কুলাউড়ায় ১৮দলীয় জোটের বিক্ষোভ মিছিল ও সভা

December 6, 2013, এই সংবাদটি ৩২২ বার পঠিত

অবরোধের ৬ষ্ঠ দিন সন্ধা ৭টায় কুলাউড়া চৌমূহনী চত্বর হতে ১৮দলীয় জোটের বিক্ষোভ মিছিল শহরের প্রধান প্রধান সড়ক প্রদক্ষিণ শেষে পুনরায় চৌমূহনীতে ফিরে আসার পর এক পথসভা অনুষ্টিত হয়। ১৮দলীয় জোটের যুগ্ম আহবায়ক উপজেলা জামায়াতের আমীর আব্দুল বারী মাষ্টারের সভাপতিত্বে ও উপজেলা বিএনপির সাধারণ সম্পাদক এম এ মজিদ এর পরিচালনায় অন্যান্যের মধ্যে বক্তব্য রাখেন পৌর বিএনপির সভাপতি কাউন্সিলর শামীম আহমদ চৌধুরী, উপজেলা জামায়াতে জেনারেল সেক্রেটারী ও সহকারী অধ্যাপক আব্দুল মুন্তাজিম, উপজেলা বিএনপির সহ-সভাপতি মো: রওশন খান, পৌর জামায়াতে ইসলামীর সেক্রেটারী সাইফুল ইসলাম খান, পৌর স্বেচ্ছা সেবক দলের সাধারণ সম্পাদক শামীম আহমদ, উপজেলা ছাত্রদলের সাবেক যুগ্ম আহবায়ক ও জেলা সাংস্কৃতিক আন্দোলনের যুগ্ম আহবায়ক মুছা আহমদ সুয়েট ও উপজেলা ইসলামী ছাত্রশিবিরের সভাপতি নাজমুল ইসলাম প্রমুখ। এছাড়া উপস্থিত ছিলেন ১৮দলীয় জোটের উপজেলা ও পৌর শাখার অঙ্গ-সহযোগী সংগঠনের বিভিন্ন পর্যায়ের নেতৃবৃন্দ। নেতৃবৃন্দ তাদের বক্তব্যে বলেন, এখন সরকারের হাসিনা, ইনু ও মেনন এর সাইন বোর্ড সর্বস্ব নামে মাত্র সর্বদলীয় সরকার ক্ষমতায় সম্পুর্ন গণবিচ্ছিন্ন অবস্থায় পুলিশি সন্ত্রাসের মাধ্যমে সরকারী অফিসের চৌহদ্দির মধ্যেই সীমা বদ্ধ হয়ে আছে। আগামী শনি, রবি, সোম ৭২ঘন্টার অবরোধের পর দেখা যাবে সরকার কোথায় যায়। এতো খুনের জন্য শেখ হাসিনাকে ফাঁসির কাষ্টে এক দিন না এক দিন যেতে হবে। তাই এখনও সময় আছে পদত্যাগ করে নির্দলীয় সরকারের হাতে শান্তিপূর্ণ উপায়ে ক্ষমতা হস্থান্তর করার আহবান জানিয়ে বক্তারা বলেন, এক তরফা নির্বাচন করে দেশটাকে গৃহ যুদ্ধের দিকে নিয়ে যাবেন না।
অবরোধের ৬ষ্ঠ দিন সন্ধা ৭টায় কুলাউড়া চৌমূহনী চত্বর হতে ১৮দলীয় জোটের বিক্ষোভ মিছিল শহরের প্রধান প্রধান সড়ক প্রদক্ষিণ শেষে পুনরায় চৌমূহনীতে ফিরে আসার পর এক পথসভা অনুষ্টিত হয়। ১৮দলীয় জোটের যুগ্ম আহবায়ক উপজেলা জামায়াতের আমীর আব্দুল বারী মাষ্টারের সভাপতিত্বে ও উপজেলা বিএনপির সাধারণ সম্পাদক এম এ মজিদ এর পরিচালনায় অন্যান্যের মধ্যে বক্তব্য রাখেন পৌর বিএনপির সভাপতি কাউন্সিলর শামীম আহমদ চৌধুরী, উপজেলা জামায়াতে জেনারেল সেক্রেটারী ও সহকারী অধ্যাপক আব্দুল মুন্তাজিম, উপজেলা বিএনপির সহ-সভাপতি মো: রওশন খান, পৌর জামায়াতে ইসলামীর সেক্রেটারী সাইফুল ইসলাম খান, পৌর স্বেচ্ছা সেবক দলের সাধারণ সম্পাদক শামীম আহমদ, উপজেলা ছাত্রদলের সাবেক যুগ্ম আহবায়ক ও জেলা সাংস্কৃতিক আন্দোলনের যুগ্ম আহবায়ক মুছা আহমদ সুয়েট ও উপজেলা ইসলামী ছাত্রশিবিরের সভাপতি নাজমুল ইসলাম প্রমুখ। এছাড়া উপস্থিত ছিলেন ১৮দলীয় জোটের উপজেলা ও পৌর শাখার অঙ্গ-সহযোগী সংগঠনের বিভিন্ন পর্যায়ের নেতৃবৃন্দ। নেতৃবৃন্দ তাদের বক্তব্যে বলেন, এখন সরকারের হাসিনা, ইনু ও মেনন এর সাইন বোর্ড সর্বস্ব নামে মাত্র সর্বদলীয় সরকার ক্ষমতায় সম্পুর্ন গণবিচ্ছিন্ন অবস্থায় পুলিশি সন্ত্রাসের মাধ্যমে সরকারী অফিসের চৌহদ্দির মধ্যেই সীমা বদ্ধ হয়ে আছে। আগামী শনি, রবি, সোম ৭২ঘন্টার অবরোধের পর দেখা যাবে সরকার কোথায় যায়। এতো খুনের জন্য শেখ হাসিনাকে ফাঁসির কাষ্টে এক দিন না এক দিন যেতে হবে। তাই এখনও সময় আছে পদত্যাগ করে নির্দলীয় সরকারের হাতে শান্তিপূর্ণ উপায়ে ক্ষমতা হস্থান্তর করার আহবান জানিয়ে বক্তারা বলেন, এক তরফা নির্বাচন করে দেশটাকে গৃহ যুদ্ধের দিকে নিয়ে যাবেন না। কুলাউড়া অফিস॥

সংবাদটি শেয়ার করতে নিচের “আপনার প্রিয় শেয়ার বাটনটিতে ক্লিক করুন”
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •