পাওনা টাকা চাইতে গিয়ে হামলায় আহত ৬, গ্রেফতার ১

May 18, 2022,

স্টাফ রিপোর্টার॥ রাজনগরে পাওনা টাকা আদায়কে কেন্দ্র করে সংঘর্ষের ঘটনায় অন্তত: ৬ জন আহত হয়েছেন।  আহতদের মৌলভীবাজার ২৫০ শয্যা হাসপাতাল ও অন্যত্র চিকিৎসা নিচ্ছেন।

আহতরা হলেন কদর মিয়া, পিন্টু মিয়া, করিম মিয়া, সাদ মিয়া, সৈয়দ সুমন হোসেন ও শামিম বক্স।

১৬ মে সোমবার রাত সাড়ে ৯টায় উপজেলার মহাসহস্র গ্রামে এ ঘটনাটি ঘটে। পুলিশ অভিযান চালিয়ে জহির মিয়া নামে একজনকে গ্রেফতার করেছে।

এ ঘটনায় মোঃ কদর মিয়া বাদী হয়ে জহির মিয়া ও নজমুল মিয়া সহ অজ্ঞাত নামা ৭/৮ জনের বিরুদ্ধে রাজনগর থানায় একটি মামলা দায়ের করেছেন।

পুলিশ সূত্র জানায়, রাজনগর উপজেলার সদর ইউনিয়নের মহাসহস্র গ্রামের রশিদ মিয়া পারিবারিক সমস্যার কথা বলে বছর খানেক পূর্বে প্রতিবেশী কদর মিয়ার কাছ থেকে ২৪ হাজার টাকা ধার নেন। পরবর্তীতে রশিদ মিয়াকে একাধিকবার পাওনা টাকা ফেরত দেয়ার কথা বললেও নানা অজুহাত দেখিয়ে তা ফেরত দিতে চাননি।

সোমবার রাত সাড়ে ৮টায় উভয় পরিবারকে নিয়ে হারুন মিয়ার দোকানের সামনে সালিশ বসার কথা থাকলেও মামলার প্রধান অভিযুক্ত জহির মিয়ার বাধার মুখে সালিশ বৈঠক হয়নি। পরে রাত সাড়ে ৯টায় পাওনাদার কদর মিয়া বাড়ী ফেরার পথে ওৎপেতে থাকা জহির মিয়া ও নজমুল মিয়াসহ ৭/৮ জন দেশীয় অস্ত্র দেখিয়ে অকথ্য ভাষায় গালিগালাজের এক পর্যায়ে মারধর করে। এ সময় পিন্টু মিয়া, করিম মিয়া এগিয়ে আসলে তাদেরও কোপানো হয়।

তাদের হাল্লা চিৎকার শুনে এলাকার লোকজন এগিয়ে আসলে হামলাকারীরা পালিয়ে যায়। এ সময় এলাকাবাসী আহতদের উদ্ধার করে প্রাথমিক চিকিৎসার জন্য প্রথমে রাজনগর উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে প্রেরন করেন। পিন্টু মিয়া ও সৈয়দ সুমনের শারীরিক অবস্থার অবনতি হলে কর্তব্যরত চিকিৎসক তাদেরকে ২৫০ শয্যা বিশিষ্ট মৌলভীবাজার সদর হাসপাতালে স্থানান্তর করেন।

সালিশ ব্যক্তি ও প্রত্যক্ষদর্শী সৈয়দ জুয়েল জানান, তারা সালিশের জন্য বসে ছিলেন কিন্তু জহির মিয়া সালিশ না মেনে রাগ দেখিয়ে চলে যান। কিছুক্ষণ পর হাল্লা চিৎকার শুনতে পান। এগিয়ে দেখেন জহির মিয়া ও নজমুল মিয়া দা দিয়ে এলোপাতাড়িভাবে কদর মিয়া সহ অন্যান্যদের আঘাত করছেন।

রাজনগর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা(ওসি) মোঃ নজরুল ইসলাম ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করে বলেন, একজনকে গ্রেফতার করা হয়েছে অন্যদের ধরতেও অভিযান অব্যাহত রয়েছে।

সংবাদটি শেয়ার করতে নিচের “আপনার প্রিয় শেয়ার বাটনটিতে ক্লিক করুন”
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •