৬০ ঘন্টার হরতালের শেষ দিনে জামায়াত-বিএনপির দখলে মাঠ : আওয়ামীলীগের নেতৃত্বাধীন ১৪ দল নিরব

October 29, 2013, এই সংবাদটি ১৬৯ বার পঠিত

তত্বাবধায়ক সরকার পূর্ণবহালের দাবীতে ও ১৮ দলীয় জোটের পক্ষে গত ২৫ অক্টোবর হরতালের কর্মসূচি দেন বিএনপি চেয়ারপার্সন ও ১৮ দলীয় জোটনেত্রী বেগম খালেদা জিয়া। হরতালের সময় মাঠে বিএনপির নেতা কর্মীর চেয়ে জামায়াতের কর্মীদের উপস্থিতি বেশী ছিল। ৩য় দিনের হরতালেও ১৮ দলের দখলে মাঠ ছিল। তবে ১৪ দল কোন মিছিল মিটিং করতে দেখা যায়নি। গত ২৫ অক্টোবর থেকে এম নাসের রহমানের নেতৃত্বে ১৮ দলীয় জোটের দখলে রয়েছে মৌলভীবাজার জেলা শহর। ১৮ দলের ডাকা টানা ৬০ ঘন্টার হরতালের শেষ দিন ২৯ অক্টোবর বুধবারেও শান্তিপূর্ণ ও সতস্ফূর্ত ভাবে মৌলভীবাজারে হরতাল পালিত হয়েছে। হরতালের সমর্থনে সকাল ৬ টা থেকে ১৮ দলীয় জোট শহরের ৭টি পয়েন্টে পিকেটিং করে রিকশা ব্যতীত সকল যানবাহন বন্ধ করে দেয়। সকাল ৯টা থেকে শুরু হয় এ ৭টি পয়েন্টে হরতালের সমর্থনে মোটর সাইকেল মহড়া, বিক্ষোভ মিছিল ও সমাবেশ। এছাড়া শহরের বাইরের ৬টি উপজেলায় বিভিন্ন মোড়ে ভোর থেকে পিকেটাররা যানবাহন আটক করলেও পুলিশ ঘটনাস্থলে আসলেও নীরব ভুমিকা পালন করতে দেখা যায়। উল্লেখ্য কোন অপ্রীতিকর ঘটনা ছাড়া মৌলভীবাজার জেলার বিভিন্ন উপজেলায় হরতাল পালন করা হয়। এছাড়া সন্ধ্যা ৭টায় আগামী দিনের হরতাল পালনের লক্ষ্যে ১৮ দলীয় জোটের উদ্দ্যোগে একটি বিশাল মিছিল শহরের প্রধান প্রধান সড়ক প্রদক্ষিন করেছে। সন্ধ্যা ৬টা পর্যন্ত শহরের বিভিন্ন মোড়ে ১৮ দলীয় জোটের মিছিল ও সমাবেশে চলতে দেখা যায়। শহরে সাধারন জনগনের কোন যাতায়াত চোখে পড়েনি।
তত্বাবধায়ক সরকার পূর্ণবহালের দাবীতে ও ১৮ দলীয় জোটের পক্ষে গত ২৫ অক্টোবর হরতালের কর্মসূচি দেন বিএনপি চেয়ারপার্সন ও ১৮ দলীয় জোটনেত্রী বেগম খালেদা জিয়া। হরতালের সময় মাঠে বিএনপির নেতা কর্মীর চেয়ে জামায়াতের কর্মীদের উপস্থিতি বেশী ছিল। ৩য় দিনের হরতালেও ১৮ দলের দখলে মাঠ ছিল। তবে ১৪ দল কোন মিছিল মিটিং করতে দেখা যায়নি। গত ২৫ অক্টোবর থেকে এম নাসের রহমানের নেতৃত্বে ১৮ দলীয় জোটের দখলে রয়েছে মৌলভীবাজার জেলা শহর। ১৮ দলের ডাকা টানা ৬০ ঘন্টার হরতালের শেষ দিন ২৯ অক্টোবর বুধবারেও শান্তিপূর্ণ ও সতস্ফূর্ত ভাবে মৌলভীবাজারে হরতাল পালিত হয়েছে। হরতালের সমর্থনে সকাল ৬ টা থেকে ১৮ দলীয় জোট শহরের ৭টি পয়েন্টে পিকেটিং করে রিকশা ব্যতীত সকল যানবাহন বন্ধ করে দেয়। সকাল ৯টা থেকে শুরু হয় এ ৭টি পয়েন্টে হরতালের সমর্থনে মোটর সাইকেল মহড়া, বিক্ষোভ মিছিল ও সমাবেশ। এছাড়া শহরের বাইরের ৬টি উপজেলায় বিভিন্ন মোড়ে ভোর থেকে পিকেটাররা যানবাহন আটক করলেও পুলিশ ঘটনাস্থলে আসলেও নীরব ভুমিকা পালন করতে দেখা যায়। উল্লেখ্য কোন অপ্রীতিকর ঘটনা ছাড়া মৌলভীবাজার জেলার বিভিন্ন উপজেলায় হরতাল পালন করা হয়। এছাড়া সন্ধ্যা ৭টায় আগামী দিনের হরতাল পালনের লক্ষ্যে ১৮ দলীয় জোটের উদ্দ্যোগে একটি বিশাল মিছিল শহরের প্রধান প্রধান সড়ক প্রদক্ষিন করেছে। সন্ধ্যা ৬টা পর্যন্ত শহরের বিভিন্ন মোড়ে ১৮ দলীয় জোটের মিছিল ও সমাবেশে চলতে দেখা যায়। শহরে সাধারন জনগনের কোন যাতায়াত চোখে পড়েনি। স্টাফ রিপোর্টার॥

সংবাদটি শেয়ার করতে নিচের “আপনার প্রিয় শেয়ার বাটনটিতে ক্লিক করুন”
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •