হাকালুকি হাওর পারের নিম্ন আয়ের মানুষের পাশে দাঁড়িয়েছে এসএসসি ৯৭ ব্যাচ

May 9, 2021, এই সংবাদটি ৩০১ বার পঠিত

কুলাউড়া প্রতিনিধি॥ পবিত্র ঈদ উল ফিতরকে সামনে রেখে হাকালুকি হাওর পারের ভূকশিমইল এলাকার অসহায় ও গরীব মানুষের পাশে মানবিকতার পরশ নিয়ে দাঁড়িয়েছে কুলাউড়ার ভূকশিমইল স্কুল এন্ড কলেজের এসএসসি ৯৭ব্যাচের শিক্ষার্থীরা। ইউনিয়নের ৯টি ওয়ার্ডের ৬২জন নিম্ন আয়ের মানুষের মাঝে জনপ্রতি নগদ ১ হাজার টাকা করে মোট ৬২হাজার টাকা সহায়তা প্রদান করা হয়।
৮ মে শনিবার বিকেল ৩টায় ভূকশিমইল ইউনিয়ন পরিষদ সভাকক্ষে এই আর্থিক অনুদান তুলে দেয়া হয়।
আর্থিক অনুদান তুলে দেয়ার আগে এক আলোচনা সভায় প্রধান অতিথির বক্তব্য দেন ভূকশিমইল স্কুল এন্ড কলেজের প্রতিষ্ঠাতা প্রধান শিক্ষক ও প্রাক্তন অধ্যক্ষ আলহাজ্ব মোহাম্মদ মাশুক।
প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি বলেন, মানুষ ছাড়া মানবিক হতে পারে না। আজ যারা অসহায়দের পাশে দাঁড়িয়েছে তারা অবশ্যই ভালো মানুষ। মনুষ্যত্ব আছে বলেই মানবিকতার টানে মানুষের সহায়তায় তারা এগিয়ে এসেছে। একজন শিক্ষক হিসেবে তাঁর শিক্ষার্থীদের এমন মানবিক কাজকে সাধুবাদ জানাই। সরকারের পাশাপাশি সামাজিক প্রেক্ষাপটে এমন সংগঠনরা সমাজের কল্যাণে এগিয়ে আসলে দেশের চিত্র আমুল পরিবর্তন হবে, নিঃসন্দেহে।
ভুকশিমইল ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান আজিজুর রহমান মনিরের সভাপতিত্বে এবং এসএসসি ৯৭ ব্যাচের মুসা খান ও শামীম খানের যৌথ সঞ্চালনায় এসময় বিশেষ অতিথির বক্তব্যে দেন ভূকশিমইল স্কুল এন্ড কলেজের অধ্যক্ষ মো. আবুল মনছুর, উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সর আরএমও ডা. জাকির হোসেন, কালের কণ্ঠ প্রতিনিধি মাহফুজ শাকিল, ইউপি সদস্য মো. শাহেদ মিয়া।
৯৭ ব্যাচের সদস্যদের মধ্যে বক্তব্যে দেন মো. আবুল ফজল, মো. ফয়াজ আলী, ধীরেন্দ্র মোহন দাস, মো. জাহাঙ্গীর আলম। এছাড়াও বক্তব্য দেন স্কুলের প্রাক্তন ছাত্র দৈনিক ভোরের দর্পনের স্টাফ রিপোর্টার জামিল আহমদ।
৯৭ ব্যাচের যারা আর্থিক সহযোগিতা করেন তারা হলেন- কাতার প্রবাসী আব্দুর শুকুর, আক্তারুজ্জামান, আমেরিকা প্রবাসী আবু জাফর, সায়েদুল ইসলাম বাচ্চু, দুবাই প্রবাসী ছালাম উদ্দিন, মশাহিদ আলী, নাজমুল ইসলাম, সৌদিআরব প্রবাসী ছায়াদ আহমদ, মেহের উদ্দিন ঝুনু, জসিম উদ্দিন, ইতালি প্রবাসী সামছুল ইসলাম, তারা মিয়া, মাহবুবুর রহমান খালেদ, লন্ডন প্রবাসী রফিকুল ইসলাম প্রমুখ।

সংবাদটি শেয়ার করতে নিচের “আপনার প্রিয় শেয়ার বাটনটিতে ক্লিক করুন”
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •