৪ জুন মৌলভীবাজার সদর উপজেলার ১২টি ইউনিয়নে নির্বাচন, ৮১ কেন্দ্র ঝুঁকিপূর্ণ

June 4, 2016, এই সংবাদটি ২০১ বার পঠিত

হোসাইন আহমদ॥ ৬জুন ৬ষ্ঠ ধাপে মৌলভীবাজার সদর উপজেলার ১২টি ইউনিয়নে নির্বাচন অনুষ্ঠিত হবে। এ উপলক্ষে ভোট গ্রহণের সব ধরণের প্রস্তুতি সম্পন্ন হয়েছে। ইতি মধ্যে পুলিশ প্রশাসন ১১৩টি কেন্দ্রের মধ্যে ৮১টি কেন্দ্রকে অধিক ঝুঁকিপূর্ণ বলে চিহ্নিত করেছেন।
১২টি ইউনিয়নে চেয়ারম্যান পদে ৫৩, সংরক্ষিত মহিলা আসনে ১২৩ ও সাধারণ সদস্য পদে ৪২১ জন প্রতিদ্বন্দ্বিতা করছেন। উপজেলা নির্বাচন কর্মকর্তা জিল্লুর রহমান জানান, নির্বাচন অনুষ্ঠানের জন্য সকল প্রন্তুতি ইতি মধ্যে সম্পন্ন হয়েছে। ১২টি ইউনিয়নে কেন্দ্র স্থাপন করা হবে ১১৩টি ও বুথ থাকবে ৪৯৫টি। মোট ভোটার ১ লাখ ৮৫ হাজার ৫৮৭ জন। তন্মধ্যে পুরুষ ৯২ হাজার ৯৩৬ জন। আর মহিলা ৯২ হাজার ৬৮১ জন।
মৌলভীবাজার মডেল থানার অফিসার ইনচার্জ আকিল উদ্দিন বলেন, আমাদের কাছে মনে হচ্ছে ১১৩টি কেন্দ্রের মধ্যে ৮১টি কেন্দ্র অধিক ঝুঁকিপূর্ণ। তিনি বলেন, আমরা সকল কেন্দ্রকে সমান গুরুত্ব দিব তবে অধিক ঝুঁকিপূর্ণ কেন্দ্রকে বেশি গুরুত্ব দেওয়া হবে যাতে কোন অপ্রীতিকর ঘটনা না ঘটে। অবাধ, সুষ্ট, গ্রহণ যোগ্য ও নিরপক্ষ নির্বাচন উপহার দেওয়ার জন্য আমরা সর্বাত্রক শক্তি প্রয়োগ করব।
দলীয় প্রার্থীদের সমর্থনে আওয়ামীলীগ ও বিএনপির শীর্ষস্থানীয় নেতাকর্মীরা শেষ সময়ে নিজেদের প্রার্থীকে বিজয়ী করার জন্য গ্রাম থেকে গ্রামান্তরে জোর প্রচারণা চালাচ্ছেন। প্রচারণার শেষ সময়ে জেলা পর্যায়ের অনেক নেতাকর্মীদেরকে নির্ঘুম দিবা-রাত্রি কাঠাতে দেখা গেছে।
সদর উপজেলার মোস্তফাপুর, চাঁদনীঘাট, কনকপুর, গিয়াসনগর, খলিলপুর, মনুরমুখ, আপারকাগাবলা, নাজিরাবাদ, খলিলপুর, আখাইলকুড়া, আমতৈল ও কামালপুর এই ১২টি ইউনিয়নে নির্বাচন অনুষ্ঠিত হচ্ছে। এ ইউনিয়নের ভোটারদের মধ্যে আনন্দ ও আমেজ বিরাজ করছে। এবার দলীয় প্রতীকে নির্বাচন হওয়ায় অনেক ভোটারদের মধ্যে মিশ্রপ্রতিক্রিয়া বিরাজ করছে। অনেকেই এই সিদ্ধান্তকে স্বাগত জানিয়েছেন। আবার অনেক ভোটার মনক্ষুন্ন হয়েছেন।
এবারের নির্বাচনে একাধিক চেয়ারম্যান প্রার্থী থাকলেও লড়াই হবে মুলত নৌকা ও ধানের শীষ প্রতিকের মধ্যে। তবে দু’একটি ইউনিয়নে স্বতন্ত্রপ্রার্থী শক্ত অবস্থানে রয়েছেন।

সংবাদটি শেয়ার করতে নিচের “আপনার প্রিয় শেয়ার বাটনটিতে ক্লিক করুন”
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •