সড়ক দূর্ঘটনায় গুরুত্বর আহত ৫ : আশংকাজনক অবস্থায় ৩ জনকে সিলেট ওসমানি মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে প্রেরণ

December 9, 2013, এই সংবাদটি ৩৭২ বার পঠিত

মৌলভীবাজারে সড়ক দূর্ঘটনায় বাবা-ছেলেসহ গুরুত্বর আহত হয়েছে ৫ জন। এদের মধ্যে আশংকাজনক অবস্থায় ৩ জনকে সিলেট ওসমানী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে প্রেরন করা হয়। পুলিশ জানায়, ৫ ডিসেম্বর বৃহস্পতিবার রাত সাড়ে ১২টায় মৌলভীবাজার ফেঞ্চুগঞ্জ সড়কের ইসলামপুর নামক স্থানে সিএনজি চালিত অটো রিক্সা ঘন কুয়াশার মধ্যে দৃষ্টি হারিয়ে একটি দাড়িয়ে থাকা ট্রাকের পেছনে আঘাত করে। এ সময় সিএনজি চালকসহ গাড়িতে থাকা পিতা-পুত্রসহ ৫ জন গুরুত্বর আহত হন। এ ঘটনায় অটোরিক্সাটি দুমড়ে-মুচড়ে যায়। আহতদের এলাকাবাসী উদ্ধার করে মৌলভীবাজার সদর হাসপাতালে ভর্তি করে। এদের মধ্যে আশংকাজনক অবস্থায় ৩ জনকে সিলেট ওসমানী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে প্রেরন করা হয়েছে বলে কর্ত্যবরত চিকিৎসক জানান। আহতরা হচ্ছেন ছিদ্দেক মিয়া (৫২) ও তার ছেলে আব্দুল আজিজ ছালেক (১৩), পিন্টু দাস (৪৫), মোঃ মোখলেছুর রহমান (১৮) এবং সিএনজি চালক বিনয় মালাকার (৩৫)। এরা সবাই রাজনগর ও কুলাউড়া উপজেলার বাসিন্দা। ঘটনার সাথে সাথে ট্রাক ঘটনা স্থল থেকে সটকে পরে।
মৌলভীবাজারে সড়ক দূর্ঘটনায় বাবা-ছেলেসহ গুরুত্বর আহত হয়েছে ৫ জন। এদের মধ্যে আশংকাজনক অবস্থায় ৩ জনকে সিলেট ওসমানী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে প্রেরন করা হয়। পুলিশ জানায়, ৫ ডিসেম্বর বৃহস্পতিবার রাত সাড়ে ১২টায় মৌলভীবাজার ফেঞ্চুগঞ্জ সড়কের ইসলামপুর নামক স্থানে সিএনজি চালিত অটো রিক্সা ঘন কুয়াশার মধ্যে দৃষ্টি হারিয়ে একটি দাড়িয়ে থাকা ট্রাকের পেছনে আঘাত করে। এ সময় সিএনজি চালকসহ গাড়িতে থাকা পিতা-পুত্রসহ ৫ জন গুরুত্বর আহত হন। এ ঘটনায় অটোরিক্সাটি দুমড়ে-মুচড়ে যায়। আহতদের এলাকাবাসী উদ্ধার করে মৌলভীবাজার সদর হাসপাতালে ভর্তি করে। এদের মধ্যে আশংকাজনক অবস্থায় ৩ জনকে সিলেট ওসমানী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে প্রেরন করা হয়েছে বলে কর্ত্যবরত চিকিৎসক জানান। আহতরা হচ্ছেন ছিদ্দেক মিয়া (৫২) ও তার ছেলে আব্দুল আজিজ ছালেক (১৩), পিন্টু দাস (৪৫), মোঃ মোখলেছুর রহমান (১৮) এবং সিএনজি চালক বিনয় মালাকার (৩৫)। এরা সবাই রাজনগর ও কুলাউড়া উপজেলার বাসিন্দা। ঘটনার সাথে সাথে ট্রাক ঘটনা স্থল থেকে সটকে পরে। স্টাফ রিপোর্টার॥

সংবাদটি শেয়ার করতে নিচের “আপনার প্রিয় শেয়ার বাটনটিতে ক্লিক করুন”
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •