রাতে ঘূর্ণিঝড়ে বিদ্যুৎ লাইনের ক্ষতি কমলগঞ্জে টানা ১২ ঘন্টা পর বিদ্যুৎ সরবরাহ স্বাভাবিক

May 3, 2016, এই সংবাদটি ১৬৩ বার পঠিত

প্রনীত রঞ্জন দেবনাথ॥ রোববার রাত নয়টার সৃষ্ট ঘূর্ণিঝড়ে মৌলভীবাজারের কমলগঞ্জ উপজেলায় খ্ুঁটি ভেঙ্গে ও তার ছিড়ে বিদ্যূৎ লাইনের ব্যাপক ক্ষতি সাধন হয়। ঘূর্ণিঝড়ের শুরু থেকে কমলগঞ্জে বিদ্যুৎ সরবরাহ বন্ধ ছিল। সোমবার ভোর থেকে ক্ষতিগ্রস্থ লাইনে মেরামত করে টানা ১২ ঘন্টা পর সকাল নয়টায় আবার বিদ্যুৎ সরবরাহ স্বাভাবিক হয়।
১ মে রোববার সারা দিন তাপদাহের পর রাত নয়টায় ঝড় বৃষ্টির সাথে শুরু হয় ঘূর্ণিঝড়। ঘূর্ণি ঝড়ে কমলগঞ্জ উপজেলার শমশেরনগর চা বাগান এলাকাসহ বিভিন্ন গ্রামে গাছপালা ভেঙ্গে পড়ে বিদ্যুৎ লাইনের ক্ষতি সাধন করে। দুইটি বৈদ্যুতিক ক্ষতি ভেঙ্গে পড়াসহ বেশ কিছু স্থানে তারসহ বিবিণœ যন্ত্রাংশ ভেঙ্গে পড়ে। ফলে রাত নয় টা থেকে কমলগঞ্জে বিদ্যুৎ সরবরাহ বন্ধ হয়ে যায়। রাতে কয়েক দফা চেষ্টা করেও বিদ্যুৎ সরবরাহ স্বাভাবিক করা যায়নি। ২ মে সোমবার ভোর থেকে বিদ্যুৎ কর্মীরা তারের উপর পড়া গাছপালা সরিয়ে, ভেঙ্গে যাওয়া খুটির স্থরে নতুন খুটি স্থাপনসহ ক্ষতিগ্রস্ত এলাকায় মেরামত শেষ করে সকাল নয়টায় বিদ্যুৎ সরবরাহ স্বাভাবিক করা হয়। খোঁজ নিয়ে দেখা গেছে কমলগঞ্জ উপজেলা সদরে সকাল নয়টায় বিদ্যুৎ সরবরাহ স্বাভাবিক হলেও পুরো উপজেলায় বিদ্যুৎ ছিল আসা যাওয়ার খেলায়।
মৌলভীবাজার পল্লী বিদ্যুৎ সমিতি ( পবিস) কমলগঞ্জ জোনাল ম্যানেজার প্রকৌশলী এস এম হাসনাত হাসান ঘূর্ণিঝড়ে বিদ্যুৎ লাইন ক্ষতিগ্রস্থ হয়ে বিদ্যুৎ সরবরাহ বন্ধ থাকার সত্যতা নিশ্চিত করে বলেন, গভীর রাতে উপজেলা সদরে বিদ্যুৎ সরবরাহ চালু করা হয়েছিল। তিনি আরও বলেন, টানা ১২ ঘন্টা নয় আট ঘন্টা পর পুরো উপজেলায় বিদ্যুৎ সরবরাহ স্বাভাবিক হয়েছে। ধমকা বাতাস ও ঝড়ের কারণে কমলগঞ্জে বিদ্যুৎ সঞ্চালন ব্যবস্থা কিছুটা হুমকির মুখে বলেও পবিস জোনাল ম্যানেজার জানান।

সংবাদটি শেয়ার করতে নিচের “আপনার প্রিয় শেয়ার বাটনটিতে ক্লিক করুন”
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •