জুড়ীতে প্রশাসনের আশ্বাসে স্থগিত হলো মাজারে ওরুসে অশ্লীলতা বন্ধের মানববন্ধন

March 24, 2021, এই সংবাদটি ১১২ বার পঠিত

জুড়ী প্রতিনিধি জুড়ী উপজেলায় হযরত শাহ্ নিমাত্রা(রঃ)’র মাজার শরীফে আসন্ন ওরুসে অশ্লীলতা এবং অসামাজিক ও অনৈসলামিক কর্মকাণ্ড বন্ধের দাবিতে, পূর্বঘোষিত ২১ মার্চ সোমবার বিকেলে এক মানববন্ধনের প্রস্তুতি নিয়েছিলো ফুলতলা ‘জাগ্রত মুসলিম জনতা। প্রশাসনের আশ্বাসে শেষপর্যন্ত স্থগিত করা হলো মানববন্ধন।

স্থানীয় সূত্রে জানা যায়, উপজেলার সীমান্তবর্তী ফুলতলা ইউনিয়নের ফুলতলা বাজারে অবস্থিত হযরত আব্দুল আলী প্রকাশ শাহ্ নিমাত্রা (রহঃ) এর মাজারে প্রতি বছর ১১ ও ১২ এপ্রিল দুই দিন ব্যাপী বার্ষিক ওরুস মোবারক অনুষ্টিত হতো।

বিগত কয়েক বছর থেকে এক দিন বাড়িয়ে তা তিন দিন করা হয়েছে। ওই ওরুসকে কেন্দ্র করে ফুলতলা বাজার ও এর আশ-পাশে ছড়িয়ে পড়ে মদ, গাঁজা, বেহায়াপনা ও জুয়ার আসর। এছাড়া বিভিন্ন সড়কের পাশে, অলি-গলিতে, বিভিন্ন বাড়িতে মৌসুমী পতিতারা অপকর্মে লিপ্ত হয়। ঘটে অহরহ চুরির ঘটনা। বিভিন্ন কাফেলায় গানের আসরে গাঁজা সেবনের মহোৎসব হয়। এছাড়া, অধিকাংশ কাফেলায় বাউল গানের নামে নারী দেহের অশ্লীল নৃত্য পরিবেশন হয়।

শতাধিক কাফেলায় উচ্চ আওয়াজের সাউন্ড সিস্টেম ও মাইকে গান বাজানোয় শব্দ দূষণের ফলে স্থানীয় এলাকাবাসী ও মাজার জিয়ারতে আসা লোকজন চরম ভোগান্তিতে পড়েন। স্থানীয় কিছুসংখ্যক অসাধু মানুষের যোগসাজসে বহিরাগত লোকেরা অবাধে এসব অপকর্ম করে থাকে। এতে করে শিশু, কিশোর ও যুবসমাজ বিপথগামী হচ্ছে।

 ধর্মীয় ভাবমূর্তি ক্ষুন্ন হচ্ছে। অজ্ঞাত কারণে মাজার পরিচালনা কমিটি এসব দেখেও না দেখার ভান করেন। চলতি বছর ১১, ১২ ও ১৩ এপ্রিল অনুষ্টিতব্য ৫০তম বার্ষিক ওরুসের শেষ রাতে সেহরি খাওয়ার সম্ভাবনা। তাই রমজানের পবিত্রতা রক্ষা করা এবং অসামাজিক ও অনৈসলামিক কাজ বন্ধের দাবিতে ‘জাগ্রত মুসলিম জনতা, ফুলতলা’-এর ব্যানারে রোববার জুড়ী উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা ও জুড়ী থানার ওসি বরাবরে লিখিত দাবি জানানো হয় এবং সোমবার বিকেলে ফুলতলা বাজারে মানববন্ধনের আয়োজন করা হয়। মানববন্ধন সফল করার লক্ষ্যে উপজেলার বিভিন্ন অঞ্চলে ধর্মপ্রাণ লোকজন ব্যাপক প্রস্তুতি নিচ্ছিলেন। সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ফেসবুকে চলছিলো ব্যাপক প্রচারণা।

মানববন্ধন বাস্তবায়ন কমিটির প্রধান ফুলতলা ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের যুগ্ম আহ্বায়ক মো: তাজুল ইসলাম বলেন- আগামী ১১, ১২ ও ১৩ এপ্রিল ওরুস হবার কথা। ১৩ এপ্রিল তারাবীহির নামাজ আদায় ও রাতে সেহরী খাওয়ার সম্ভাবনা রয়েছে। রমজানের আগের দিনগুলোতে ওরুস কেন্দ্রিক অশ্লীলতা কোন ধর্মপ্রাণ মানুষ মেনে নেবে না। আমাদের দাবি ওরুস একদিন কমাতে হবে এবং সকল অশ্লীলতা ও অনৈসলামিক কাজ বন্ধ করতে হবে। জুড়ী থানার ওসি মহোদয় এ গুলো বন্ধের আশ্বাস দেয়ায় আমরা মানববন্ধন স্থগিত করেছি।

তিনি বলেন- প্রতি বছর ওরুসে লক্ষাধিক মানুষের সমাগম ঘটে। করোনা পরিস্থিতিতে গত বছর ওরুস বন্ধ ছিলো। এ বছর করোনার দ্বিতীয় ঢেউ মোকাবেলায় বিষয়টির প্রতি গুরুত্ব দেয়া জরুরী।

এ বিষয়ে জানতে শাহ্ নিমাত্রা মাজার পরিচালনা কমিটির সভাপতি ও ফুলতলা ইউপি চেয়ারম্যান মাসুক আহমদ-এর সাথে মোবাইল ফোনে মঙ্গলবার দুপুর সোয়া ২টায় যোগাযোগ করেন, জুড়ী উপজেলা প্রেসক্লাব’র সাবেক সভাপতি সংবাদকর্মী মঞ্জুরে আলম লাল, তাঁকে তিনি পরে কথা বলবেন বলে জানান।

জুড়ী থানার অফিসার ইনচার্জ সঞ্জয় চক্রবর্তী বলেন- ওরুস কেন্দ্রিক সমাজ, ধর্ম ও আইন বিরোধী সকল কর্মকান্ড বন্ধ এবং রমজানের পবিত্রতা রক্ষার্থে প্রয়োজনীয় পদক্ষেপ নেয়া হবে।

উল্লেখ্য, ওরুসের নামে মদ, গাঁজা, জুয়ার আসর, অশ্লীলতা, অসামাজিক ও অনৈসলামিক কার্যকলাপ বন্ধের দাবিতে ২০১৭ সালের ৯ এপ্রিল জুড়ীতে মানববন্ধন করে বাংলাদেশ আনজুমানে তালামীযে ইসলামীয়া জুড়ী উপজেলা শাখা। সে বছর পুলিশের অগ্রনী ভূমিকায় এসব কার্যক্রম অনেকটা নিয়ন্ত্রণে ছিলো।

সংবাদটি শেয়ার করতে নিচের “আপনার প্রিয় শেয়ার বাটনটিতে ক্লিক করুন”
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •