নিজেদের মধ্যে তুচ্ছু ঘটনা নিয়ে মৌলভীবাজারে ৩ গৃহকর্মীর আত্মহত্যার চেষ্টা

May 28, 2016, এই সংবাদটি ৩৪১ বার পঠিত

স্টাফ রিপোর্টার॥ মৌলভীবাজার শহরের এম সাইফুর রহমান সড়কের একটি অ্যাপার্টমেন্টে নিজেদের মধ্যে ঝগড়ার পর ৩ জন গৃহকর্মী ড্রাইসেল ব্যাটারির রাসায়নিক পদার্থ খেয়ে আত্মহত্যার চেষ্টা করে।
পুলিশ ও অ্যাপার্টমেন্টে বসবাসকারী সূত্রে জানাযায়, এই অ্যাপার্টমেন্টে ভাড়া থাকেন বাংলাদেশ রোড ট্রান্সপোর্ট অথোরিটির (বিআরটি) এর সহকারী পরিচালক হাবিবুর রহমান স্ত্রী ইভা, ছোট দুই শিশু সন্তান ও এক ভাগ্নে। তাদের বাসায় একজন ছেলে শিশু ও ৫ নারী গৃহকর্মীসহ মোট ৬ জন কাজ করতেন। গৃহকর্তা ও গৃহকর্তীর অনুপস্থিতিতে ২৭ মে শুত্রুবার সকাল সাড়ে ৯টার দিকে গৃহকর্মীর আমিনা বাসার জানালার ফাঁকদিয়ে বাহিরের এক যুবকের সাথে গল্প করে। বিষয়টি অপর গৃহকর্মী শাহানা (২৮) দেখে তাকে নিষেধ করে। এতে তাদের মধ্যে ঝগড়া হয়। এক পর্যায়ে আমিনা (১৬), রুবি (১৫) ও মালা (১৮) রান্না ঘরের দরজা আটকিয়ে খেলনা গাড়ির ড্রাইসেল ব্যাটারির রাসায়নিক পদার্থ ভেঙে গুরো করে পানির সাথে মিশিয়ে খায় তারা। পরে তারা দরজা খুলে রান্না ঘর থেকে বের হয়ে এসে চিৎকার করে। এ সময় তিনজনের মুখ দিয়ে ফেনা ও রক্ত বের হতে দেখে অপর গৃহকর্মীরা চিৎকার করতে থাকে। চিৎকার শুনে পাশের বাসার লোকজন আসে এবং পুলিশকে খবর দেয়া হয়। পুলিশ এসে অ্যাপার্টমেন্টের কেয়ারটেকারের বিকল্প চাবি দিয়ে বাসার মূল দরজা খুলে ৩ গৃহকর্মীকে উদ্ধার করে ২৫০ শয্যা হাসপাতালে নিয়ে যায়।
গৃহকর্মী শাহানা জানায় হাবিবুর রহমানের স্ত্রী ইভা আনট্রি দুই সন্তান নিয়ে শুক্রবার ভোরে তারেকে ভিতরে রেখে বাসার প্রধান দরজা তালাবদ্ধ করে রেখে জরুরী কাজে ঢাকায় চলে যান তিনি।
মৌলভীবাজার মডেল থানার ওসি অকিল উদ্দিন আহমদ জানান শহরের চৌমোহনায় অবস্থিত শাহ মোস্তফা গার্ডেন সিটির ৮ম তলা থেকে ৩ জনকে উদ্ধার করে হাসপাতালে পাঠান। এরা সবাই সুস্থ অবস্থায় পুলিশ হেফাজতে রয়েছে। উল্লেখিত ৬ জনের অভিবাকদের খবর দেয়া হয়েছে, অবিবাবকরা আসলে তাদের কাছে বুঝিয়ে দেয়া হবে।

সংবাদটি শেয়ার করতে নিচের “আপনার প্রিয় শেয়ার বাটনটিতে ক্লিক করুন”
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •