ফলোআপ- স্বপ্নার মৃত্যুতে ক্ষতিপূরণ ২ লক্ষ টাকা

April 28, 2016, এই সংবাদটি ২২১ বার পঠিত

 

স্টাফ রিপোর্টার॥ মৌলভীবাজার পৌর শহরের বড়হাট এলাকায় গৃহকর্মী স্বপ্ন বেগম (১৪) এর মৃত্যুতে ক্ষতিপূরণ হিসেবে স্বপ্নার পরিবার পেল ২ লক্ষ টাকা।

২৬ এপ্রিল মঙ্গলবার স্বপ্নার বাবা মৌলভীবাজার মডেল থানায় একটি অপমৃত্যু মামলা করেন (মামলার নং ০৫)।

ময়নাতদন্ত শেষে ২৬ এপ্রিল ব্রাক্ষনবাড়িয়া জেলার পূর্বভাগ নাছির নগর এলাকায় তার গ্রামের বাড়িতে দাফন সম্মন্ন করা হয়।

এ ব্যাপারে স্বপ্নার চাচা হাজী সিরাজ এর সাথে মোঠোফোনে যোগাযোগ করলে তিনি বলেন, ময়নাতদন্তের রিপোর্টে আত্মহত্যা পাওয়া গেছে। স্বপ্নাকে নির্যাতন করা হয়েছে কিনা এমন প্রশ্নের উত্তরে তিনি বলেন, আমরা মৃত্যুর আগে নির্যাতনের কথা শুনেছি। এখন বিষয়টি স্থানীয় প্রতিনিধিদের মাধ্যমে আপোষ হয়েগেছে। আপোষের মাধ্যমে মৃত স্বপ্নার পরিবারকে ক্ষতিপূরণ হিসেবে ২ লক্ষ টাকা দেওয়া হয়েছে। টাকা কি আপনারা বাড়িতে নিয়ে গেছেন এমন প্রশ্নের জবাবে তিনি বলেন, নিরাপত্তার স্বার্থে টাকা মৌলভীবাজার আমাদের লোকের কাছে রেখে এসেছি।

এ বিষয়ে বড়হাট (৬নং ওয়ার্ড) কমিশনার জালাল আহমদ এর সাথে যোগাযোগ করলে তিনি বলেন, এটি আত্মহত্যা এবং এ বিষয়ে থাানায় একটি অপমৃত্যু মামলা হয়েছে।

এ ব্যাপারে জানতে মৌলভীবাজার মডেল থানার অফিসার ইনচার্জ অকিল উদ্দিনের সাথে যোগাযোগ করলে তিনি বলেন, মায়ের কাছ থেকে জানতে পেরেছি তাকে আগে নির্যাতন করা হয়েছে হয়ত এ কারণে সে আত্মহত্যা করতে পারে বলে প্রাথমিক ভাবে ধারণা করা হচ্ছে। স্বপ্নার বাবা একটি অপমৃত্যু মামলা করেছেন। তবে এটি হত্যা না আত্মহত্যা পূর্ণ ময়নাতদন্তের রিপোর্ট পাওয়ার পর জানা যাবে।

উল্লেখ্য, সোমবার ২৫ এপ্রিল রাত ১০টায় পৌর শহরের বড়হাট এলাকায় কয়ছর মিয়ার বাসায় (মা মঞ্জিল) এ ঘটনাটি ঘটে।

স্বপ্না বেশ কয়েক দিন যাবত কয়ছর মিয়ার বাড়িতে কাজ করত। কান্নার আওয়াজ শুনে প্রতিবেশীরা বাসায় গেলে স্বপ্নাকে মৃত্যু অবস্থায় খাটের উপর দেখতে পান। পরে স্থানীয়রা পুলিশে খবর দিলে পুলিশ ঘটনাস্থলে এসে লাশ উদ্ধার করে ময়নাতদন্তের জন্য সদর হাসপাতাল মর্গে প্রেরণ করে।

সংবাদটি শেয়ার করতে নিচের “আপনার প্রিয় শেয়ার বাটনটিতে ক্লিক করুন”
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •