কাটা হলো তিন হাজার সবজি গাছ : এ কেমন শত্রুতা !

February 24, 2021, এই সংবাদটি ১৩৭ বার পঠিত

শ্রীমঙ্গল প্রতিনিধি॥ শ্রীমঙ্গলে এক নারী কৃষকের প্রায় তিন হাজার ফলন্ত সবজি গাছ কেটে ফেলা হয়েছে। সবজির ভরা মৌসুমে ফলসহ গাছগুলো কেটে ফেলায় নি:স্ব হয়ে পড়েছেন আশিদ্রোন ইউনিয়নের পাড়ের টং গ্রামের কৃষানী জাহেরা খাতুন। রাতের আধাঁরে তার চাষকৃত ৩ একর জমির ফসলী গাছগুলো কেটে এবং উপড়ে ফেলা হয়েছে।
বুধবার ২৪ ফেব্রুয়ারি দূপুরে সরেজমিনে উপজেলার আশিদ্রোন ইউনিয়নের ৮নং ওয়ার্ডের পাড়ের টং গ্রামে গিয়ে দেখা যায়, প্রায় তিন হাজার করলা, শশা, চাল কুমড়া, চিচিংগাসহ বিভিন্ন সবজি গাছ মাটিতে পড়ে রয়েছে। সব গাছের গুড়ি কেটে এবং উপড়ে ফেলে মাটিতে রাখা হয়েছে। গাছগুলোতে ফল ও ফুল দুটোই রয়েছে।
সবজি চাষী জাহেরা খাতুন বলেন, ঋণ নিয়ে তিন একর জমিতে সবজি চাষ শুরু করেছি। ভরা ফলের সময়ে রাতের আধাঁরে আমার ক্ষেত্রের ফসলগুলো কেটে ফেলায় আমি পরিবার নিয়ে নি:স্ব হয়ে পড়েছি। এই গাছগুলো বানিয়াচং উপজেলার গুনই গ্রামের আনোয়ার আলী, পাড়ের টং এর ইনচার আলী, কাদির মিয়া মঙ্গলবার দিবাগত রাতে পূর্ব শত্রুতার জের ধরে আমার ফলন্ত সবজি ক্ষেতের সবগুলো গাছই কেটে ফেলেছে।
৮নং ওয়ার্ডের ইউপি সদস্য বিল্লাল হোসেন ও ৭,৮,৯ নং সংরক্ষিত ওয়ার্ডে মহিলা সদস্য শিল্পী পাল বলেন, জাহেরা বেগমের এক আত্মীয় বিয়ের প্রস্তাব দিয়েছিল। কিন্ত জাহেরা খাতুন এই প্রস্তাবে রাজি না হওয়ায় ক্ষুদ্ধ হয়ে একাজ ঘটিয়েছেন বলে ধারনা করা হচ্ছে।
পাড়ের টং বাজারের সভাপতি মোঃ শাহ আলম , স্থানীয় একটি হাসের ফার্মের মালিক মোঃ নুরুল হক, মোঃ কবীর মিয়া ও স্থানীয় বাসিন্দা মোঃ বসির মিয়া বলেন যারা ঘটনা ঘটিয়েছে তারা খারাপ প্রকৃতির লোক। একসময় ওই লোককে গ্রাম থেকে তাড়িয়ে দেয়া হয়েছিল।
জাহেরা খাতুন বলেন, আমার ফলন্ত সবজি গাছগুলো কাটার ফলে আমি পথে বসে গিয়েছি। আমি কিভাবে মানুষের ঋণ শোধ করবো বুঝতে পারছি না। সবজি গাছগুলো কেটে ফেলায় আমার প্রায় ১০ লক্ষ টাকার ক্ষতি সাধিত হয়েছে। এ ব্যাপারে বুধবার শ্রীমঙ্গল থানায় একটি লিখিত অভিযোগ দায়ের করেন তিনি।

সংবাদটি শেয়ার করতে নিচের “আপনার প্রিয় শেয়ার বাটনটিতে ক্লিক করুন”
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •