পৌষ সংক্রান্তি উৎসবে: রেশনে এক কেজি চা পাতার দাবীতে চাতলাপুর চা বাগানে শ্রমিক অসন্তোষ ॥ ব্যবস্থাপক অবরুদ্ধ

January 11, 2014, এই সংবাদটি ৩৭৯ বার পঠিত

হিন্দু সম্প্রদায়ের আসন্ন পৌষ সংক্রান্তি উৎসবে নিবন্ধিত চা শ্রমিকদের রেশনে নির্ধারিত এক কেজি পরিমাণ করে চা পাতা দেওয়ার দাবীতে মৌলভীবাজারের কুলাউড়া উপজেলার চাতলাপুর চা বাগানে শ্রমিক অসন্তোষ চলছে। দাবী আদায়ে বিক্ষোব্দ চা শ্রমিকরা একজন সহকারী ব্যবস্থাপককে অবরুদ্ধ করে রাখে। শনিবার চাতলাপুর চা বাগানে এ ঘটনাটি ঘটে। শ্রমিক অসন্তোষের সংবাদ শুনে ১১ জানুয়ারী শনিবার সন্ধ্যায় কমলগঞ্জ উপজেলার শমশেরনগরের সন্নিকটবর্তী সরেজমিন চাতলাপুর চা বাগানে গেলে বিক্ষোব্দ চা শ্রমিক নিয়তি বাউরী ও ধানু রবিদাস জানান, চা বাগানগুলোতে বছরে দূর্গোৎসব ও পৌষ সংক্রান্তিতে নিবন্ধিত চা শ্রমিককে এক কেজি করে মোট দুই কেজি চা পাতা রেশনে প্রদান করার কথা। আগামী ১৪ জানুয়ারী মঙ্গলবার পৌষ সংক্রান্তি উৎসবকে সামনে রেখে শনিবার বিকালে চাতলাপুর চা বাগানে এক কেজি চা পাতার বদলে মাত্র আধা কেজি করে চা পাতা দিতে চাইলে শ্রমিক অসন্তোষ শুরু হয়। এ অবস্থায় শনিবার বিকাল তিনটা থেকে তিন শতাধিক চা শ্রমিক চাতলাপুর চা বাগান কারখানাও অফিসের ফটকে অবস্থান নিয়ে বিক্ষোভ প্রদর্শণ করে। এ অবস্থায় চাতলাপুর চা বাগানের সহকারী ব্যবস্থায় তোয়াব খান অফিসে অবরুদ্ধ হয়ে পড়েন। চাতলাপুর চা বাগান পঞ্চায়েত সভাপতি সাধন বাউরী ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করে বলেন, ডানকান ব্রাদার্সের মালিকাধীন পার্শ্ববর্তী কমলগঞ্জ উপজেলার শমশেরনগর চা বাগানেও শনিবার পৌষ সংক্রান্তি উপলক্ষে প্রতি শ্রমিককে এক কেজি করে চা পাতা রেশনে প্রদান করা হয়। অথচ চাতলাপুর চা বাগানে অহেতুক চা শ্রমিকদের ন্যায্য পাওয়া রেশনের চা পাতা থেকে আধা কেজি করে চা পাতা কম দিতে চাওয়ায় এ চা বাগানের ১৫০০ চা শ্রমিকের মাঝে অসন্তোষ দেখা দিয়েছে। ঘটনা সম্পর্কে জানতে চেয়ে চাতলাপুর চা বাগানের ব্যবস্থাপক ইফতেখার এনামের মুঠোফোনে (০১৭১১৯২২৮১৩) কথা বলার চেষ্টা করলে সাংবাদিক পরিচয় পেয়ে তিনি কোন কথা বলতে রাজি হননি। চাতলাপুর চা বাগানের অফিসে অবরুদ্ধ সহকারী ব্যবস্থাপক তোয়াব খানের সাথেও যোগাযোগের চেষ্টা করেও কথা বলা যায়নি। তবে নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক চাতলাপুর চা বাগানের একজন কর্মচারী ঘটনার সত্যতা স্বীকার করে বলেন, সমস্যার সমাধানের চেষ্টা চলছে।

হিন্দু সম্প্রদায়ের আসন্ন পৌষ সংক্রান্তি উৎসবে নিবন্ধিত চা শ্রমিকদের রেশনে নির্ধারিত এক কেজি পরিমাণ করে চা পাতা দেওয়ার দাবীতে মৌলভীবাজারের কুলাউড়া উপজেলার চাতলাপুর চা বাগানে শ্রমিক অসন্তোষ চলছে। দাবী আদায়ে বিক্ষোব্দ চা শ্রমিকরা একজন সহকারী ব্যবস্থাপককে অবরুদ্ধ করে রাখে। শনিবার চাতলাপুর চা বাগানে এ ঘটনাটি ঘটে। শ্রমিক অসন্তোষের সংবাদ শুনে ১১ জানুয়ারী শনিবার সন্ধ্যায় কমলগঞ্জ উপজেলার শমশেরনগরের সন্নিকটবর্তী সরেজমিন চাতলাপুর চা বাগানে গেলে বিক্ষোব্দ চা শ্রমিক নিয়তি বাউরী ও ধানু রবিদাস জানান, চা বাগানগুলোতে বছরে দূর্গোৎসব ও পৌষ সংক্রান্তিতে নিবন্ধিত চা শ্রমিককে এক কেজি করে মোট দুই কেজি চা পাতা রেশনে প্রদান করার কথা। আগামী ১৪ জানুয়ারী মঙ্গলবার পৌষ সংক্রান্তি উৎসবকে সামনে রেখে শনিবার বিকালে চাতলাপুর চা বাগানে এক কেজি চা পাতার বদলে মাত্র আধা কেজি করে চা পাতা দিতে চাইলে শ্রমিক অসন্তোষ শুরু হয়। এ অবস্থায় শনিবার বিকাল তিনটা থেকে তিন শতাধিক চা শ্রমিক চাতলাপুর চা বাগান কারখানাও অফিসের ফটকে অবস্থান নিয়ে বিক্ষোভ প্রদর্শণ করে। এ অবস্থায় চাতলাপুর চা বাগানের সহকারী ব্যবস্থায় তোয়াব খান অফিসে অবরুদ্ধ হয়ে পড়েন। চাতলাপুর চা বাগান পঞ্চায়েত সভাপতি সাধন বাউরী ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করে বলেন, ডানকান ব্রাদার্সের মালিকাধীন পার্শ্ববর্তী কমলগঞ্জ উপজেলার শমশেরনগর চা বাগানেও শনিবার পৌষ সংক্রান্তি উপলক্ষে প্রতি শ্রমিককে এক কেজি করে চা পাতা রেশনে প্রদান করা হয়। অথচ চাতলাপুর চা বাগানে অহেতুক চা শ্রমিকদের ন্যায্য পাওয়া রেশনের চা পাতা থেকে আধা কেজি করে চা পাতা কম দিতে চাওয়ায় এ চা বাগানের ১৫০০ চা শ্রমিকের মাঝে অসন্তোষ দেখা দিয়েছে। ঘটনা সম্পর্কে জানতে চেয়ে চাতলাপুর চা বাগানের ব্যবস্থাপক ইফতেখার এনামের মুঠোফোনে (০১৭১১৯২২৮১৩) কথা বলার চেষ্টা করলে সাংবাদিক পরিচয় পেয়ে তিনি কোন কথা বলতে রাজি হননি। চাতলাপুর চা বাগানের অফিসে অবরুদ্ধ সহকারী ব্যবস্থাপক তোয়াব খানের সাথেও যোগাযোগের চেষ্টা করেও কথা বলা যায়নি। তবে নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক চাতলাপুর চা বাগানের একজন কর্মচারী ঘটনার সত্যতা স্বীকার করে বলেন, সমস্যার সমাধানের চেষ্টা চলছে।

 à¦•à¦®à¦²à¦—ঞ্জ প্রতিনিধি॥

সংবাদটি শেয়ার করতে নিচের “আপনার প্রিয় শেয়ার বাটনটিতে ক্লিক করুন”
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •