২৮ নভেম্বর শ্রীমঙ্গল পৌর নির্বাচন, মাঠে আছেন দুই মেরুর দুই হেভিওয়েট প্রার্থী

October 25, 2021, এই সংবাদটি ১০৩ বার পঠিত

শ্রীমঙ্গল প্রতিনিধি॥ আগামী ২৮ নভেম্বর শ্রীমঙ্গল পৌরসভার নির্বাচন। পর্যটন নগরী শ্রীমঙ্গলে দীর্ঘ ১০ বছর পর হতে যাচ্ছে পৌরসভার বহুল প্রতীক্ষিত এই নির্বাচন।
ব্যবসা-বাণিজ্য, উন্নত যোগাযোগ ব্যবস্থা, বহু ধর্ম ও ভাষাভাষী মানুষের মধ্যে বিরাজমান সম্প্রীতি এবং নৈসর্গিক সৌন্দর্যের পর্যটন কেন্দ্র হিসেব দেশ-বিদেশে পরিচিত শ্রীমঙ্গল উপজেলা। নানা জটিলতা কাটিয়ে নির্বাচন কমিশন কর্তৃক দীর্ঘ ১০ বছর পর শ্রীমঙ্গল পৌরসভার নির্বাচন অনুষ্ঠানের ঘোষণায় সাধারণ ভোটারের মধ্যে আগ্রহ দেখা গেছে।
নির্বাচন ঘিরে এখন সরগরম হয়ে উঠেছে শহরের রাস্তাঘাট থেকে শুরু করে চায়ের দোকানগুলো। সম্ভাব্য প্রার্থীরা এরইমধ্যে সাধারণ ভোটারের সাথে যোগাযোগ বাড়িয়ে দিয়েছেন। বিভিন্ন স্থানে উঠান বৈঠক করে মেয়র ও কাউন্সিলর প্রার্থীদের প্রচারণা চালাতে দেখা গেছে।
এ নির্বাচনে মেয়র পদে প্রতিদন্ধীতায় রয়েছে দুই মেরুর দুই হেভিওয়েট প্রার্থী। তাদের একজন হলেন, বর্তমান মেয়র বিশিষ্ট শিল্পপতি মো. মহসিন মিয়া মধু। বিএনপি ঘরোনার মহসিন মিয়া মধু স্বতন্ত্র প্রার্থী হিসেবে ভোটের মাঠে অংশগ্রহণ করছেন।
অন্যজন হলেন, ক্লিন ইমেজের অধিকারী মৌলভীবাজার জেলা আওয়ামী লীগের সাংগঠনিক সম্পাদক ও দ্বারিকা পাল মহিলা কলেজের অধ্যক্ষ সৈয়দ মনসুরুল হক। তিনি বাংলাদেশ আওয়ামী লীগ মনোনীত মেয়র প্রার্থী।
নির্বাচনে জাতীয় পার্টি ও কমিউনিষ্ট পার্টি থেকে কোন প্রার্থীর নাম ঘোষণা হয়নি। আর দলীয় সিদ্ধান্তে বিএনপি নির্বাচনে অংশ নেয়া থেকে বিরত রয়েছে। এছাড়াও স্বতন্ত্র মেয়র প্রার্থী হিসেবে নির্বাচনী মাঠে থাকছেন, সাবেক এমপি ও পৌর মেয়র মো. আহাদ মিয়ার ছেলে তরুণ ব্যবসায়ী মো. জাহাঙ্গীর আলম সোহাগ।
শ্রীমঙ্গল উপজেলা নির্বাচন অফিস সূত্রে জানা গেছে, নির্বাচনে মনোনয়নপত্র জমা দেয়ার শেষ তারিখ ২ নভেম্বর, যাচাই বাছাই ৪ নভেম্বর, প্রার্থীতা প্রত্যাহারের শেষ তারিখ ১১ নভেম্বর এবং প্রতিক বরাদ্দ হবে ১২ নভেম্বর। আগামী ২৮ নভেম্বর সকাল ৮টা থেকে বিকাল ৪টা পর্যন্ত ইলেকট্রনিক ভোটিং মেশিন (ইভিএম) এর মাধ্যমে ভোটগ্রহণ করা হবে।
সর্বশেষ ২০১১ সালে এই পৌরসভায় নির্বাচন হয়েছিল। পরবর্তীতে সীমানা জটিলতা ও উচ্চ আদালতের নিষেধাজ্ঞার কারণে এ পৌরসভার নির্বাচন হয়নি। মৌলভীবাজার জেলার শ্রীমঙ্গল উপজেলার রূপসপুর ও সুনগইড় মৌজার সমন্বয়ে গঠিত শ্রীমঙ্গল পৌরসভা। ২ দশমিক ৫৮ বর্গ কিলোমিটার এলাকা ও ৯টি ওয়ার্ড নিয়ে শ্রীমঙ্গল পৌরসভায় মোট ভোটার রয়েছে ২০ হাজার ৯৪ জন। বাংলাদেশ স্বাধীন হওয়ার পর পৌরসভা শ্রেণি বিন্যাসে শ্রীমঙ্গল পৌরসভা ‘গ’ শ্রেণির পৌরসভা সৃষ্টি হয়। পরবর্তীতে ১ লা জুলাই ১৯৯৪ তে ‘খ’ শ্রেণি এবং ৪ঠা ফেব্রুয়ারি ২০০২ এ ‘ক’ শ্রেণিতে উন্নীত হয়।

সংবাদটি শেয়ার করতে নিচের “আপনার প্রিয় শেয়ার বাটনটিতে ক্লিক করুন”
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •