কুলাউড়ায় প্রহসনের নির্বাচন প্রত্যাখ্যান করায় দেশবাসী সহ কুলাউড়া বাসীকে ধন্যবাদ.. এড. আবেদ রাজা

January 6, 2014, এই সংবাদটি ১০৭ বার পঠিত

কুলাউড়ায় ১৮দলীয় জোটের ডাকা অবরোধ ও ৪৮ঘন্টা হরতালের প্রথম দিন ৬ জানুয়ারী সোমবার সকাল থেকে ১৮দলীয় জোটের নেতৃবৃন্দ কুলাউড়ার রাজপথে অবস্থান নিয়ে পিকেটিং করে। দুপুর ১২টার সময় কুলাউড়া চৌমুহনী চত্বর থেকে কেন্দ্রীয় বিএনপির কারা নির্যাতিত নেতা এডভেকেট আবেদ রাজার নেতৃত্বে মিছিল কুলাউড়া শহরের প্রধান প্রধান সড়ক প্রদক্ষিন করে। পুনরায় চৌমুহনী চত্বরে এসে পথসভা অনুষ্ঠিত হয়। সভায় প্রধান অতিথি হিসাবে বক্তব্য রাখেন এড. আবেদ রাজা। ৫তারিখের প্রহসনের নির্বাচন প্রতিহত ও প্রত্যাখান করায় দেশবাসী সহ কুলাউড়া-কমলগঞ্জ (আংশিক) এলাকাবাসীকে ধন্যবাদ জানিয়ে তিনি বলেন, দেশের মানুষ হাসিনা সরকারকে প্রত্যাখান করেছে। তাই এ সরকার ক্ষমতায় থাকার সব অধিকার হারিয়ে ফেলেছে। অবিলম্বে প্রহসনের দশম জাতীয় সংসদ নির্বাচন বাতিল ঘোষনা করে নির্দলীয় নিরপেক্ষ তত্বাবদায়ক সরকারের অধিনে দশম জাতীয় সংসদ নির্বাচনের পূনরায় তফশিল ঘোষনার উধাত্ত আহবান জানান। অন্যতায় ১৮দলীয় জোটের নেতৃবৃন্দ সহ দেশের জনগণ সৈরাচারী ও বাকশালী হাসিনা সরকারকে ক্ষমতা থেকে আন্দোলনের মাধ্যমে টেনে হিচড়ে পদত্যাগ করতে বাধ্য করবে। তিনি আরও বলেন বিশ্ববাসী দেশের মিডিয়ার মাধ্যমে ভোট বিহীন নির্বাচন দেখেছে। এই সরকারকে তারা ধীক্ষার জানিয়েছে। তিনি বলেন অদ্য সকাল ৯টার সময় শান্তিপূর্ন হরতালে পিকেটিং করার সময় উছলাপাড়াস্থ গ্যাস পাম্প এর সম্মুখে উপজেলা বিএনপির সহ-সভাপতি মোঃ রওশন খান, বিএনপি নেতা আকমল, উপজেলা যুবদল নেতা সায়েদ আহমদ সুমন সহ অন্যান্য নেতৃবৃন্দকে দাঙ্গা পুলিশ নির্লজ্জ ভাবে নাজেহাল করায় তীব্র নিন্দা জানিয়ে বলেন আন্দোলন করা আমাদের গনতান্ত্রীক অধিকার। কুলাউড়ার শান্ত পরিবেশকে অশান্ত না করার আহবান জানান। আরও বক্তব্য রাখেন উপজেলা জামায়াতের আমীর আব্দুল বারী মাষ্টার, উপজেলা বিএনপির সাধারণ সম্পাদক এম এ মজিদ, পৌর খেলাফত মজলিশের সভাপতি মোঃ আব্দুল কাইয়ুম, উপজেলা জামায়াতের সেক্রেটারী সহকারী অধ্যাপক আব্দুল মুন্তাজিম, উপজেলা বিএনপির সহ-সভাপতি মোঃ রওশন খান, পৌর জামায়াতের সেক্রেটারী মোঃ সাইফুল ইসলাম খান, উপজেলা বিএনপির সহ-সাধারণ সম্পাদক আলমগীর হোসেন ভুইয়া, উপজেলা বিএনপির প্রচার সম্পাদক শেখ মো: শহীদুল ইসলাম, পৌর যুবদলের সিনিয়র যুগ্ম আহবায়ক ফয়জুর রহমান গোলাপ প্রমুখ। মিছিল ও পথসভায় উপস্থিত ছিলেন, উপজেলা স্বেচ্ছাসেবক দলের সিনিয়র যুগ্ম আহবায়ক খন্দকার খালিছ মিয়া, উপজেলা শ্রমিক দলের সাধারণ সম্পাদক আব্দুল ওয়াহিদ ওহিদ, বিএনপি নেতা প্রভাষক মোঃ জমশেদ খান, পৌর বিএনপি নেতা শফিকুল ইসলাম শামীম, উপজেলা ছাত্রদলের সাবেক যুগ্ম আহবায়ক মুছা আহমদ সুয়েট, উপজেলা ছাত্র শিবিরের সভাপতি মো: নাজমুল ইসলাম, পৌর ছাত্রদলের সাবেক যুগ্ম আহবায়ক ফরহাদ আহমদ ও খন্দকার মঞ্জু আহমদ, ছাত্রদল নেতা দুলাল আহমদ, পৌর যুবদল নেতা ছায়েদ আহমদ সুমন, উপজেলা সাংস্কৃতিক আন্দোলনের আহবায়ক হোসাইন আহমদ শিপু, পৌর সাংস্কৃতিক আন্দোলনের আহবায়ক আতিকুল ইসলাম, জামায়াত নেতা জাবেদ, ইমরুল, আতিক, বেলাল, উপজেলা শ্রমিক দলের প্রচার সম্পাদক ফারুক আহমদ মোল্লা, সহ-প্রচার সম্পাদক দেলোয়ার হোসেন ঢালী প্রমুখ।
কুলাউড়ায় ১৮দলীয় জোটের ডাকা অবরোধ ও ৪৮ঘন্টা হরতালের প্রথম দিন ৬ জানুয়ারী সোমবার সকাল থেকে ১৮দলীয় জোটের নেতৃবৃন্দ কুলাউড়ার রাজপথে অবস্থান নিয়ে পিকেটিং করে। দুপুর ১২টার সময় কুলাউড়া চৌমুহনী চত্বর থেকে কেন্দ্রীয় বিএনপির কারা নির্যাতিত নেতা এডভেকেট আবেদ রাজার নেতৃত্বে মিছিল কুলাউড়া শহরের প্রধান প্রধান সড়ক প্রদক্ষিন করে। পুনরায় চৌমুহনী চত্বরে এসে পথসভা অনুষ্ঠিত হয়। সভায় প্রধান অতিথি হিসাবে বক্তব্য রাখেন এড. আবেদ রাজা। ৫তারিখের প্রহসনের নির্বাচন প্রতিহত ও প্রত্যাখান করায় দেশবাসী সহ কুলাউড়া-কমলগঞ্জ (আংশিক) এলাকাবাসীকে ধন্যবাদ জানিয়ে তিনি বলেন, দেশের মানুষ হাসিনা সরকারকে প্রত্যাখান করেছে। তাই এ সরকার ক্ষমতায় থাকার সব অধিকার হারিয়ে ফেলেছে। অবিলম্বে প্রহসনের দশম জাতীয় সংসদ নির্বাচন বাতিল ঘোষনা করে নির্দলীয় নিরপেক্ষ তত্বাবদায়ক সরকারের অধিনে দশম জাতীয় সংসদ নির্বাচনের পূনরায় তফশিল ঘোষনার উধাত্ত আহবান জানান। অন্যতায় ১৮দলীয় জোটের নেতৃবৃন্দ সহ দেশের জনগণ সৈরাচারী ও বাকশালী হাসিনা সরকারকে ক্ষমতা থেকে আন্দোলনের মাধ্যমে টেনে হিচড়ে পদত্যাগ করতে বাধ্য করবে। তিনি আরও বলেন বিশ্ববাসী দেশের মিডিয়ার মাধ্যমে ভোট বিহীন নির্বাচন দেখেছে। এই সরকারকে তারা ধীক্ষার জানিয়েছে। তিনি বলেন অদ্য সকাল ৯টার সময় শান্তিপূর্ন হরতালে পিকেটিং করার সময় উছলাপাড়াস্থ গ্যাস পাম্প এর সম্মুখে উপজেলা বিএনপির সহ-সভাপতি মোঃ রওশন খান, বিএনপি নেতা আকমল, উপজেলা যুবদল নেতা সায়েদ আহমদ সুমন সহ অন্যান্য নেতৃবৃন্দকে দাঙ্গা পুলিশ নির্লজ্জ ভাবে নাজেহাল করায় তীব্র নিন্দা জানিয়ে বলেন আন্দোলন করা আমাদের গনতান্ত্রীক অধিকার। কুলাউড়ার শান্ত পরিবেশকে অশান্ত না করার আহবান জানান। আরও বক্তব্য রাখেন উপজেলা জামায়াতের আমীর আব্দুল বারী মাষ্টার, উপজেলা বিএনপির সাধারণ সম্পাদক এম এ মজিদ, পৌর খেলাফত মজলিশের সভাপতি মোঃ আব্দুল কাইয়ুম, উপজেলা জামায়াতের সেক্রেটারী সহকারী অধ্যাপক আব্দুল মুন্তাজিম, উপজেলা বিএনপির সহ-সভাপতি মোঃ রওশন খান, পৌর জামায়াতের সেক্রেটারী মোঃ সাইফুল ইসলাম খান, উপজেলা বিএনপির সহ-সাধারণ সম্পাদক আলমগীর হোসেন ভুইয়া, উপজেলা বিএনপির প্রচার সম্পাদক শেখ মো: শহীদুল ইসলাম, পৌর যুবদলের সিনিয়র যুগ্ম আহবায়ক ফয়জুর রহমান গোলাপ প্রমুখ। মিছিল ও পথসভায় উপস্থিত ছিলেন, উপজেলা স্বেচ্ছাসেবক দলের সিনিয়র যুগ্ম আহবায়ক খন্দকার খালিছ মিয়া, উপজেলা শ্রমিক দলের সাধারণ সম্পাদক আব্দুল ওয়াহিদ ওহিদ, বিএনপি নেতা প্রভাষক মোঃ জমশেদ খান, পৌর বিএনপি নেতা শফিকুল ইসলাম শামীম, উপজেলা ছাত্রদলের সাবেক যুগ্ম আহবায়ক মুছা আহমদ সুয়েট, উপজেলা ছাত্র শিবিরের সভাপতি মো: নাজমুল ইসলাম, পৌর ছাত্রদলের সাবেক যুগ্ম আহবায়ক ফরহাদ আহমদ ও খন্দকার মঞ্জু আহমদ, ছাত্রদল নেতা দুলাল আহমদ, পৌর যুবদল নেতা ছায়েদ আহমদ সুমন, উপজেলা সাংস্কৃতিক আন্দোলনের আহবায়ক হোসাইন আহমদ শিপু, পৌর সাংস্কৃতিক আন্দোলনের আহবায়ক আতিকুল ইসলাম, জামায়াত নেতা জাবেদ, ইমরুল, আতিক, বেলাল, উপজেলা শ্রমিক দলের প্রচার সম্পাদক ফারুক আহমদ মোল্লা, সহ-প্রচার সম্পাদক দেলোয়ার হোসেন ঢালী প্রমুখ। à¦•à§à¦²à¦¾à¦‰à§œà¦¾ অফিস॥

সংবাদটি শেয়ার করতে নিচের “আপনার প্রিয় শেয়ার বাটনটিতে ক্লিক করুন”
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •