সাড়ে ১০ ঘণ্টা বন্ধ থাকার পর সিলেটের সঙ্গে সারাদেশের রেল যোগাযোগ শুরু

April 7, 2016, এই সংবাদটি ৩২৫ বার পঠিত

বিকুল চক্রবর্ত্তী:  এবার গভীর জঙ্গলে ট্রেনের উপর গাছ পড়ে সারা রাত অবরুদ্ধ থাকতে হয়েছে সিলেট থেকে ঢাকার উদ্দেশ্যে ছেড়ে যাওয়া উপবন এক্সপ্রেসের পাঁচশতাধিক যাত্রীকে। ৬ এপ্রিল বুধবার রাত ১২টার দিকে কালবৈশাখী ঝড়  শুরু হলে মৌলভীবাজারের লাউয়াছড়া পাহাড়ে চলন্ত ট্রেনের উপর আছড়ে পড়ে বড় বড় গাছ। একই সাথে লাইনের উপরও ভেঙ্গে পড়ে আরও ছোট বড় অর্ধশত বৃক্ষ। সাথে সাথে রেলের চালক ট্রেনটির গতি নিয়ন্ত্রন করে থামাতে সক্ষম হলে তারা রক্ষা পান বড় রকমের দূর্ঘটনা থেকে। দীর্ঘ ১০ ঘন্টা পর গাছ গুলো সরিয়ে লাইন ক্লিয়ার করলে  বৃহস্পতিবার সকাল ১০টার দিকে স্বাভাবিক হয় ট্রেন চলাচল।  এ ঘটনায় বিভিন্ন ষ্টেশনে আটকা পড়ে ছিলো সিটেগামী  উদয়ন এক্সপ্রেস, ঢাকা গামী কালনী এক্সপ্রেস, সুরমা ও জালালাবাদ মেইল। তিনদিন আগে লাউয়াছড়ার পাশে মৌলভীবাজারের শ্রীমঙ্গল জানকী ছড়ার উপর একটি  রেলব্রীজ পাহাড়ী ঢলে ভাসিয়ে নিলে বন্ধ হয়ে পড়ে সিলেটের সাথে সারা দেশের রেল যোগাযোগ। ১৫ ঘন্টা পর চালু হলেও বুধবার ১২টা থেকে চলন্ত ট্রেনের উপর গাছ পড়ে আবারও সিলেটের সাথে বিচ্ছিন্ন হয়ে পড়ে সারা দেশর রেল যোগাযোগ। আর এতে দূর্ভোগে পড়ে ট্রেনের শত শত যাত্রী। পাহারের মধ্যখানে গভীর জঙ্গলের মধ্যে আটকা পড়ে আতংকগস্থ হয়ে পড়েন যাত্রীরাও। ছিলনা মোবাইলের নেটওয়ার্কও। বনবিভাগের মৌলভীবাজার রেঞ্জ কর্মকর্তা সাহাব উদ্দিন জানালেন রাত আড়াইটা থেকে তারা লাউছড়ার রেললাইন ও পাকা সড়কে ঝড়ে উপরে ও ভেঙ্গে পড়া গাছ গুলো তারা সরানোর কাজ  করেছেন। আর রেলওয়ের শ্রীমঙ্গল ষ্টেশনের সহকারী মাষ্টার নাজমুল হক জানান, প্রায়ই লাউয়াছড়ায় গাছ পড়ে পাহার ধসে ট্রেন আটকা পড়ে। রেল লাইনের ৩০ ফুটের মধ্যে গাছ অপসারনের নির্দেশ দিলেও সংরক্ষিত বন হওয়ায় বনবিভাগ তা করছে না। তবে বন বিভাগ জানায় এ আবেদনের প্রেক্ষিতে লাউয়াছড়ার আগে সামাজিক বনায়নের অংশে কিচু গাছ কর্তনের টেন্ডার হয়েছে। লাউয়াছড়া বনের ভিতরে সুষ্ট পরিকল্পনার মাধ্যমে এই সমস্যার স্থায়ী সমাধানে এগিয়ে আসবে কর্তপক্ষ এমনটাই দাবী জানিয়েছেন ভুক্তভোগী যাত্রীরা।  অপর দিকে বিভিন্ন গ্রামে ও আবাসিক এলাকায় ভেঙ্গে পড়েছে শত শত গাছ। বিভিন্ন স্থানে ছিড়ে গেছে বৈদ্যুতিক তার। এতে বিদ্যুৎহীন হয়ে পড়ে গোটা এলাকা।

 

সংবাদটি শেয়ার করতে নিচের “আপনার প্রিয় শেয়ার বাটনটিতে ক্লিক করুন”
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •