“সমাজকল্যাণ প্রতিমন্ত্রী এডভোকেট প্রমোদ মানকিন এমপি আর নেই”

May 11, 2016, এই সংবাদটি ১৮৮ বার পঠিত

স্টাফ রিপোর্টার॥ সমাজকল্যাণ প্রতিমন্ত্রী এডভোকেট প্রমোদ মানকিন এমপি ভারতের বোম্বে শহরের হলি ফ্যামিলি নামক হাসপাতালে স্থানীয় সময় ৩.৫৫ টা ও বাংলাদেশ সময় ৪.২৫ টায় ফুসফুসে ক্যান্সার জনিত রোগে ইন্তেকাল করেন। মৃত্যুকালে তাঁর বয়স হয়েছিল ৭৮ বছর। তিনি ৫ মেয়ে ও ১ ছেলে রেখে গেছেন। হাসপাতালে তাঁর দুই মেয়ে ও ১ নাতী সঙ্গে রয়েছেন।
উল্লেখ্য যে, ১৬ ফেব্রুয়ারি ২০১৬ তাঁকে ভারতের বোম্বে শহরের হলি ফ্যামিলি নামক হাসপাতালে ভর্তি করানো হয়। সেখানে ক্যান্সার নিরাময়ে দু’বার কেমো থেরাপি দেয়া হয়। ৩য় কেমো থেরাপি দিতে সর্বশেষ ২১ এপ্রিল ২০১৬ তিনি পুনরায় ভারতে গমন করেন। তিনি ক্যান্সার ছাড়াও ডায়াবেটিসসহ নানা রোগে ভুগছিলেন।
মরহুম প্রতিমন্ত্রীর মরদেহ আগামীকাল আনুমানিক ১২টা নাগাদ বাংলাদেশে আনা হবে। এরপর বেলা ১টায় তাঁর মরদেহ রমনা চার্চ, কাকরাইল এ শ্রদ্ধা নিবেদনের জন্য রাখা হবে। পরে বেলা ৩টায় কেন্দ্রীয় শহীদ মিনারে সর্বজনের শ্রদ্ধা নিবেদনের জন্য রাখা হবে। সেখান থেকে তাঁকে বাংলাদেশ জাতীয় সংসদে তাঁর দীর্ঘ দিনের সহকর্মীদের শ্রদ্ধা নিবেদনের জন্য নেয়া হবে। সংসদ ভবন থেকে হেলিকপ্টার যোগে তাঁর মরদেহ ময়মনসিংহ, হালুয়াঘাটে সর্বসাধারণের শ্রদ্ধা নিবেদনের জন্য নেয়া হবে ও সমাধীস্থ করা হবে।
উল্লেখ্য যে, মরহুম প্রতিমন্ত্রী একজন খ্রিস্টান ধর্মের অনুসারী ছিলেন। তিনি গারো ও খ্রিস্টান সম্প্রদায়ের প্রতিনিধি হিসেবে সামাজিক সংস্থা, ট্রাইবাল ওয়েলফেয়ার এসোসিয়েশন এর প্রতিষ্ঠাতা আহ্বায়ক ও সর্বশেষ প্রতিষ্ঠানটির কেন্দ্রীয় সভাপতির দায়িত্ব পালন করেন। তিনি ১৯৯১ সালে বাংলাদেশ আওয়ামী লীগে যোগদানের মাধ্যমে সরাসরি সক্রীয় রাজনীতিতে অংশগ্রহণ করেন। তিনি ২০০১, ২০০৮ ও ২০১৩ সালে বাংলাদেশ আওয়ামী লীগের প্রার্থী হিসেবে জাতীয় সংসদে সদস্য নির্বাচিত হয়েছেন। তিনি ২০০৮ সালে ময়মনসিংহ-১ (হালুয়াঘাট-ধোবাউড়া) আসন থেকে নির্বাচিত হয়ে প্রথমে পার্বত্য চট্টগ্রাম বিষয়ক সংসদীয় স্থায়ী কমিটির চেয়ারম্যান, ২০০৯ সালের ১৫ জুলাই থেকে ২০১২ সালের ১৫ সেপ্টেম্বর পর্যন্ত তিনি সংস্কৃতি বিষয়ক মন্ত্রণালয়ের প্রতিমন্ত্রী হিসেবে নিযুক্ত ছিলেন। পরবর্তীতে ১৫ সেপ্টেম্বর ২০১২ সাল থেকে বর্তমান পর্যন্ত তিনি সমাজকল্যাণ মন্ত্রণালয়ের প্রতিমন্ত্রী হিসেবে দায়িত্ব পালন করেছেন।
তাঁর মৃত্যুতে সমাজকল্যাণ মন্ত্রণালয়ের সম্মানিত সচিব জনাব ড. চৌধুরী বাবুল হাসান, সমাজকল্যাণ মন্ত্রণালয়ের প্রাক্তন সচিব বেগম নাছিমা বেগম এনডিসি ও সমাজসেবা অধিদফতরের মহাপরিচালক জনাব গাজী মোহাম্মদ নূরুল কবির শোক ও সমবেদনা জ্ঞাপন করেন।

সংবাদটি শেয়ার করতে নিচের “আপনার প্রিয় শেয়ার বাটনটিতে ক্লিক করুন”
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •