মাওলানা মুহিউদ্দীন খান স্মরণে রাজনগর ছাত্র মজলিসের আলোচনা সভা

July 5, 2016,

স্টাফ রিপোর্টার॥ ইসলামী ছাত্র মজলিসের মৌলভীবাজার জেলা সভাপতি মুহাম্মদ এহসানুল হক বলেছেন-বাংলাদেশের আলেম সমাজের মাঝে মাওলানা মুহিউদ্দীন খান (রাহ.) ছিলেন একজন শীর্ষ স্থানীয় মুরব্বি শ্রেণীর ইসলামী চিন্তাবিদ। বাংলায় মুসলিম সাংবাদিকতায় তার মাসিক মদীনা ও সপ্তাহিক মুসলিম জাহান কেবল এদেশের আলেম সমাজ নয়, বুদ্ধিজীবী সাহিত্যিক সমাজকেও আকৃষ্ট করেছে। ইসলামের অসংখ্য শাখায় তার রচনা সমাহার এবং অনুবাদ ভা-ার ইসলামী সাহিত্যের এক অমূল্য সম্পদ। আদর্শিক আন্দোলনে তিনি ছিলেন সবসময় সাহসী নেতৃত্বের ভূমিকায়। বাংলাদেশের বিশ্বাসী জনগোষ্ঠীর কাছে তিনি ছিলেন একজন অতি সম্মানের পাত্র। মাওলানা খান আজীবন কলম ও জবান যুদ্ধ চালিয়ে গেছেন মুসলিম উম্মাহর কল্যাণ এবং দেশ-জাতির স্বার্থে। তিনি ইসলামের নানা ক্ষেত্রে যে অবিস্মরণীয় অবদান রেখে গেছেন, তা রীতিমতো বিস্ময়কর এবং গবেষণার বিষয়বস্তু। মাওলানা মুহিউদ্দিন খানের (রাহ.) স্মরণে ছাত্র মজলিস রাজনগর উপজেলা শাখার উদ্যোগে সোমবার রাজনগর ছাত্র মজলিসের আলোচনা সভায় প্রধান অতিথির আলোচনায় তিনি এসব কথা বলেন।
সদ্যপ্রয়াত প্রয়াত প্রখ্যাত আলেম, বিশিষ্ট লেখক, সাহিত্যিক ও গ্রন্থপ্রণেতা মাওলানা মুহিউদ্দিন খানের স্মরণে ছাত্র মজলিস রাজনগর উপজেলা শাখার উদ্যোগে ৪ জুলাই সোমবার বিকাল ৪টায়, রাজনগর আইসিএম মিলনায়তনে আলোচনা সভা ও ইফতার মাহফিল আনুষ্ঠিত হয়। স্মরণসভায় প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত থেকে মাওলানা মুহিউদ্দীন খানের (রাহ.) জীবনের বিভিন্ন দিক নিয়ে বক্তৃতা করেন-ইসলামী ছাত্র মজলিস মৌলভীবাজার জেলা সভাপতি মুহাম্মদ এহসানুল হক।
ছাত্র মজলিস রাজনগর উপজেলা সভাপতি মাহফুজুল হক তালুকদারের সভাপতিত্বে ও সেক্রেটারি আহসান উদ্দিন গিলমানের পরিচালনায় অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথির বক্তব্য রাখেন ছাত্র মজলিস মৌলভীবাজার শহর সভাপতি মুহাম্মদ জাহিদুল ইসলাম, সেক্রটারি মাওলানা আব্দুস শহীদ, সাবেক রাজনগর উপজেলা সভাপতি মাওলানা কাওছার আহমদ তালুকদার প্রমুখ।
অন্যানদের মাঝে উপস্থিত ছিলেন ছাত্র মজলিস রাজনগর উপজেলা বায়তুলমাল সম্পাদক মিজানুর রহমান, ছাত্র মজলিস কামারচাক ইউপি সেক্রেটারি নুরুজ্জামান জুবায়ের, ছাত্র মজলিস তারাপাশা স্কুল এন্ড কলেজ সভাপতি রেজাউল করিম, ছাত্র মজলিস বছিরমহল মাদরাসা প্রচার সম্পাদক ফুয়াদ আলম প্রমুখ।
সভায় বিশেষ অতিথিরা বলেন-কর্মজীবনে মাওলানা মুহিউদ্দীন খান সর্বদাই ছিলেন নেতৃত্বের ভূমিকায়। ইসলামবিরোধী নানা অপতৎপরতার বিরুদ্ধে তার সোচ্চার ভূমিকা স্মরণীয় হয়ে থাকবে। তিনি সামাজিক নানা অপরাধ-অনাচারের বিরুদ্ধে তার পত্রিকাগুলোকে সরব রেখেছেন, তেমনি সাংগঠনিক তৎপরতায়ও তার গঠনমূলক ভূমিকা প্রেরণাদায়ক। অনুষ্ঠানে বক্তারা কিংবদন্তী মাওলানা মুহিউদ্দীন খানের (রহ.) বহুমুখী অবদানকে রাষ্ট্রিয়ভাবে মুল্যায়ণের দাবি জানান।

সংবাদটি শেয়ার করতে নিচের “আপনার প্রিয় শেয়ার বাটনটিতে ক্লিক করুন”
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •