বড়লেখায় গলায় ফাঁস দিয়ে স্কুলছাত্রীর আত্মহত্যা

September 29, 2021,

আব্দুর রব॥ বড়লেখায় বসতঘরের পেছনে রশিতে গলায় ফাঁস দিয়ে কাঁঠাল গাছে ঝুলে এক স্কুলছাত্রী কিশোরীর আত্মহত্যার খবর পাওয়া গেছে। ওই কিশোরীর নাম হাফিজা বেগম (১৬)। সে স্থানীয় টেকাহালি উচ্চ বিদ্যালয়ের নবম শ্রেণীর ছাত্রী ও উপজেলার মহদিকোনা গ্রামের কলাই মিয়ার মেয়ে। ঘটনাটি ঘটেছে ২৯ সেপ্টেম্বর বুধবার দুপুরে। তবে কি কারণে ছাত্রীটি আত্মহত্যা করেছে স্বজনরা তা নিশ্চিত করতে পারেননি।
এদিকে গাছে ঝুলন্ত অবস্থায় কিশোরীকে উদ্ধার করে স্বজনরা কাছাকাছি স্বত্তেও বড়লেখা উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে না নিয়ে দূরবর্তী বিয়ানীবাজার উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নিয়ে যাওয়ায় স্কুলছাত্রীর এ মৃত্যু নিয়ে এলাকায় রহস্যের সৃষ্টি হয়েছে।
থানা পুলিশ, হাসপাতাল ও নিহত কিশোরীর স্বজনদের সূত্রে জানা গেছে, বুধবার দুপুরে হাফিজা বেগমের মা লিপি বেগম হঠাৎ দেখতে পান তার মেয়ে বসতঘরের পেছনের কাঁঠালগাছে রশিতে গলায় ফাঁস দিয়ে ঝুলে রয়েছে। তার চিৎকারে স্বজনরা এগিয়ে আসেন। মামা রাজু মিয়াসহ স্বজনরা মুমূর্ষু অবস্থায় হাফিজা বেগমকে দ্রুত উদ্ধার করে পাশ্ববর্তী বিয়ানীবাজার উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নিয়ে যান। সেখানকার কর্তব্যরত চিকিৎসক তাকে মৃত ঘোষণা করেন।
বিয়ানীবাজার থানার ওসি (তদন্ত) মেহেদী হাসান বুধবার সন্ধ্যায় জানান, খবর পেয়ে পুলিশ কিশোরীর লাশ উদ্ধার ও সুরতহাল প্রতিবেদন তৈরী করেছে। ময়না তদন্তের জন্য লাশ সিলেট এমএজি হাসপাতাল মর্গে পাঠানোর প্রস্তুতি চলছে। ময়না তদন্ত শেষে নিহতের লাশ বড়লেখা থানা পুলিশের নিকট হস্তান্তর করা হবে। মৃত কিশোরীর বাড়ি বড়লেখায় হওয়ায় এব্যাপারে বড়লেখা থানা পুলিশ আইনানুগ ব্যবস্থা নিবে।

সংবাদটি শেয়ার করতে নিচের “আপনার প্রিয় শেয়ার বাটনটিতে ক্লিক করুন”
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •