রাজনগরে দুই পক্ষের সংঘর্ষ, গুলিবিদ্ধ-৭

May 11, 2016, এই সংবাদটি ২৯৮ বার পঠিত

রাজনগর প্রতিনিধি॥রাজনগরে দুই পক্ষে সংঘর্ষের সময় ৭ জন গুলিবিদ্ধ হয়েছেন। আহতদের আশঙ্কাজনক অবস্থায় সিলেট ওসমানি মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে পাঠানো হয়েছে। ১০ মে মঙ্গলবার দুপুরে এ ঘটনা ঘটে উপজেলার ফেঞ্চুগঞ্জ-মৌলভীবাজার সড়কের ময়নারদোকান নামক স্থানে। এলাকায় থমথমে অবস্থা বিরাজ করছে। অতিরিক্ত পুলিশ মোতায়েন করা হয়েছে।
স্থানীয়সূত্র ও পুলিশ সূত্রে জানা যায়, গতকাল সকাল সাড়ে ১২টার দিকে বিজয়ী মেম্বার এনামুল হক চৌধুরীর নেতৃত্বে একটি বিজয় মিছিল বের হয় দত্তগ্রাম থেকে। এই মিছিলটি ময়নারদোকানে নামক স্থানে এসে উপজেরা বিএনপির সাধারণ সম্পাদক এমএ হাকিম বক্স কে উদ্দেশ্য করে বিভিন্ন স্লোগান ও গালিগালাজ করা হয়। এক পর্যায়ে মিছিলটি এগিয়ে হাকিম বকসের বাড়ির দিকে এগিয়ে গেলে তিনি ও তার (হাকিম বকস) লোকজনার এগিয়ে আসেন। উভয় পক্ষ কাছাকাছি চলে আসলে এমএ হাকিম বকসের লাইসেন্স করা বন্দুক থেকে গুলি ছুঁড়লে ৭জন গুলিবিদ্ধ হন। খবর পেয়ে পুলিশ ঘটনাস্তলে আসে এবং আহতদের উদ্ধার করে প্রথমে মৌলভীবাজার ২৫০ শয্যার হাসপাতালে ও পরে সিলেট ওসমানী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে পাঠানো হয়। আহতরা হচ্ছেন- সোহেল (৪৫), জুবেল (৩২), বেলাল (২০), জিয়াউর (৩২), আতিকুর রহমান (৩০), নাজেল (৩২) ও রেজাউল ইসলাম (২৮)।
জানা যায়, উপজেলা বিএনপির সাধারণ সম্পাদক মহাসহস্্র গ্রামের এম এ হাকিম বকস সুন্দর এর সাথে রাজনগর সদর ইউনিয়নের ৫নং ওয়ার্ডের মেম্বার উপজেলা বিএনপির সহ-সাংগঠনিক সম্পাদক দত্তগ্রামের এনামুল হক চৌধুরীর মধ্যে ইউপি নির্বাচনে দলীয় চেয়ারম্যান প্রার্থীর সমর্থন নিয়ে বিরোধ ছিল। অভিযোগ আছে, এনামুল হক চৌধুরী দলীয় প্রার্থীর পক্ষে কাজ করেননি। এ নিয়ে ক্ষোভ আছে স্থানীয় বিএনপির মধ্যে। এনামুল হক চৌধুরীর অভিযোগ- গতকাল মঙ্গলবার (১০ মে) সকালে এমএ হাকিম বক্স সুন্দর মৌলভীবাজার-ফেঞ্জুগঞ্জ সড়কের ময়নারদোকান নামক স্থানে নিজের (এমএ হাকিম সুন্দর বকস) ব্যবস্যা প্রতিষ্ঠানে বসে দত্তগ্রামের ভোটারদের উদ্দেশ্য করে গালাগাল করেন। এই সময় গ্রামের কয়েকজন মুরব্বি বিষয়টি নিয়ে কথা বলতে আসেন হাকিম বক্সের সাথে। স্থানীয় গয়ঘর গ্রামের আরেক মুরব্বি বিষয়টি শেষ করে দেন। এ দিকে রাজনগর উপজেলা বিএনপির সাধারণ সম্পাদক এমএ হাকিম বকস এই অভিযোগ অস্বীকার করে বলেন, দুপুর ১২ টার দিকে নিজের বাড়ির পিছনে কাজ করছিলেন। এই সময় এনাম মেম্বারের নেতৃত্বে একটি মিছিল আসে কয়েকশত লোকের। বাড়ির কাছে এসে তার নাম ধরে কটুক্তি করলে গ্রামের লোকজন এবং আত্বীয়-স্বজনের মধ্যে উত্তেজনা দেখা দেয়। এক পর্যায় মিছিল এগিয়ে বাড়ির সড়কের সম্মুখে চলে আসলে নিজের নিরাপত্তার জন্য লাইসেন্সকৃত বন্দুক থেকে গুলি ছুঁড়েন। এখন পরিস্থিতি কিছুটা শান্ত। পুলিশ ঘটনাস্থলে অবস্থান করছে। রাজনগর থানা সূত্র জানিয়েছে, এমএ হাকিম বকসের বাড়িতে পুলিশ অভিযান চালিয়ে বন্দুক উদ্ধার করতে পারেনি।
এএসপি (কুলাউড়া সার্কেল) জুনায়েদ আলম সরকার গতকাল বিকালে জানিয়েছেন, পরিস্থিতি শান্ত আছে।

সংবাদটি শেয়ার করতে নিচের “আপনার প্রিয় শেয়ার বাটনটিতে ক্লিক করুন”
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •