দিনব্যাপী মণিপুরি ভাষা ও সংস্কৃতি উৎসব ও মাতৃভাষায় মেধা পরীক্ষা

May 14, 2022,

প্রনীত রঞ্জন দেবনাথ॥ মণিপুরি ভাষাকে বাংলাদেশের প্রেক্ষাপটে বাঁচিয়ে রাখা ও বিকশিত করার প্রয়াস হিসেবে বিগত ১৩ বছর ধরে মৌলভীবাজারেরে কমলগঞ্জে মণিপুরি ভাষা ও সংস্কৃতি উৎসব পালন করছে। এ ধারাবাহিকতায় শুক্রবার কমলগঞ্জের আদমপুরে তেতইগাঁও রশিদ উদ্দিন উচ্চবিদ্যালয়ে মণিপুরি ভাষা ও সংস্কৃতি উৎসব ২০২২ চুড়ান্ত পর্বের অনুষ্ঠান আয়োজন করা হয়।

মণিপুরি সাহিত্য সংসদের আয়োজনে শুক্রবার সকাল সাড়ে ১১টায় জাতীয় পতাকা উত্তোলন করে মণিপুরি ভাষা ও সংস্কৃতি উৎসব ২০২২ এর আনুষ্ঠানিক উদ্বোধন করা হয়। এরপর উপস্থিত মৈতৈ মণিপুরী ও মুসলিম মণিপুরি (পাঙাল) শিক্ষার্থী ও অতিথিদের অংশ গ্রহনে উৎসবের বর্ণাঢ্য শোভাযাত্রা বের হয়। পরে তেতইগাঁও রশিদ উদ্দীন উচ্চবিদ্যালয় শহীদ মিনারে পুষ্পার্পণ করে ভাষা শহীদদের প্রতি শ্রদ্ধা নিবেদন করা হয়।

দুপুরে মৈতৈ মণিপুরী মাতৃভাষার বর্ণমালায় দুই শতাধিক মৈতৈ মণিপুরি ও মুসলিম মণিপুরি শিক্ষার্থীরা মেধা পরীক্ষায় অংশ গ্রহন করে। বেলা ৩টায় বিদ্যালয় মিলনায়তনে মণিপুরি ভাষা ও সংস্কৃতি চর্চা, প্রসার বিষয়ক আলোচনা সভা অনুষ্ঠিত হয়। সভায় সভাপতিত্ব করেন বাংলাদেশ মণিপুরি সাহিত্য পরিষদের সভাপতি কবি, লেখক ও গবেষক এ, কে শেরাম। আলোচনায় অংশ গ্রহন করেন ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের ভাষা বিজ্ঞান বিভাগের অধ্যাপক লেখক ও গবেষক ড. সৌরভ সিকদার, জাবারাং কল্যাণ সমিতির নির্বাহী পরিচালক লেখক ও গবেষক মথুরা বিকাশ ত্রিপুরা ও আন্তর্জাতিক আদিবাসী ভাষা দশক উদযাপন জাতীয় কমিটির সদস্য সচিব ও উন্নয়ন কর্মী বাঁধন আরেং।

অন্যান্যের মাঝে বক্তব্য রাখেন মণিপুরি সাহিত্য পরিষদের সদস্য সচিব নামব্রম সংকর, অগ্রণী ব্যাংকের সাবেক এজিএম নীলচাঁদ সিংহ, ভারপ্রাপ্ত প্রধান শিক্ষক শাহেনা বেগম, প্রধান শিক্ষখ ও লেখক সাজ্জাদুল হক স্বপন, কবি রওশন আরা বাঁশি, কামাল উদ্দীন।

এ প্রয়াসেই ২০০৮ সাল থেকে মণিপুরি ভাষা ও সংস্কৃতি উৎসব পালণ করা হচ্ছে। আর এবারের উৎসব চুড়ান্ত পর্যায়ের এ জন্য যে, বিভিন্ন শ্রেণির মণিপুরি শিক্ষার্থীরা নিজেদের বর্ণমালা ব্যবহার করে মেধা পরীক্ষায় অংশ নিয়েছে। পরীক্ষা শেষে শিক্ষার্থীদের মাঝে পুরষ্কারও বিতরণ করা হয়।

সংবাদটি শেয়ার করতে নিচের “আপনার প্রিয় শেয়ার বাটনটিতে ক্লিক করুন”
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •