শেরপুর হাইওয়ে পুলিশ ও পরিবহন শ্রমিকের মধ্যে ধাওয়া পাল্টা ধাওয়া

September 1, 2021, এই সংবাদটি ১০০ বার পঠিত

স্টাফ রিপোর্টার॥ মৌলভীবাজারের শেরপুর হাইওয়ে থানা পুলিশ ও পরিবহন শ্রমিকের মধ্যে ধাওয়া পাল্টা ধাওয়ার ঘটনা ঘটেছে। এতে এক পুলিশ সদস্য ও তিন ব্যক্তি শারীরিক নির্যাতনের শিকার হয়েছে। এসময় প্রায় ঘন্টা ব্যাপি ঢাকা-সিলেট মহাসড়কে যান চলাচল বন্ধ ছিল। ঘটনাটি ঘটেছে বুধবার ১ সেপ্টেম্বর বিকেলে।
পুলিশ ও স্থানীয় সূত্র জানায়, শ্রীমঙ্গল থেকে সিলেটগামী পদ্মওয়েল কোম্পানির একটি দ্রুত গতির ট্যাঙ্কলরি গাড়ি আসার পথে সরকার বাজার নামক স্থানে একটি অটোরিক্সাকে ধাক্কা দিয়ে চলে আসে। সংবাদ পেয়ে শেরপুর হাইওয়ে থানা পুলিশ ‘শেরপুর মুক্তিযোদ্ধা চত্বর’ এলাকায় ওই গাড়িটিকে আটক করে চালককে নামানোর চেষ্টা করে।
একপর্যায়ে পুলিশ চালককে নামাতে ব্যর্থ হলে হাইওয়ে পুলিশের দিদার নামের এক সদস্য ওই ট্যাঙ্কলরি চালককে থাপ্পর মারে। এসময় উপস্থিত শেরপুর শাখার কিছু পরিবহন শ্রমিক ট্যাঙ্কলরি চালকের পক্ষ নিলে ওই পুলিশ সদস্য লাঞ্চিতের ঘটনা ঘটে। এতে দু’টি ট্যাঙ্কলরি গাড়ির লুকিং গ্লাস ভাংচুর ও লাঠিচার্জ চালিয়ে চালক কামাল ও কাউছার আহত সহ প্রায় ঘন্টা ব্যাপি ঢাকা-সিলেট মহাসড়কে যান চলাচল সাময়িক বন্ধ ছিল।
বিকাল ৫টায় সিলেট ট্যাঙ্কলরি শ্রমিক সংগঠনের সভাপতি মনির মিয়াসহ কয়েকজন নেতা ও স্থানীয় শেরপুর ফেরিঘাট শাখার নেতৃবৃন্দের সমন্বয়ে শেরপুর হাইওয়ে থানায় পুলিশের পক্ষে ওসি (তদন্ত) সেলিম উদ্দিন ও এসআই শফিক শ্রমিকদের নিয়ে সমঝোতা বৈঠক বসে ওই বিষয়ে মীমাংসা হয়।
এব্যপারে শেরপুর হাইওয়ে থানার ওসি (তদন্ত) সেলিম উদ্দিন জানান পরিবহন শ্রমিক ও শেরপুর মুক্তিযোদ্ধা চত্বরে দায়িত্বরত পুলিশের মধ্যে ভুল বুঝাবুঝির কারনে সাময়িক উত্তেজনার সৃষ্টি হয়েছিল। পরবর্তীতে শ্রমিকের সাথে সমঝোতা বৈঠকে তা মীমাংসা হয়ে গেছে।

 

সংবাদটি শেয়ার করতে নিচের “আপনার প্রিয় শেয়ার বাটনটিতে ক্লিক করুন”
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •