলভীবাজারের আহ্বায়ক সিনিয়র সাংবাদিক বকসি ইকবাল আহমদের সভাপতিত্বে স্থানীয় শিল্প কলা একডেমিতে আলোচনা সভায় সম্মানিত অতিথি হিসাবে বক্তব্য রাখেন জেলা আইনজীবি সমিতির সাবেক সভাপতি গণফোরাম কেন্দ্রীয় প্রেসিডিয়াম সদস্য এডভোকেট শান্তিপদ ঘোষ, জেলা আইনজীবি সমিতির সভাপতি এডভোকেট রমাকান্ত দাস গুপ্ত, বিশিষ্ঠ লেখক ও ইতিহাস গবেষক সৈয়দ জয়নাল আবেদিন, জেলা জাতীয় পার্টির সভাপতি সৈয়দ শাহাবুদ্দিন আহমদ, বীর মুক্তিযোদ্ধা দেওয়ান আবুল খায়ের চৌধুরী, প্রিন্সিপাল মোঃ ইকবাল, বাসস জেলা প্রতিনিধি ডা: ছাদিক আহমদ, জেলা আইনজীবি সমিতির সাবেক সাধারণ সম্পাদক ডাডলি ডেরিক প্রেন্টিস, ও এডভোকেট কামরেল আহমদ চৌধুরী, হাফিজা খাতুন বালিকা উচ্চ বিদ্যালয় এর প্রধান শিক্ষিকা রাশিদা বেগম, এডভোকেট দীপ্তেন্দু দাশ গুপ্ত কাজল,  অনুষ্ঠানে স্বাগত বক্তব্য দেন উদযাপন পরিষদের সদস্য সচিব এডভোকেট ভূষনজিৎ চৌধুরী মিলন, অনুষ্ঠান পরিচালনা করেন পরিষদের সমন্বয়কারী মাহমুদুর রহমান মাহমুদ ও ছড়া লেখক শাহাদাত হোসেন। অনুষ্ঠানে কুরআন তেলাওয়াত করেন উদযাপন পরিষদের সদস্য ও এডভোকেট হাফিজ আব্দুল আলিম।

স্মৃতি চারণ মূলক এই অনুষ্ঠানে জেনারেল ওসমানীর জীবনের বিভিন্ন দিক নিয়ে প্রাণবন্ত ও সরব আলোচনায় অতিথিবৃন্দ তার জীবনের বিভিন্ন দিক উলে¬খ করে ওসমানীর সময় নিষ্ঠতা ও জাতীর প্রতি তার কর্তব্য  নিয়ে বক্তব্য রাখেন। এছাড়াও ওসমানীর জন্মবার্ষিকী উপলক্ষে ঐ দিন বাদ যোহর দরগাহ জামে মসজিদে এক মিলাদ মাহফিল অনুষ্ঠিত হয়।

সংবাদটি শেয়ার করতে নিচের “আপনার প্রিয় শেয়ার বাটনটিতে ক্লিক করুন”
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •