বড়লেখায় চা বাগানের অফিস স্টাফের হামলায় ঠিকাদার আহত : উত্তেজনা

December 27, 2016, এই সংবাদটি ৭১২ বার পঠিত

আব্দুর রব॥ বড়লেখার নিউ সমনবাগ চা বাগানের অফিস স্টাফ রেজাউল ইসলাম সোহেলের হামলায় বাগানের তালিকাভুক্ত তরুণ ঠিকাদার জিয়াউর রহমান জুয়েল আহত হয়েছেন। শনিবার ২৪ ডিসেম্বর দুপুরে বাগানের হেড ক্লার্কের কক্ষে এ ঘটনা ঘটলে শারীরিক লাঞ্ছিতের শিকার ঠিকাদারের স্বজনসহ এলাকাবাসীর মধ্যে চরম উত্তেজনা দেখা দেয়। বিক্ষুব্ধ এলাকাবাসী প্রায় এক ঘন্টা ব্যবস্থাপকের কার্যালয় ঘেরাও করে রাখে। পরে দোষী অফিস স্টাফের বিরুদ্ধে বাগান কর্তৃপক্ষের দৃষ্টান্ত মুলক শাস্তির আশ্বাসে লোকজন ঘেরাও প্রত্যাহার করেন। আহত ঠিকাদার জুয়েল উপজেলা স্বাস্থ্য কমপে¬ক্সে চিকিৎসা নিয়েছেন।
জানা গেছে, বাংলাদেশ টি বোর্ডের তালিকাভুক্ত ঠিকাদার জিয়াউর রহমান জুয়েল নিউ সমনবাগ চা বাগানের ব্যবস্থাপকের কার্যালয়ের হেডক্লার্ক শিবব্রত পুরকায়স্থ সনজুর কক্ষে পাওনা বিলের ব্যাপারে কথা বলছিলেন। হঠাৎ অফিস স্টাফ রেজাউল ইসলাম সোহেল ঠিকাদার জুয়েলকে অফিসে আসতে বারণ করেন। এর জের ধরে কথা কাটাকাটির একপর্যায়ে সোহেল বাগান ব্যবস্থাপক, হেড ক্লার্কসহ অন্যান্য অফিস স্টাফের সম্মুখে ঠিকাদার জুয়েলকে বেধড়ক পিটিয়ে গুরুতর আহত করেন। এ ঘটনায় ঠিকাদারের আত্মীয়-স্বজন ও এলাকাবাসীর মধ্যে চরম উত্তেজনা দেখা দেয়। কলাজুরা বাজার থেকে শতাধিক উত্তেজিত জনতা হামলাকারী বাগান স্টাফ সোহেলকে ধরে নিতে ব্যবস্থাপকের কার্যালয় ঘেরাও করে রাখেন।
পরে স্থানীয় ইউপি চেয়ারম্যান আজির উদ্দিনের মধ্যস্থতায় বাগান কর্তৃপক্ষ হামলাকারী অফিস স্টাফ সোহেলের দৃষ্টান্তমুলক শাস্তি প্রদানের আশ্বাস দিলে উত্তেজিতরা ঘেরাও প্রত্যাহার করেন।
নিউ সমনবাগ চা বাগানের ব্যস্থাপক মোহাম্মদ আলী খান তার অফিসের স্টাফের হাতে ঠিকাদার লাঞ্ছিতের ও আহত হওয়ার অপ্রীতিকর এ ঘটনার দুঃখ প্রকাশ করে জানান, স্থানীয় ইউপি চেয়ারম্যান আজির উদ্দিন ঘটনাটি সমঝোতায় নিষ্পত্তির উদ্যোগ নিয়েছেন। বর্তমানে পরিস্থিতি শান্ত রয়েছে।

সংবাদটি শেয়ার করতে নিচের “আপনার প্রিয় শেয়ার বাটনটিতে ক্লিক করুন”
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •