রাজনগরে নির্বাচনী সহিংসতায় আহত-১১

April 30, 2016, এই সংবাদটি ২৯৭ বার পঠিত

রাজনগর প্রতিনিধি॥ মৌলভীবাজারের রাজনগর উপজেলায় পৃথক পৃথক স্থানে নির্বাচনী সহিংসতার ঘটনা ঘটেছে। এতে কমপক্ষে ১১ জন আহত হয়েছেন। গুরুতর আহতদেরকে মৌলভীবাজার ২৫০ শয্যা হাসপাতাল ও স্থানীয় উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করা হয়েছে।

স্থানীয়সূত্রে জানাযায়, শুক্রবার (২৯ এপ্রিল) রাত ৮ টার দিকে উপজেলার উত্তরভাগ ইউনিয়নের বাধঁবাজার এলাকায় ৬ নং ওয়ার্ডের বর্তমান মেম্বার ঝুনু মিয়ার সমর্থকরা প্রচারণা শেষে তার ব্যবসা প্রতিষ্ঠানের সামনে আসেন। এসময় প্রতিদ্ধন্ধি প্রার্থী হলদিগুল গ্রামের আব্দুল মনাফের সমর্থকরা বাজারে মিছিল বের করে। মিছিল থেকে আব্দুল মনাফের সমর্থকরা ঝুনু মিয়ার সমর্থকদের উপর অতর্কিত হামলা চালায়। এঘটনায় ৯ জন আহত হন। আহতরা হলেন- তেরাব আলী (৪৫), রাজু আহমদ (২১), ফরহাদ আহমদ (১৩), মিম্বর আলী (৩৫), কিবরিয়া হোসেন (২০), দিলার রহমান (৩০), সাজলু মিয়া (১৭), বাবলু মিয়া (২৮), মিজান মিয়া (২৩)। এদের মধ্যে তেরাব আলীকে উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি ও অন্যন্যদের প্রাথমিক চিকিৎসা দেয়া হয়েছে।

এদিকে রাত সাড়ে ৮ টার দিকে উপজেলার রাজনগর ইউনিয়নের নন্দীউড়া গ্রামে পূর্ব শত্রুতার জেরে ইউপি সদস্যপ্রার্থী হিরা সেন সহ ২ জন আহত হয়েছেন। স্থানীয়রা জানায়, নৌকা প্রতীকের সর্মথকরা নন্দীউড়া গ্রামের ফরাজী ইটভাটার সামনে মিছিল করে। মিছিল শেষে ওয়ারেন্টভূক্ত আসামী সঞ্জু মালাকারকে পুলিশ আটক করে। ইউপি সদস্য হিরা সেনের সাথে পূর্ব বিরোধের জেরে সঞ্জুকে পুলিশে ধরিয়ে দেয়া হয়েছে সন্দেহে  কয়েক যুবক হিরা সেনের উপর হামলা চালায়। এতে নন্দীউড়া গ্রামের আক্তার মিয়া (৪৫) নামের আরেকজন আহত হন। আহতদের মৌলভীবাজার ২৫০ শয্যা হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে।

এদিকে টেংরা ইউনিয়নে নির্বাচনী সহিংসতা ও প্রতিপক্ষ কর্মী ও সমর্থকের উপর হামলা মামলা হুমকী প্রদানসহ আচরনবিধি লঙ্গনের বিবিন্ন অভিযোগ পাওয়া গেছে। টেংরা ইউনিয়নের  চেয়ারম্যানপদ প্রার্থী বর্তমান চেয়ারম্যান টিপু খান অভিযোগ করেন  নৌকার সমর্থকরা আনারস প্রতীকের সমর্থক লকুছ মিয়া , ইরফান মিয়া ,খালেদ মিয়াকে প্রাণে মারার হুমকী প্রদান করে। এছাড়া আনারসের সমর্থক হিন্দু পরিবারবারকে বিভিন্ন ভাবে ভয়ভীতি দেখানো  হচ্ছে  তারা আতংকে  মধ্যে আছেন। তাছাড়া বিভিন্ন স্থানে পোষ্টার ও ভেনার ছিড়ে ফেলা হচ্ছে।  এমনকি ভোটের দিন ভোটের বাক্স ছিনতাই ও কেন্দ্র দখলের আগাম হুমকী দেয়া হচ্ছে। এ ব্যাপারে সংশ্লিষ্ট রিটারনিং অফিসারের বরাবরে লিখিত  অভিযোগ করেছেন।

রাজনগর থানার ওসি আব্দুল বাছেদ ঘটনার সত্যতা স্বীকার করে জানান, খবর পেয়ে পুলিশ ঘটনাস্থল দু’টিতে গিয়েছে। থানায় কেউ অভিযোগ করেননি। অভিযোগ পেলে ব্যবস্থা নেয়া হবে।

 

সংবাদটি শেয়ার করতে নিচের “আপনার প্রিয় শেয়ার বাটনটিতে ক্লিক করুন”
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •