খালেদা জিয়ার বৈঠকে নওয়াব আলী আব্বাছ খাঁন এমপি!

December 6, 2013, এই সংবাদটি ৩৪৪ বার পঠিত

১৮ দলীয় জোটের নেত্রী ও বিএনপি চেয়ারপারসন বেগম খালেদা জিয়ার সঙ্গে সাবেক প্রধানমন্ত্রী কাজী জাফর আহমেদ’র নেতৃত্বে বৃহস্পতিবার রাতের বৈঠকে অংশ নিয়েছেন মৌলভীবাজার-২ কুলাউড়া আসনের মহাজোটের এমপি ও জাতীয় পার্টির ভাইস চেয়ারম্যান নওয়াব আলী আব্বাছ খাঁন এমপি। দেশের চলমান পরিস্থিতি পর্যবেক্ষণ করে কুলাউড়ার এমপির এই পদক্ষেপ নিয়ে তার নির্বাচনী এলাকা তথা মৌলভীবাজার জেলা জুড়ে চলছে ব্যাপক আলোচনা। চলছে নানান কানাঘুষা। বৃহস্পতিবার রাত ৮ টা ২০ মিনিটে খালেদা জিয়ার গুলশানের রাজনৈতিক কার্যালয়ে এই বৈঠকটি হয়। এদিকে কুলাউড়ার আলোচিত এই সাংসদের ডিগবাজিতে ভাবনায় পড়ে গেছেন তার পক্ষে বিপক্ষের মানুষজন। বিরোধী শিবিরের অনেকেই ভাবছেন, যদি তিনি ১৮ দলের প্রার্থীতা নিয়ে আসেন, তাহলে কুলাউড়ার নির্বাচনী এলাকায় নতুন নাটকের শুরু হবে। কেননা জেলার অন্যতম এই আসন নিয়ে ১৮ দলের মনোনয়ন লাভের জন্য অনেকের চোখে ঘুম নেই। গেল নির্বাচনে জাতীয় পার্টি সমর্থিত মহাজোটের প্রার্থী হয়ে বিপুল ভোটে জয়ী হন ১৪ দলের মনোনয়ন বঞ্চিত সাবেক এমপি, ঢাকসুর সাবেক ভিপি ও আওয়ামীলীগের সাবেক সাংগঠনিক সম্পাদক জাতীয় নেতা সুলতান মোহাম্মদ মনসুর আহমদের আর্শীবাদপুষ্ট লাকি পারসন আব্বাছ। এ ব্যাপারে নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক কুলাউড়া জাতীয় পার্টির নেতা বলেন, বৃহস্পতিবার রাত সাড়ে ৯ টার একটি সংবাদে কাজী জাফর আহমেদ’র নেতৃত্বে এমপি আব্বাছের ছবি যখন দেখলাম তখন মনে হল নতুন করে ঘটানো এক ভোটে দুই এমপি খ্যাত আলী আব্বাছ খান আগামী নির্বাচনে ১৮ দলের প্রার্থীতা নিয়ে আসলে কুলাউড়ার এই আসনে নতুন কোন অধ্যায় শুরু হবে। আর সেটা হবে আলী আব্বাছের সময়োপযোগী ডিগবাজি! উল্লেখ্য, কুলাউড়ার এই সাংসদ এর আগেও একবার জাতীয় পার্টি থেকে বিএনপিতে যোগদান করেছিলেন। কিন্তু আরেক সাবেক এমপি এম এম শাহিনের জন্য বিএনপিতে সুবিধা করতে না পেরে তিনি পুণরায় আবার জাতিয় পার্টিতে ফিরে যান।
১৮ দলীয় জোটের নেত্রী ও বিএনপি চেয়ারপারসন বেগম খালেদা জিয়ার সঙ্গে সাবেক প্রধানমন্ত্রী কাজী জাফর আহমেদ’র নেতৃত্বে বৃহস্পতিবার রাতের বৈঠকে অংশ নিয়েছেন মৌলভীবাজার-২ কুলাউড়া আসনের মহাজোটের এমপি ও জাতীয় পার্টির ভাইস চেয়ারম্যান নওয়াব আলী আব্বাছ খাঁন এমপি। দেশের চলমান পরিস্থিতি পর্যবেক্ষণ করে কুলাউড়ার এমপির এই পদক্ষেপ নিয়ে তার নির্বাচনী এলাকা তথা মৌলভীবাজার জেলা জুড়ে চলছে ব্যাপক আলোচনা। চলছে নানান কানাঘুষা। বৃহস্পতিবার রাত ৮ টা ২০ মিনিটে খালেদা জিয়ার গুলশানের রাজনৈতিক কার্যালয়ে এই বৈঠকটি হয়। এদিকে কুলাউড়ার আলোচিত এই সাংসদের ডিগবাজিতে ভাবনায় পড়ে গেছেন তার পক্ষে বিপক্ষের মানুষজন। বিরোধী শিবিরের অনেকেই ভাবছেন, যদি তিনি ১৮ দলের প্রার্থীতা নিয়ে আসেন, তাহলে কুলাউড়ার নির্বাচনী এলাকায় নতুন নাটকের শুরু হবে। কেননা জেলার অন্যতম এই আসন নিয়ে ১৮ দলের মনোনয়ন লাভের জন্য অনেকের চোখে ঘুম নেই। গেল নির্বাচনে জাতীয় পার্টি সমর্থিত মহাজোটের প্রার্থী হয়ে বিপুল ভোটে জয়ী হন ১৪ দলের মনোনয়ন বঞ্চিত সাবেক এমপি, ঢাকসুর সাবেক ভিপি ও আওয়ামীলীগের সাবেক সাংগঠনিক সম্পাদক জাতীয় নেতা সুলতান মোহাম্মদ মনসুর আহমদের আর্শীবাদপুষ্ট লাকি পারসন আব্বাছ। এ ব্যাপারে নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক কুলাউড়া জাতীয় পার্টির নেতা বলেন, বৃহস্পতিবার রাত সাড়ে ৯ টার একটি সংবাদে কাজী জাফর আহমেদ’র নেতৃত্বে এমপি আব্বাছের ছবি যখন দেখলাম তখন মনে হল নতুন করে ঘটানো এক ভোটে দুই এমপি খ্যাত আলী আব্বাছ খান আগামী নির্বাচনে ১৮ দলের প্রার্থীতা নিয়ে আসলে কুলাউড়ার এই আসনে নতুন কোন অধ্যায় শুরু হবে। আর সেটা হবে আলী আব্বাছের সময়োপযোগী ডিগবাজি! উল্লেখ্য, কুলাউড়ার এই সাংসদ এর আগেও একবার জাতীয় পার্টি থেকে বিএনপিতে যোগদান করেছিলেন। কিন্তু আরেক সাবেক এমপি এম এম শাহিনের জন্য বিএনপিতে সুবিধা করতে না পেরে তিনি পুণরায় আবার জাতিয় পার্টিতে ফিরে যান। কুলাউড়া অফিস॥

সংবাদটি শেয়ার করতে নিচের “আপনার প্রিয় শেয়ার বাটনটিতে ক্লিক করুন”
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •