শ্রীমঙ্গলে ৪শত বছরের মন্দিরের মূতি চুরি

June 4, 2016,

শ্রীমঙ্গল প্রতিনিধি॥ শ্রীমঙ্গলে প্রায় ৪ শত বছরের পুরোনো শ্রী শ্রী রাধানাথ মন্দিরের মুর্তিসহ মূল্যবান মালামাল চুরি করেছে দুষ্কৃতিকারীরা ।
যার আনুমানিক মূল্য প্রায় ৫ লক্ষাধিক টাকা। গোসাই বাড়ীর দেবতার ঘর থেকে ৩জুন শুক্রবার দিবাগত রাতে প্রবল বৃষ্টির সময় এ চুরির ঘটনা ঘটেছে বলে এলাকাবসীরা মনে করছেন।
চুরি হওয়া মালামালের মধ্যে রয়েছে, একজন দেবতার পাঁচ কেজি ওজনের পিতলের রাধা রাণী বড় মুর্তি, চারজন দেবতার দুই কেজি ওজনের পিতলের গোপাল মূর্তি, রুপার চূড়াবাশিঁ নূপুর ১০ ভরি, তিনজন দেবতার পাথরের মূর্তি, দেবতার কানের স্বর্ণের চেইন ৩ ভরি ওজনের, কাসার বড় ঝানজ ১টি তিনকেজি ওজনের, পিতলের ছাড়ি ১টি ৩ কেজি ওজনের, ২০টি পিতলের থালি, পিতলের ছোটবড় গ্লাস ১৫টি, পূজা অর্চনার ১০ কেজি ওজনের বাসনপত্র, পিতলের ডাবর ১টি ৫ কেজি ওজনের ও দেবতার গায়ের মূল্যবান কাপড় চোপড়।
শ্রীমঙ্গল কালাপুর ইউনিয়নের নব নির্বাচিত চেয়ারম্যান মুজিবুর রহমান মুজুল, সাবেক চেয়ারম্যান আব্দুল মতলিব, উপজেলা আওয়ামীলীগ সভাপতি এম এ মনির ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেন।
কালাপুর গ্রামের অঞ্জন গোস্বামী বলেন, আমাদের মেইন ঘরের পাশেই দেবতার মন্দির। শুক্রবার দিবাগত রাতে প্রবল বৃষ্টি হচ্ছিল। হয়তবা তখনই দুষ্কৃতিকারীরা ঠাকুর ঘরের দরজা ভেঙে মন্দিরে পূজা অর্চনার যা ছিল মূল্যবান দেবতার মূর্তিসহ সব মালামাল পরিস্কার করে নিয়ে গেছে। ৫ লক্ষ টাকার মালামাল দুষ্কৃতিকারীরা নিয়ে গেছে বলে তিনি দাবী করেন। তাদের এই মন্দিরটি প্রায় সাড়ে ৪শত বছরের পুরোনো। এটি এ অঞ্চলের সনাতন ধর্ম্বালম্বীদের দীর্ঘদিনের ঐতিহ্যবহন করে আসছে।
ঘটনাস্থল থেকে কালাপুর ইউনিয়ন পরিষদের নব-নির্বাচিত চেয়ারম্যান মুজিবুর রহমান মুজুল বলেন, গোসাই বাড়ীর মন্দিরটি প্রায় সাড়ে ৪শত বছরের পুরোনো ঐতিহ্য বহন করছে। কে বা কারা এ নিন্দনীয় নীতি নৈতিকতা বিরোধী কাজে জড়িত তাদেও খুঁজে বের করতে পুলিশ প্রশাসনকে অনুরোধ করেছি।
শ্রীমঙ্গল থানার এসআই সৈয়দ মাহবুবুর রহমান বলেন, চুরির রহস্য ও মালামাল উদ্ধারে পুলিশের প্রচেষ্ঠা অব্যাহত আছে।

সংবাদটি শেয়ার করতে নিচের “আপনার প্রিয় শেয়ার বাটনটিতে ক্লিক করুন”
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •