পৌর নির্বাচন : আমি তেতাল্লিশ হাজার ভোটারের মেয়র প্রার্থী ফজলুর রহমান

January 13, 2021, এই সংবাদটি ২৩৬ বার পঠিত

মোঃ আব্দুল কাইয়ুম॥ তৃতীয়ধাপে অনুষ্ঠিত পৌরসভা নির্বাচনে মৌলভীবাজার পৌরসভায় আওয়ামীলীগের দলীয় মেয়র প্রার্থী ও বর্তমান মেয়র ফজলুর রহমান বলেছেন,আমার কাছে বিএনপি-আওয়ামীলীগ বলতে কিছু নেই, আমি তেতাল্লিশ হাজার ভোটারের মেয়র। কম বেশি দুইলক্ষ নাগরিক এই শহরে বসবাস করেন, আমি তাদের সকলের মেয়র। আমি সবাইকে নিয়ে মৌলভীবাজার শহরের উন্নয়নে কাজ করে যেতে চাই, কারন মৌলভীবাজার শহর আওয়ামীলীগ-বিএনপি কারো নয়, এই শহরে সবার সমান অধিকার রয়েছে, কাজেই আমি আপনাদের সকলকে বলতে চাই, আমার কার্যক্রম দেখে আমাকে আপনারা ভোট দেবেন।
১২ জানুয়ারী মঙ্গরবার রাতে মৌলভীবাজার পৌর শহরের ২নং ওয়ার্ডে নির্বাচনী প্রচারণায় অংশ নিয়ে নৌকা প্রতীকের সমর্থনে উঠান বৈঠকে দেয়া দীর্ঘ বক্তব্যে এসব কথা বলেন নৌকার মেয়র প্রার্থী ফজলুর রহমান।
স্থানীয় মুরব্বি আব্দুল বাছিতের সভাপতিত্বে ও ২নং ওয়ার্ডের কাউন্সিলর আছাদ হোসেন মক্কুর সঞ্চালনায় উঠান বৈঠকে নৌকা প্রতীকের পক্ষে ভোট চেয়ে বক্তব্য দেন, সদর উপজেলা আওয়ামীলীগের সাধারণ সম্পাদক আব্দুল মালিক তরফদার ভিপি সুয়েব, জেলা ছাত্রলীগের সাবেক সাধারণ সম্পাদক ও যুক্তরাজ্য কমিউনিটি নেতা রুহুল আমীন রুহেল,জেলা স্বেচ্ছাসেবকলীগের সাধারণ সম্পাদক মুজাম্মেল হক রাব্বি,আবিদুর রহমান পাটোয়ারী ও ব্যবসায়ী সেলিম আহমেদ প্রমুখ।
নির্বাচনী প্রচারণাকালে ফজলুর রহমান বলেন, গত পাঁচবছরের দ্বায়িত্বকালে আমি পৌরসভা থেকে একটি টাকাও আত্মসাত করিনি। একজন মানুষ বলতে পারবেনা আমাকে একলক্ষ টাকা দিয়েছে। আমি অসংখ্য রাস্তাঘাট বড় করেছি,কিন্তু কেউ বলতে পারবেনা কোন রাস্তাঘাট বড় করার বিনিময়ে একশতকের জমির দাম দুইলক্ষ টাকা থেকে দশলক্ষ টাকা হয়েছে। হয়তো কেউ নগদ সাহায্যে জন্য গিয়েছে আমি তাৎক্ষনিক নগদ দিতে পারিনি। কারন আমি তো দুর্নীতি করিনি, কাজেই আমি কোথা থেকে টাকা দেবো। আর ব্যবসা করতাম সেটাও মেয়র থাকার কারনে বন্ধ।
তিনি বলেন,করোনার সময় যত সরকারী সাহায্য এসেছে আমি কাউন্সিলরদের সহযোগীতায় ঘরে ঘরে পৌঁছে দিয়েছি। করোনার সময় আমি ঘরে বসে থাকিনি। আমার মা-বাবাকে অসুস্থ রেখে করোনার সময় আমি মানুষের পাশে থেকে সারাক্ষণ কাজ করেছি।
আমি কোন দিনই মেয়র হয়ে কাউকে রাজনৈতিক চিন্তায় আওয়ামীলীগ-বিএনপি হিসেব করিনি। একজন বিএনপি নেতাও বলতে পারবেননা যে আমি মেয়র হয়ে এই মনোভাব ছিল। কেউ আমার কাছে কোন বিষয় নিয়ে গেলে কোন দল করেন সেটা আমি কখনো চিন্তা করিনি।
তিনি বলেন, আমি যদি সৎ থাকি, দুর্নীতি না করি, চরিত্রবান হই,তাহলে আপনারা আমাকে ভোটটা দেবেন। এ সময় তিনি ২নং ওয়ার্ডের বর্তমান কাউন্সিলর আছাদ হোসেন মক্কুকে আগামী নির্বাচনে ভোট দেওয়ারও আহ্বান জানান।
প্রয়াত নেতাদের স্মরণ করে ফজলুর রহমান বলেন, এই শহর আজিজুর রহমানের শহর, এই শহর সৈয়দ মহসীন আলীর শহর, এই শহরের জন্য প্রয়াত মন্ত্রী সাইফুর রহমানও অনেক পরিশ্রম করেছেন। পরিশ্রম করেছেন সাবেক চেয়ারম্যান মরহুম সাজ্জাদুর রহমান পুতুল। এ সময় তিনি সাবেক পৌর মেয়র ফয়জুল করিম ময়ূনের অবদানের কথাও স্বীকার করেন।
শহরের জলাবদ্ধতার কথা উল্লেখ করে তিনি বলেন, একটা সময় শহরের অধিকাংশ এলাকা জলাবদ্ধতায় অল্প বৃষ্টির কারনে পানিতে তলিয়ে যেতো,আজকে কী শহর পানিতে তলিয়ে যায়? কুদালিছড়া খননের কারনে পানিতে তলিয়ে যায়না শহর, জলাবদ্ধতাও নেই। ইনশাআল্লাহ আগামীতে একফোঁটা পানিও থাকবেনা, এই মাসেই কুদালীছড়ার সাড়ে চার কিলোমিটার নতুন করে খনন কাজ শুরু হবে।
আমি আওয়ামীলীগ, বিএনপি, জামাত, জাতীয় পার্টি, হেফাজত, খেলাফত মজলিস সবার জন্য সমানভাবে কাজ করেছি, সবকিছুর ঊর্ধ্বে উঠে নাগরিক সেবা দিয়েছি। কাজেই আমি যদি উন্নয়ন করে থাকি তাহলে আমাকে ভোট দেবেন আপনারা।

সংবাদটি শেয়ার করতে নিচের “আপনার প্রিয় শেয়ার বাটনটিতে ক্লিক করুন”
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •