ভোক্তা অধিদপ্তরে অভিযোগ করে চারজন অভিযোগকারী পেলেন পুরুষ্কার

June 21, 2022,

স্টাফ রিপোর্টার॥ অতিরিক্ত দামে ময়দা বিক্রয়, দৃশ্যমান স্থানে মূল্য তালিকা না রাখা, অতিরিক্ত দামে নিত্য প্রয়োজনীয় দ্রব্য বিক্রয় করা এমনই অভিযোগে চারজন অভিযোগকারীর লিখিত অভিযোগের পরিপ্রেক্ষিতে ২১ জুন মঙ্গলবার ভোক্তা অধিকার সংরক্ষণ অধিদপ্তর, মৌলভীবাজার জেলা কার্যালয়ে অভিযোগকারী এবং অভিযুক্তের উপস্থিতিতে এবং অভিযোগ প্রমাণিত হওয়ার সাপেক্ষে চারটি প্রতিষ্ঠানকে সর্বমোট ১৪ হাজার টাকা জরিমানা আরোপ এবং আদায় করা হয়। আইন অনুযায়ী জরিমানার ২৫% টাকা চারজন অভিযোগকারীকে মোট ৩ হাজার ৫ শত টাকা প্রদান করা হয়। প্রসেনজিৎ নাগ মৌলভীবাজার জেলার শ্রীমঙ্গল উপজেলার পোষ্ট অফিস রোডে অবস্থিত মেসার্স জাহাঙ্গীর ট্রেডার্স এর বিরুদ্ধে অতিরিক্ত দামে ময়দা বিক্রয় করার অভিযোগ এনে লিখিত অভিযোগ দায়ের করেন। উক্ত প্রতিষ্ঠানের মালিক মো: জাহাঙ্গীর আলম তার বিরুদ্ধে আনিত অভিযোগ স্বীকার করায় তাকে ৮ হাজার টাকা জরিমানা করা হয়। আইন অনুযায়ী অভিযোগকারী জনাব প্রসেনজিৎ নাগকে জরিমানার ২৫%=২ হাজার টাকা তাৎক্ষণিক প্রদান করা হয়। অতিরিক্ত দামে নিত্য প্রয়োজনীয় দ্রব্য বিক্রয় করা, দৃশ্যমান স্থানে মূল্য তালিকা প্রদর্শন না করায় মৌলভীবাজার জেলার সদর উপজেলার পুরাতন হাসপাতাল রোডে অবস্থিত মাতৃ ভান্ডার এর বিরুদ্ধে মো: জিতু তালুকদার অভিযোগ এনে লিখিত অভিযোগ দায়ের করেন। উক্ত প্রতিষ্ঠানের মালিক ধনঞ্জয় দাশ তার বিরুদ্ধে আনিত অভিযোগ স্বীকার করায় তাকে ৪ হাজার টাকা জরিমানা করা হয়। আইন অনুযায়ী অভিযোগকারী জনাব মো: জিতু তালুকদারকে জরিমানার ২৫%=১ হাজার টাকা তাৎক্ষণিক প্রদান করা হয়। একই ভাবে পূর্ব ধরকাপন রোডে অবস্থিত তালহা ষ্টোর এর বিরুদ্ধে মো: আলাউদ্দিন অতিরিক্ত দামে নিত্য প্রয়োজনীয় দ্রব্য বিক্রয় করার অভিযোগ আনায় অভিযুক্ত প্রতিষ্ঠানকে ১ হাজার টাকা জরিমানা করা হয় এবং আইন অনুযায়ী অভিযোগকারী মো: আলাউদ্দিনকে ২ শত ৫০ টাকা প্রদান করা হয়। এছাড়াও কোর্ট রোডে অবস্থিত খাতুন ষ্টোর এর বিরুদ্ধে সালেহ এলাহী কুটি অতিরিক্ত দামে নিত্য প্রয়োজনীয় দ্রব্য বিক্রয় করার অভিযোগ আনায় অভিযুক্ত প্রতিষ্ঠানকে ১ হাজার টাকা জরিমানা করা হয় এবং আইন অনুযায়ী অভিযোগকারী সালেহ এলাহী কুটি ২ শত ৫০ টাকা প্রদান করা হয়।

সংবাদটি শেয়ার করতে নিচের “আপনার প্রিয় শেয়ার বাটনটিতে ক্লিক করুন”
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •