(ভিডিওসহ) মৌলভীবাজার জেলা প্রশাসনের উদ্যোগে চালু হয়েছে ‘ ট্যুরিস্ট বাস’

October 14, 2021, এই সংবাদটি ৯৩ বার পঠিত

স্টাফ রিপোর্টার॥ প্রবাসী ও পর্যটন অধ্যুষিত মৌলভীবাজারে জেলা প্রশাসনের উদ্যোগে প্রথমবারের মতো পর্যটকদের সুবিধার্থে চালু হয়েছে ট্যুরিস্ট বাস সার্ভিস। সার্বিক সহযোগিতায় থাকবে বেসরকারি প্রতিষ্ঠান ফাতেমা এন্টারপ্রাইজ।
বৃহস্পতিবার ১৪ অক্টোবর দুপুরে দেশি-বিদেশি পর্যটকদের ভ্রমণের সুবিধার্থে জেলা প্রশাসক কার্যালয় প্রাঙ্গণে ট্যুরিস্ট বাস সার্ভিসের উদ্বোধন করেন সিলেটের বিভাগীয় কমিশনার মোঃ খলিলুর রহমান।
এ সময় উপস্থিত ছিলেন জেলা প্রশাসক মীর নাহিদ আহসান, জেলা পরিষদ চেয়ারম্যান মিছবাহুর রহমান, পুলিশ সুপার মোহাম্মদ জাকারিয়া, পৌরসভার মেয়র মোঃ ফজলুর রহমান, সদর উপজেলা পরিষদ চেয়ারম্যান মোঃ কামাল হোসেন, স্থানীয় সরকারের উপ-পরিচালক মল্লিকা দে, অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক (সার্বিক ও আইসিটি) তানিয়া সুলতানা, অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক (রাজস্ব ও শিক্ষা) মোঃ মেহেদী হাসান, অতিরিক্ত জেলা ম্যাজিস্ট্রেট রুমানা ইয়াসমিন, লেডিস ক্লাবের সভাপতি কবিতা ইয়াসমিন, জেলা প্রশাসনের পর্যটন সেলের দায়িত্বে থাকা সহকারী কমিশনার নুসরাত লায়লা নীরা, জেলা শিশু বিষয়ক কর্মকর্তা মোঃ জসিম উদ্দিন মাসুদ, বিডা কর্মকর্তা নিযাজ মুরশেদসহ জেলা প্রশাসনের অন্যান্য কর্মকর্তাবৃন্দরা।
জেলা প্রশাসন সূত্রে জানা গেছে, জেলার বড়লেখা, কুলাউড়া, কমলগঞ্জ ও শ্রীমঙ্গলে রয়েছে চা বাগান, প্রাকৃতিক ঝরনা মাধবকু- জলপ্রপাত, লাউয়াছড়া জাতীয় উদ্যান, গগনটিলা পাহাড়, খাসিয়া পল্লী, হাকালুকি হাওর, মাধবপুর লেক, সিতেশ রঞ্জনের চিড়িয়াখানা, বর্ষিজোড়া ইকোপার্ক, মনু ব্যারেজ, বাইক্কা বিলসহ অনেক দর্শনীয় স্থান। এসব দেখতে ও প্রাকৃতিক দৃশ্য উপভোগ করতে প্রতিদিন অনেক দেশি-বিদেশি পর্যটক ছুটে আসে। কিন্তু যাতায়াতের সঠিক ধারণা না থাকায় পর্যটকরা দুই-চারটি স্থান দেখেই ফিরে যায়। এতে বাকি পর্যটনকেন্দ্রগুলোর সৌন্দর্য উপভোগ থেকে তারা বঞ্চিত হয়। আবার মাঝেমধ্যে বিড়ম্বনায় পড়ে তারা। কম সময় ও কম খরচে এসব পর্যটনকেন্দ্র দর্শনের ব্যবস্থা নিতেই জেলা প্রশাসন চালু করছে ‘ ট্যুরিস্ট বাস’। ৪০ সিটের দুটি বাস দিয়ে দুই প্যাকেজে এই সার্ভিস চালু হচ্ছে এবং দুটি প্যাকেজে টিকেট মিলবে।
মৌলভীবাজার জেলা প্রশাসনের পর্যটন সেলের দায়িত্বে থাকা সহকারী কমিশনার নূসরাত লায়লা নীরা জানান, ১৬ অক্টোবর শনিবার সকাল ৯ টা থেকে ‘ ট্যুরিস্ট বাস দু’টি চালু হবে। বড়লেখা ও শ্রীমঙ্গল থেকে সকাল ৯ টায় যাত্রা শুরু করবে বাস দু’টি। প্রথমদিকে সপ্তাহে দু’দিন শনিবার ও শুক্রবার চালু থাকবে বাস। পরবর্তীতে পর্যাপ্ত যাত্রী হলে ও চাহিদা থাকলে প্রতিদিনই বাস চলাচল করবে। তিনি জানান, যদি সাড়া ফেলে তবে প্রয়োজনে আরও বাস নামানো হবে। এই উদ্যোগটি সফল করতে তিনি জেলাবাসীর সার্বিক সহযোগিতা চান।
ট্যুরিস্ট বাস চলাচলে দু’টি প্যাকেজ থাকছে। প্রথম প্যাকেজের ট্যুরিস্ট বাস সকাল ৯টায় পর্যটক নিয়ে শ্রীমঙ্গল থেকে যাত্রা শুরু করবে বড়লেখার দিকে। ওই প্যাকেজের পর্যটকরা চা বাগান, গগণটিলা, মাধবকু- জলপ্রপাত ও হাকালুকি হাওরসহ অন্যান্য দর্শনীয় স্থানের সৌন্দর্য উপভোগ করতে পারবেন। ওই প্যাকেজে জনপ্রতি ভাড়া থাকছে ৩৫০ টাকা দুপুরের খাবার ছাড়া। আর দুপুরের খাবারসহ জনপ্রতি ৪০০ টাকা। আর দ্বিতীয় প্যাকেজের বাস বড়লেখা থেকে সকাল ৯ টায় যাত্রা শুরু করবে শ্রীমঙ্গলের উদ্দেশে। এই ট্যুরিস্ট বাসে ভ্রমণকারীদের কাছ থেকে ট্যুরিস্ট কেন্দ্রে প্রবেশের টিকেট ফি নেওয়া হবে না।
বাস ছাড়ার সময় কিংবা বাসে উঠার পর টিকেট সংগ্রহ করা যাবে না। যে সকল স্থানে বাসগুলো স্টপেজ দেবে বড়লেখা শ্যামলী বাস কাউন্টারের সামনে, জুড়ী চৌমহনা, কুলাউড়া পৌরসভার সামনে, রাজনগর কলেজ পয়েন্ট, মৌলভীবাজার হানিফ বাস কাউন্টার ও শ্রীমঙ্গল শ্যামলী বাস কাউন্টারের সামনে। ওই সকল স্থানে বড় ছাতা ও ব্যানার টাঙিয়ে স্থান চিহ্নিত করা হয়েছে। আর সহযোগিতায় সঙ্গে থাকবেন ট্যুর গাইড।
এ বিষয়ে ফাতেমা এন্টার প্রাইজের স্বত্বাধিকারী ও শ্রমিকনেতা ফজলুর রহমান জানান, জেলা প্রশাসনের সঙ্গে আলোচনা করে দুটি বাস দেওয়া হয়েছে। বাসগুলো প্রশাসনের তত্ত্বাবধানে বর্তমানে সপ্তাহে দুই দিন চলবে। পাশাপাশি পর্যটকদের ভ্রমণের সুবিধার্থে বাসগুলো রিজার্ভ ভাড়ায় দেওয়া হবে।
টিকেট পাওয়া যাবে শ্রীমঙ্গলের হবিগঞ্জ রোডের শ্যামলী, মৌলভীবাজারের হানিফ ও বড়লেখার শ্যামলী বাস কাউন্টারে। যোগাযোগের জন্য প্রশাসন থেকে ০১৭৭৮২৩৩০৮৫ ও ০১৭ ৭৮২৩৭৩৯২ দুটি মোবাইল ফোন নম্বর দেওয়া হয়েছে।

সংবাদটি শেয়ার করতে নিচের “আপনার প্রিয় শেয়ার বাটনটিতে ক্লিক করুন”
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •