শ্রীশ্রী বিশ্বকর্মা পুজায় দুষ্কৃতিকারীর হামলায় মহিলাসহ ৬ জন আহত

September 18, 2018, এই সংবাদটি ১,১৪৮ বার পঠিত

প্রনীত রঞ্জন দেবনাথ॥  কমলগঞ্জে শ্রীশ্রী বিশ^কর্মা পুজায় দুষ্কৃতিকারীদের হামলায় অনন্ত ৬ জন আহত হওয়ার খবর পাওয়া গেছে। ঘটনাটি ঘটেছে ১৭ সেপ্টেম্বর সোমবার বিকাল ৫টায় উপজেলার ১নং রহিমপুর ইউনিয়নের বিষ্ণুপুর গ্রামে। এ ব্যাপারে কমলগঞ্জ থানায় মামলা দায়ের প্রস্তুতি চলছে। ঘটনাস্থলে স্থানীয় জনপ্রতিনিধি (ইউপি সদস্য) পরিদর্শন করছেন।

জানা যায়, ১৭ সেপ্টেম্বর সোমবার সনাতন (হিন্দু) ধর্মাবলম্বীদের শ্রীশ্রী বিশ^কর্মা দেবতার পূজা ছিল। ঐদিন বিকাল ৫টায় কমলগঞ্জ উপজেলার ১নং রহিমপুর ইউনিয়নের বিষ্ণুপুর গ্রামের সুখময় মালাকারের বাড়ির যাওয়ার রাস্তায় কয়েকজন দুষ্কৃতিকারীরা মহিলাদের উক্ত্যক্ত করে। এর প্রতিবাদে বিষ্ণুপুর গ্রামের বাপ্পা মালাকার ও সুকান্ত মালাকার তাদেরকে বাধা প্রদান করলে দুষ্কৃতিকারীরা সুখময়ের বাড়িতে হামলা চালিয়ে মারধর করে। এতে মহিলাসহ ৬ জনকে আহত হন। আহতরা হলেন গৌরাঙ্গ মালাকার, সুখুত মালাকার, লটু মালাকার, লক্ষী রানী মালাকার, রিনা রানী মালাকার, লক্ষী রানী মালাকার। তারা প্রাথমিক চিকিৎসা করেছেন। এব্যাপারে আহত সুখুত মালাকার বলেন, পূজার শেষে ভক্তবৃন্দ বাড়ীতে প্রসাদ পাওয়ার জন্য বসলে হঠাৎ স্থানীয় দৃষ্কৃতিকারীদের হামলায় সবকিছু তছনছ হয়ে যায়। ভয়ে ভক্তবৃন্দগণ প্রসাদ না খেয়েই দিকবেদিগ ছুটাছোটি করে চলে যান। এমন ঘটনায় সংখ্যালঘু সম্প্রদায় আতংকিত হয়ে পড়েন। খবর পেয়ে স্থানীয় ইউপি সদস্য আব্দুস সালাম ঘটনাস্থলে পৌঁছলে দৃষ্কৃতিকারীরা পালিয়ে যায়। এ ব্যাপারে অভিযুক্তদের যোগাযোগ করা হলে তাদেরকে পাওয়া যায়নি।

 বিষ্ণুপুর গ্রামের স্থানীয় সংবাদকর্মী অঞ্জন প্রসাদ রায় চৌধুরী ঘটনাস্থলে গিয়ে সরজমিন দেখতে পেয়ে কমলগঞ্জ উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মোহাম্মদ মাহমুদুল হককে অবগত করেন। এ ব্যাপারে ১৮ সেপ্টেম্বর বিকালে কমলগঞ্জ থানার অফিসার ইনচার্জ আরিফুর রহমান জানান, কেউ এসে অভিযোগ করেনি, অভিযোগ করলে ব্যবস্থা নেয়া হবে।

সংবাদটি শেয়ার করতে নিচের “আপনার প্রিয় শেয়ার বাটনটিতে ক্লিক করুন”
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •