মৌলভীবাজারে সন্ত্রাসী হামলার ঘটনায় ব্যবসায়ী আহত : ঘটনার ৫ দিনেও আসামীদের গ্রেফতার করতে পারেনি পুলিশ

July 12, 2013, এই সংবাদটি ৩৫২ বার পঠিত

মৌলভীবাজারে সন্ত্রাসী হামলায় ব্যবসায়ী আহত হওয়ার ঘটনার ৫ দিন অতিবাহিত হওয়ার পরও আসামীদের গ্রেফতার করতে পারেনি পুলিশ। আসামীরা গ্রেফতার না হওয়ায় ব্যবসায়ীর পরিবারের লোকজনের মধ্যে ক্ষোভ ও আতঙ্ক বিরাজ করছে। গত ৭ জুলাই শহরের চাঁদনীঘাট ব্রিজের উপর সন্ধ্যা সাড়ে ৭টায় সন্ত্রাসী হামলার ঘটনায় রাজনগর উপজেলার খাসপ্রেমনগর গ্রামের ধান-চাল ব্যবসায়ী চুনু মিয়া গুরুতর আহত হোন। এ সময় সন্ত্রাসীরা তার সাথে থাকা নগদ ৯৬ হাজার টাকা ও দুটি মোবাইল ফোন ছিনিয়ে নেয়। এলাকাবাসী তাকে উদ্ধার করে মৌলভীবাজার সদর হাসপাতালে ভর্তি করার পর অবস্থার অবনতি হলে আশঙ্কাজনক অবস্থায় চুনু মিয়াকে সিলেট ওসমানী মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে প্রেরণ করা হয়। এ ঘটনায় মৌলভীবাজার মডেল থানায় পরদিন সোমবার মিনহাজ মিয়াকে প্রধান আসামী করে একটি মামলা দায়ের করা হয়। জানা যায়, রোববার চুনু মিয়া মৌলভীবাজার সরকারী খাদ্য গোদামে ধান বিক্রির টাকা নিয়ে বাড়িতে যাওয়ার সময় পূর্ব থেকে অৎপ্রেতে থাকা রাজনগর উপজেলার কোণাগাঁও গ্রামের মিনহাজ মিয়ার নেতৃত্বে একদল সন্ত্রাসী শহরের চাঁদনীঘাট ব্রিজের উপর তার উপর হামলা চালায়। সন্ত্রাসীদের ধারালো অস্ত্রের আঘাতে চুনু মিয়ার পিঠ, কোমর, উরু ও পায়ে মারাত্মক জখম হয়। চুনু মিয়ার ভাই সিতু মিয়া জানান, মিনহাজ মিয়ার উপর করা একটি মামলার সাক্ষী হওয়ায় চুনু মিয়ার উপর মিনহাজের নেতৃত্বে ভাড়াটে সন্ত্রাসীদের দিয়ে হামলা চালানো হয়েছে। সিতু মিয়া আরো জানান, মিনহাজের পক্ষ থেকে হামলার আশক্সক্ষা করে আগেই রাজনগর থানায় জীবনের নিরাপত্তা চেয়ে একটি জিডি এন্ট্রি করা হয়েছিল। মৌলভীবাজার মডেল থানার ওসি আজিজুর রহমান বলেন, আসামীদের বাড়ি রাজনগর হওয়ায় রাজনগর পুলিশের মাধ্যমে তাদের গ্রেফতারের জোর প্রচেষ্টা চলছে। শ্রীঘ্রই তাদের গ্রেফতার করা হবে।
মৌলভীবাজারে সন্ত্রাসী হামলায় ব্যবসায়ী আহত হওয়ার ঘটনার ৫ দিন অতিবাহিত হওয়ার পরও আসামীদের গ্রেফতার করতে পারেনি পুলিশ। আসামীরা গ্রেফতার না হওয়ায় ব্যবসায়ীর পরিবারের লোকজনের মধ্যে ক্ষোভ ও আতঙ্ক বিরাজ করছে। গত ৭ জুলাই শহরের চাঁদনীঘাট ব্রিজের উপর সন্ধ্যা সাড়ে ৭টায় সন্ত্রাসী হামলার ঘটনায় রাজনগর উপজেলার খাসপ্রেমনগর গ্রামের ধান-চাল ব্যবসায়ী চুনু মিয়া গুরুতর আহত হোন। এ সময় সন্ত্রাসীরা তার সাথে থাকা নগদ ৯৬ হাজার টাকা ও দুটি মোবাইল ফোন ছিনিয়ে নেয়। এলাকাবাসী তাকে উদ্ধার করে মৌলভীবাজার সদর হাসপাতালে ভর্তি করার পর অবস্থার অবনতি হলে আশঙ্কাজনক অবস্থায় চুনু মিয়াকে সিলেট ওসমানী মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে প্রেরণ করা হয়। এ ঘটনায় মৌলভীবাজার মডেল থানায় পরদিন সোমবার মিনহাজ মিয়াকে প্রধান আসামী করে একটি মামলা দায়ের করা হয়। জানা যায়, রোববার চুনু মিয়া মৌলভীবাজার সরকারী খাদ্য গোদামে ধান বিক্রির টাকা নিয়ে বাড়িতে যাওয়ার সময় পূর্ব থেকে অৎপ্রেতে থাকা রাজনগর উপজেলার কোণাগাঁও গ্রামের মিনহাজ মিয়ার নেতৃত্বে একদল সন্ত্রাসী শহরের চাঁদনীঘাট ব্রিজের উপর তার উপর হামলা চালায়। সন্ত্রাসীদের ধারালো অস্ত্রের আঘাতে চুনু মিয়ার পিঠ, কোমর, উরু ও পায়ে মারাত্মক জখম হয়। চুনু মিয়ার ভাই সিতু মিয়া জানান, মিনহাজ মিয়ার উপর করা একটি মামলার সাক্ষী হওয়ায় চুনু মিয়ার উপর মিনহাজের নেতৃত্বে ভাড়াটে সন্ত্রাসীদের দিয়ে হামলা চালানো হয়েছে। সিতু মিয়া আরো জানান, মিনহাজের পক্ষ থেকে হামলার আশক্সক্ষা করে আগেই রাজনগর থানায় জীবনের নিরাপত্তা চেয়ে একটি জিডি এন্ট্রি করা হয়েছিল। মৌলভীবাজার মডেল থানার ওসি আজিজুর রহমান বলেন, আসামীদের বাড়ি রাজনগর হওয়ায় রাজনগর পুলিশের মাধ্যমে তাদের গ্রেফতারের জোর প্রচেষ্টা চলছে। শ্রীঘ্রই তাদের গ্রেফতার করা হবে। ষ্টাফ রিপোর্টার॥

সংবাদটি শেয়ার করতে নিচের “আপনার প্রিয় শেয়ার বাটনটিতে ক্লিক করুন”
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •