জুড়ীতে ত্রাণ সহায়তা নয়, পুলিশের ভালোবাসা

May 19, 2020, এই সংবাদটি ৮০ বার পঠিত

জুড়ী প্রতিনিধি॥ জুড়ী উপজেলায় করোনা মহামারির কারনে জীবনের ঝুকিঁনিয়ে কাজ করা পুলিশ সদস্যরা এবার নিজ উপজেলায় দাড়ালেন ভালবাসার উপহার  নিয়ে। ত্রান কিংবা সহায়তা নয় “ভাই-বন্ধু হিসেবে ভালবাসা” এরকম লেখা ব্যাগের মধ্যে খাবার সামগ্রী নিয়ে প্রতিবেশির দোয়ারে পাঠাচ্ছেন তারা।

পুলিশ এর বিভিন্ন ইউনিটে কর্মরত মৌলভীবাজার জেলার জুড়ী উপজেলার সকল স্থরের পুলিশ সদস্যবৃন্দ মিলে  এভাবেই বর্তমান পরিস্থিতিতে নিজ উপজেলার অসহায় ও কর্মহীন মানুষদের পাশে দাঁড়িয়েছেন। ১৮ মে  সোমবার মঙ্গলবার দুই দিনে উপজেলার মোট ছয়টি ইউনিয়নে ২৪০ টি পরিবারের মধ্যে তারা এসব উপহার সামগ্রী পৌঁছে দিয়েছেন। করোনা পরিস্থিতিতে সরকারি কর্মকর্তা-কর্মচারীদের কর্মস্থল ত্যাগে বাধা-নিষেধ থাকার কারণে তাদের পরিবারের সদস্যগনও স্বেচ্ছাসেবক নিয়োগের মাধ্যমে তারা এসব উপহার সামগ্রী বাড়ি বাড়ি পৌঁছে দেন। জুড়ী থানার অফিসার ইনচার্জ ও তাদের এই মহৎ উদ্যোগে যোগ দেন। খোঁজ নিয়ে জানা যায়, সিলেট মেট্রোপলিটন পুলিশের মোগলাবাজার থানার সহকারি পুলিশ কমিশনার পলাশ রঞ্জন দে, সিলেট মেট্রোপলিটন পুলিশের এয়ারপোর্ট থানার কালাগুল পুলিশ ক্যাম্পের ইনচার্জ সাব ইন্সপেক্টর  আঃ আজিজ শিমুল, সিলেট জেলা পুলিশের রিজার্ভ অফিসে কর্মরত এসিস্ট্যান্ট সাব-ইন্সপেক্টর শাহাব উদ্দিন সবুজ এবং ৭আর্মড পুলিশ ব্যাটালিয়ন সিলেট এর হিসাব শাখায় কর্মরত এসিস্ট্যান্ট সাব-ইন্সপেক্টর (ক্লার্ক) মোঃ সহিদুর রহমান পাবেল গণ এই মহৎ উদ্যোগের সমন্বয় সাধন করেন। এসব উপহার সামগ্রীর মধ্যে ছিল চাল, তেল, চিনি, ময়দা, সেমাই ও আলু যা দিয়ে ৫ সদস্যের একটি পরিবার ১০/ দিন সংসার চালাতে পারবে।

সিলেট মেট্রোপলিটন পুলিশের সিনিয়র এএসপি  পলাশ রঞ্জন দে জানান, নিজের দায়িত্ববোধ থেকে আমরা জুড়ীর উপজেলার পুলিশ সদস্যগন আমাদের জন্মস্থানের কর্মহীন মানুষের পাশে দাড়ীয়েছি, ভবিষ্যতেও আমাদের কার্যক্রম অব্যাহত থাকবে।

সংবাদটি শেয়ার করতে নিচের “আপনার প্রিয় শেয়ার বাটনটিতে ক্লিক করুন”
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •