শহরের গুলবাগে ফ্যানে ওড়না পেঁচিয়ে গৃহবধূর আত্মহত্যা!

October 26, 2020, এই সংবাদটি ৬১০ বার পঠিত

মোঃ আব্দুল কাইয়ুম॥ মৌলভীবাজারে নিজ ঘরের ফ্যানের সাথে ওড়না পেঁচিয়ে লাকি রানী গোপ (২৭) নামে এক সন্তানের জননী গৃহবধূ আত্মহত্যা করেছেন।
সোমবার ২৬ অক্টোবর বিকাল সাড়ে ৫টার দিকে পৌর শহরের ৫নং ওয়ার্ডের গুলবাগ এলাকার ইছাক মিয়া মঞ্জিলে এঘটনা ঘটে। খবর পেয়ে ঘটনাস্থলে উপস্থিত হন মৌলভীবাজার মডেল থানার উপপরিদর্শক (এসআই) ইফতেখার ইসলাম, ৫নং ওয়ার্ডের কাউন্সিলর ফয়সল আহমেদসহ স্থানীয় ব্যক্তিবর্গ।
সরেজমিন গিয়ে জানা যায়, নিহত লাকি রানী গোপ নিজের সন্তান,স্বামী ও দেবরকে নিয়ে গুলবাগ এলাকার ইছাক মঞ্জিলে দীর্ঘদিন যাবত বসবাস করে আসছিলেন। সোমবার বিকেলের দিকে স্বামী রতন মোদক শহরের মনুনদী এলাকায় শারদীয় দূর্গোৎসবের প্রতিমা বিসর্জন দেখতে যান। এসময় খবর পান তাঁর স্ত্রী ঘরের ফ্যানের সাথে ওড়না পেঁচিয়ে আত্মহত্যা করেছেন। পরে দ্রুত এসে ঘরের দরজা খুলে দেখতে পান স্ত্রীর ঝুলন্ত মৃতদেহ।
স্বামী রতন মোদক বলেন, লাকি রানী গোপের মাথায় জট ছিলো,জট কেটে ফেলার পর থেকে অনেকটা মানসিক ভারসাম্যহীন ছিলেন। তবে তাদের মধ্যে কোনরকম অশান্তি কিংবা পারিবারিক কলহ ছিলনা।
এদিকে লাকি রানী গোপ আত্মহত্যা করেছেন এমন খবরে আশপাশের বাসিন্দারাও জড়ো হতে শুরু করেন ইছাক মঞ্জিলের ওই বাসায়। তাঁর প্রতিবেশীরাও এমন মৃত্যু মেনে নিতে পারছেন না।
পশ্চিমবাজার মৎস ব্যবসায়ী সমিতির সভাপতি তরুণ সমাজকর্মী দেলোয়ার হোসেন বলেন, বিকাল সাড়ে ৫টার দিকে আমি প্রথমে খবর পেয়ে পুলিশকে জানাই। তিনি জানান, কি কারনে আত্মহত্যা করেছেন এই নারী তা আমাদের জানা নেই, তবে তাদের মধ্যে পারিবারিক কোন কলহ ছিলনা।
মৌলভীবাজার মডেল থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) ইয়াছিনুল হক বিষয়টি নিশ্চিত করে জানান,ওই নারীর মরদেহ উদ্ধার করে ময়না তদন্তের জন্য মৌলভীবাজার ২৫০ শয্যা হাসপাতালে পাঠানো হয়েছে।

সংবাদটি শেয়ার করতে নিচের “আপনার প্রিয় শেয়ার বাটনটিতে ক্লিক করুন”
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •