ব্যাংকের কিস্তির টাকা পরিশোধ করতে না পারায় ব্যবসায়ীর আত্মগোপন : ৪ দিন পর সুনামগঞ্জ থেকে উদ্ধার

April 13, 2016, এই সংবাদটি ১,০৪৭ বার পঠিত

স্টাফ রিপোর্টার॥ মৌলভীবাজার শহরের ব্যবসায়ী মাফিক মিয়াকে (৫৫) নিখোঁজের ৪ দিন পর সুনামগঞ্জ থেকে উদ্ধার করেছে পুলিশ।
সোমবার ১১ এপ্রিল রাত সাড়ে নয়টায় মডেল থানার এসআই পরিমল চন্দ্র দাস এর নেতৃত্বে একদল পুলিশ এই অভিযান পরিচালনা করেন।
সুনামগঞ্জ শহরের একটি হোটেল থেকে থাকে উদ্ধার করে মৌলভীবাজারে নিয়ে আসা হয়।
১২ এপ্রিল মঙ্গলবার বিকাল ৩টায় মৌলভীবাজার মডেল থানায় সংবাদ সম্মেলনে এ তথ্য নিশ্চিত করেন সহকারী পুলিশ সুপার রাশেদুল ইসলাম। ব্যবসায়ী মাফিক মিয়া শহরের এম সাইফুর রহমান রোডস্থ মা-শা আল্লাহ মা ভান্ডারের সত্ত্বাধিকারী। তিনি সদর উপজেলার নিতেশ্বর গ্রামের মৃত লালু মিয়ার ছেলে।
পুলিশ সূত্রে জানা যায়, মফিক মিয়া ব্যবসার জন্য শহরের বিভিন্ন ব্যাংক থেকে প্রায় ১ কোটি টাকার ঋণ গ্রহণ করেন। প্রতিদিন থাকে ১১ হাজার টাকার কিস্তি প্রদান করতে হয়। এ অবস্থায় পারিবার ও দোকানের কর্মচারীদের খরচ চালানো তার পক্ষে সম্ভব হচ্ছিল না। জিজ্ঞাসাবাদে বিভিন্ন ব্যাংকের পাওনা টাকা পরিশোধ করতে না পেরে তিনি আত্মগোপন করেছেন।
মফিক মিয়া বলেন, গত ৯ এপ্রিল শ্রীমঙ্গল রিপন ট্রেডার্সের হালখাতায় ১০ লক্ষ পাওনা টাকা দেওয়ার কথা ছিল। এ সময় আমার কাছে কোন টাকা না থাকায় আমি ভারসাম্যহীন হয়ে পড়ি। হালখাতায় টাকা দিতে শ্রীমঙ্গল যাচ্ছি বলে বাড়ী থেকে বাহির হয়ে গিয়াসনগর বাজারে নেমে এখান থেকে বাসে সিলেট হয়ে সুনামগঞ্জ চলে যাই। সেখানে গিয়ে একটি হোটেলে উঠি।
তিনি আরো বলেন, আমার ৭ মেয়ে ও ২ ছেলের লেখাপড়া ও পরিবারের খরচ চালানো এখন আমার পক্ষে সম্ভব নয়। কিভাবে প্রতিদিন ১১ হাজার টাকা কিস্তি পরিশোধ করব। কোন উপায় না পেয়ে আমি আত্মগোপনে চলে যাই।
তার পরিবারের সদস্যরা মৌলভীবাজার মডেল থানায় জিডি করলে পুলিশ গোপন সংবাদের ভিত্তিতে ৪ দিন পর সুনামগঞ্জ থেকে উদ্ধার করে।

সংবাদটি শেয়ার করতে নিচের “আপনার প্রিয় শেয়ার বাটনটিতে ক্লিক করুন”
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •