বাংলাদেশের স্বাধীনতার ৫১তম বার্ষিকী ও জাতীয় দিবস উপলক্ষে আন্তর্জাতিক ভার্চুয়ালি সভা অনুষ্ঠিত

April 4, 2022,

মকিস মনসুর॥ বিপুল উৎসাহ উদ্দীপনা ও আনন্দঘন পরিবেশে বাংলাদেশ ও প্রবাসের বিভিন্ন দেশ থেকে বিশিষ্টজনদের অংশগ্রহনে বাংলাদেশের মহান স্বাধীনতার বাংলাদেশের স্বাধীনতার ৫১তম বার্ষিকী ও জাতীয় দিবস সুবর্ণ জয়ন্তী পালন উপলক্ষে ইউ কে বিডি বিডি টিভির আন্তর্জাতিক ভার্চুয়ালি আলোচনা সভা ও সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান “সুবর্ণ জয়ন্তী উৎসব” গত ৩০শে মার্চ ইউকে বিডি টিভির ভাইস চেয়ারম্যান বিশিষ্ট সাংস্কৃতিক ব্যাক্তিত্ব শেখ নুরুল ইসলাম এর সভাপতিত্বে এবং ইউ কে বিডি বিডি টিভির ফাইনেন্স ডিরেক্টর যুবনেতা শাহ শাফি কাদির এর উপস্থাপনায় সফলভাবে সম্পন্ন হয়েছে।
অনুষ্ঠানের শুরুতেই স্বাগত বক্তব্য রাখেন ইউকে বিডি টিভির চেয়ারম্যান, সাবেক ছাত্রনেতা ও কমিউনিটি লিডার বিশিষ্ট সাংবাদিক মোহাম্মদ মকিস মনসুর, উক্ত ভার্চুয়ালি পোগ্রামে প্রধান ও বিশেষ অতিথি হিসাবে যুক্তরাষ্ট্র বঙ্গবন্ধু পরিষদের সভাপতি, একুশে পদকপ্রাপ্ত বীর মুক্তিযোদ্ধা ড. নুরুন্নবী, ৬০ এর দশকের কেন্দ্রীয় সাবেক ছাত্রনেতা ও ডাকসুর সাবেক সদস্য ৭১ এর বীর মুক্তিযোদ্ধা দেওয়ান গৌস সুলতান, যুক্তরাষ্ট্র আওয়ামী লীগের প্রতিষ্ঠাতাকালীন সাধারন সম্পাদক বিশিষ্ট লেখক এম এ সালাম, প্রবাসের মুক্তিযোদ্ধাদের সংগঠক ও বীর মুক্তিযোদ্ধা একাউন্টেন্ট এম এ রুউফ, বিশিষ্ট শিক্ষাবিদ ড. সৈয়দ আব্দুল লতিফ, নিউপোট আওয়ামী লীগের প্রতিষ্ঠাতা সভাপতি শেখ মোহাম্মদ তাহির উল্লাহ, নিউপোট যুবলীগের সহ সভাপতিআব্দুর রুউফ তালুকদার, ও ওয়েলস ছাত্রলীগের সভাপতি মোহাম্মদ বদরুল হক মনসুর সহ অন্যান্য আলোচকবৃন্দ। ইউ কে বিডি বিডি টিভির পোগ্রাম ডিরেক্টর হেলেন ইসলাম এর উপস্থাপনায় সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠানে আবৃত্তি করেন পুষ্টিবিদ লেখক এবং আবৃত্তিকার.ডক্টর নাজমা কবির. গান পরিবেশন করেন জনপ্রিয় শিল্পী রুবাইয়া ফারজানা রেশমা, নাইম মাহমুদ খান, ও নাফিজা সুলতানা সহ অন্যান্য শিল্পীবৃন্দ।
বাংলাদেশের স্বাধীনতার স্থপতি জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানকে শুধু উচ্চারণে নয়, মনেপ্রাণে ধারণের আহ্বান জানিয়ে বক্তারা বলেন বর্তমানে স্বাধীনতাবিরোধীরা দেশে ও দেশের বাইরে নানাভাবে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে এবং অন্যান্যদের সহায়তায় ষড়যন্ত্র করছে। দেশে অস্থিতিশীলতা সৃষ্টি ও উন্নয়ন অগ্রযাত্রা ব্যাহত করার অপচেষ্টা চালিয়ে যাচ্ছে। এদের বিরুদ্ধে প্রবাসীদের ঐক্যবদ্ধ প্রতিরোধ গড়ে তুলতে হবে”বলে উল্লেখ করে এবং বঙ্গবন্ধুর দীর্ঘ রাজনৈতিক জীবন ও সংগ্রামের গৌরবোজ্জ্বল দিক তুলে ধরে বঙ্গবন্ধু কীভাবে একটি জাতিকে স্বাধিকার ও স্বাধীনতা সংগ্রামের জন্য প্রস্তুত করেছিলেন, সে ইতিহাস এ সময় তুলে ধরে মুক্তির সংগ্রামের প্রেক্ষাপট আমাদের নতুন প্রজন্মকে জানাতে হবে।
বক্তারা আর ও বলেন অনেকেই মনে করে মুক্তিযুদ্ধ মানে নয় মাসের একটি যুদ্ধ মাত্র। মনে করে সহজেই বাংলাদেশ স্বাধীন হয়ে গেছে। এর জন্য ১৯৪৮ সাল থেকে ধারাবাহিকভাবে একটি জাতিকে সুসংঘটিত করে তাদের মুক্তির চেতনায়, স্বাধিকার আন্দোলনে ও স্বপ্নের স্বাধীনতা অর্জনে কীভাবে প্রস্তুত করতে হয়েছিল, সে কথা মানুষকে জানাতে হবে। স্বাধীনতা সংগ্রামে কত প্রতিকূলতা গেছে, সে প্রতিকূলতার কথা মানুষকে জানাতে হবে”।
বক্তারা বলেন আজ বাংলাদেশ বিশ্বে উন্নয়নের রোল মডেল। প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার সুযোগ্য নেতৃত্বে বাংলাদেশ দেশ আজ এগিয়ে যাচ্ছে। তবে অপশক্তিরা এখনো তৎপর। তাদের বিরুদ্ধে রুখে দাঁড়াতে হবে। স্বাধীনতার ইতিহাস নতুন প্রজন্মকে জানাতে হবে। বঙ্গবন্ধুর স্বপ্নের সোনার বাংলা ও মাননীয় প্রধানমন্ত্রী জননেত্রী শেখ হাসিনা’র ২০৪১ সালে যে সমৃদ্ধ দেশের স্বপ্ন দেখেছেন তথা ডিজিটাল বাংলার আলোর মিছিলকে অবশ্যই বাস্তবায়ন করতে হলে। দেশে বিদেশে ঐক্যবদ্ধভাবে কাজ কাজ করার আহবান জানিয়েছেন।

সংবাদটি শেয়ার করতে নিচের “আপনার প্রিয় শেয়ার বাটনটিতে ক্লিক করুন”
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •