বড়লেখায় চির নিদ্রায় শায়িত প্রখ্যাত আলেম আব্দুল কাইয়ুম সিদ্দিকী জানাজায় মুসল্লিদের ঢল

August 14, 2021, এই সংবাদটি ১৪০ বার পঠিত

আব্দুর রব॥ সিলেটের প্রখ্যাত আলেম-এ দ্বীন মৌলভীবাজারের সৈয়দ শাহ্ মোস্তফা টাউন কামিল মাদ্রাসার সাবেক অধ্যক্ষ বড়লেখা উপজেলার কৃতি সন্তন মাওলানা আব্দুল কাইয়ুম সিদ্দিকীর দাফন শুক্রবার বিকাল সাড়ে পাঁচটায় উপজেলার মুড়াউল গ্রামে পারিবারিক কবরস্থানে সম্পন্ন হয়েছে। তিনি বৃহস্পতিবার রাত ১-৩০ মিনিটে মৌলভীবাজার শহরের একটি প্রাইভেট হাসপাতালে ইন্তেকাল করেন (ইন্না—রাজিউন)।
শুক্রবার বিকাল সাড়ে পাঁচটায় তারাদরম শাহী ঈদগা মাঠে মরহুমের ভাই আব্দুল হক সিদ্দিকীর ইমামতিতে দ্বিতীয় যানাজার নামাজ অনুষ্ঠিত হয়। এর আগে মরহুমের প্রথম যানাজা বাদ জুম্মা হযরত সৈয়দ শাহ্ মোস্তফা (রা:) পৌর ঈদগাহ ময়দানে অনুষ্ঠিত হয়। যানাজায় ইমামতি করেন মাওলানা নজমুদ্দিন চৌধুরী ফুলতলী।
করোনা আতঙ্ক উপেক্ষা করে স্বাস্থ্যবিধি মেনে বিভিন্ন এলাকা থেকে সর্বস্তরের মানুষের উপস্থিতিতে ঈদগাহ ময়দান কানায় কানায় পূর্ণহয়ে যায়। বড়লেখায় দ্বিতীয় যানাজা পূর্ব সংক্ষিপ্ত আলোচনায় বক্তব্য রাখেন বড়লেখা উপজেলা চেয়ারম্যান সোয়েব আহমদ, ভাইস চেয়ারম্যান মোহাম্মদ তাজ উদ্দিন, রাখালগঞ্জ মাদ্রাসার অধ্যক্ষ মাওলানা শিহাব উদ্দিন আলী পুরী, উপজেলা আল ইসলাহর সভাপতি মাওলানা আব্দুর রহমান, স্থানীয় ইউপি চেয়ারম্যান শাহাব উদ্দিন, উপজেলা আল ইসলাহর সিনিয়র যুগ্ম সম্পাদক মাস্টার নাজিম উদ্দীন, কাজি মাওলানা রফিক উদ্দিন, মাওলানা আবদুল আলীম বর্ণি, মাওলানা আতাউর রহমান জাফরী। পরিবারের পক্ষে বক্তব্য রাখেন মরহুমের পুত্র তানজুম আহমদ সিদ্দিকি।
আল্লামা আব্দুল কাইয়ূম সিদ্দিকী ১৯৫৪ সালে বড়লেখার মুড়াউল গ্রামে জন্মগ্রহণ করেন। তিনি মৌলভীবাজার টাউন কামিল মাদ্রাসায় অধ্যক্ষ হিসাবে অত্যন্ত দক্ষতার সাথে ৩৪ বছর দায়িত্ব পালন শেষে অবসর গ্রহণ করেন। উপ-মহাদেশের প্রখ্যাত বুযুর্গ আল্লামা আব্দুল লতিফ চৌধুরী ফুলতলী (রা.) নিকট থেকে ইলমে তরিকতের তালিম নেন এবং তার নিকট থেকে খেলাফতি লাভ করেন। সাংগঠনিকভাবে তিনি দীর্ঘদিন আনজুমানে আল-ইসলাহ মৌলভীবাজার জেলা শাখার সভাপতির দায়িত্ব পালন করেন ও কেন্দ্রীয় শুরা সদস্য ছিলেন। এছাড়া অধ্যক্ষ থাকাকালীন মাদ্রাসা শিক্ষকদের সংগঠন জমিয়তুল মোদার্রেছীনেরও সভাপতির দায়িত্ব পালন করেছেন। তার সুদীর্ঘকালের শিক্ষকতা জীবনে কয়েক শত মুফতি, মাওলানা, মুহাদ্দিস ও ফকিহ তৈরি করেছেন। বৃহত্তর সিলেটের বিভিন্ন মাদ্রাসায় মরহুমের কয়েকশ’ ছাত্র শিক্ষকতা পেশা নিয়োজিত রয়েছেন।
এদিকে তার মৃত্যুতে কেন্দ্রীয় আল ইসলাহর সভাপতি মাওলানা হুছামুদ্দীন চৌধুরী ফুলতলী ও মহাসচিব অধ্যক্ষ একেএম মনোওর আলী, মৌলভীবাজার জেলা আল ইসলাহর সভাপতি অধ্যক্ষ মাওলানা শামছুল ইসলাম ও সাধারণ সম্পাদক মাওলানা আব্দুল আলিম শোক প্রকাশ করেছেন। তারা মরহুমের রুহের মাগফেরাত কামনা ও শোক সন্তপ্ত পরিবারের প্রতি গভীর সমবেদনা জ্ঞাপন করেছেন।

সংবাদটি শেয়ার করতে নিচের “আপনার প্রিয় শেয়ার বাটনটিতে ক্লিক করুন”
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •