কমলগঞ্জে সন্ত্রাসী হামলায় জাসাস নেতা গুরুত্বর আহত ॥ মুঠোফোন, নগদ অর্থ ও স্বর্ণের চেইন ছিনতাই

September 1, 2013, এই সংবাদটি ৩৩৪ বার পঠিত

চিহিৃত ছাত্রলীগ সন্ত্রাসী ইব্রাহীমের হত্যা, ধর্ষন ও নানা নির্যাতনে অতিষ্ট কমলগঞ্জবাসী। ১ সেপ্টেম্বর শনিবার রাত সাড়ে ৮ মৌলভীবাজারের কমলগঞ্জে পথরোধ করে খুর দিয়ে মারাত্মকভাবে জখম করে জাতীয়তাবাদী সাংস্কৃতিক সংস্থা (জাসাস)র এক নেতার মুঠোফোন, নগদ অর্থ ও স্বর্ণের চেইন ছিনতাই করে নিয়ে যায় চি‎িহ্নত সন্ত্রাসী ইব্রাহীম। গুরুতর আহতাবস্থায় জাসাস নেতাকে মৌলভীবাজার সদর হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। ঘটনাটি কমলগঞ্জ-শ্রীমঙ্গল সড়কের ফুলবাড়ি চা বাগান এলাকায় ঘটে। মৌলভীবাজার সদর হাসপাতালে চিকিৎসাধীন জাসাস কমলগঞ্জ পৌরসভার আহ্বায়ক সানুর আলী(২৫) অভিযোগ করে বলেন, শনিবার রাত সাড়ে ৮টায় তিনি শ্রীমঙ্গল থেকে কমলগঞ্জে ফেরার পথে কমলগঞ্জ উপজেলা ছাত্রলীগের কর্মী সন্ত্রাসী ইব্রাহীম আলী পথরোধ করে দাঁড়ায়। ইব্রাহীম আলী ও তার সঙ্গীরা জোর পূর্বক তার(সানুরের) কাছ থেকে একটি মুঠোফোন, নগদ দুই হাজার টাকা ও একটি স্বর্ণের চেইন ছিনিয়ে নেয়। এ ঘটনার প্রতিবাদ করায় ইব্রাহীম আলী একটি খুর দিয়ে স্বজোরে টান দিয়ে মারাত্মকভাবে আহত করে। ঘটনার পর পথচারীরা তাকে(সানুরকে) উদ্ধার প্রথমে কমলগঞ্জ উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করেন। অবস্থা আশঙ্কা জনক হওয়ায় রাতেই মৌলভীবাজার সদর হাসপাতালে স্থানান্তর করা হয়। আহত সানুরের দেহে ৬০টি সেলাই লেগেছে। এ ব্যাপারে জাসাস নেতা একটি মামলা করার প্রস্তুতি নিচ্ছেন বলেও জানান। তাছাড়াও চিহিৃত ছাত্রলীগ সন্ত্রাসী ইব্রাহীমের বিরোধে হত্যা, ধর্ষন ও নানা নির্যাতনে অভিযোগে মামলা থাকার পরও গ্রেপ্তার করছে না পুলিশ। নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক এক ছাত্রলীগ নেতা ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করে বলেন, এগুলো ইব্রাহীমের নিয়মিত কাজ। ইব্রাহীমের সন্ত্রাসী কর্মকান্ডে আ,লীগ ও তার অংগ সংগঠনের ভাবমূর্তি নষ্ট হচ্ছে। প্রায় এক মাস আগেও ্ইব্রাহীম আলী একজন দরিদ্র চা বিক্রেতাকে কূপিয়ে জখম করেছিল। কমলগঞ্জ থানার অফিসার ইনচার্জ নিহার রঞ্জন নাথ রবিবারের সন্ধ্যায় জানান এ ঘটনায় এখনো কোন অভিযোগ পাইনি। অভিযোগ করা হলে আইনানুগ ব্যবস্থা গ্রহন করা হবে।
চিহিৃত ছাত্রলীগ সন্ত্রাসী ইব্রাহীমের হত্যা, ধর্ষন ও নানা নির্যাতনে অতিষ্ট কমলগঞ্জবাসী। ১ সেপ্টেম্বর শনিবার রাত সাড়ে ৮ মৌলভীবাজারের কমলগঞ্জে পথরোধ করে খুর দিয়ে মারাত্মকভাবে জখম করে জাতীয়তাবাদী সাংস্কৃতিক সংস্থা (জাসাস)র এক নেতার মুঠোফোন, নগদ অর্থ ও স্বর্ণের চেইন ছিনতাই করে নিয়ে যায় চি‎িহ্নত সন্ত্রাসী ইব্রাহীম। গুরুতর আহতাবস্থায় জাসাস নেতাকে মৌলভীবাজার সদর হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। ঘটনাটি কমলগঞ্জ-শ্রীমঙ্গল সড়কের ফুলবাড়ি চা বাগান এলাকায় ঘটে। মৌলভীবাজার সদর হাসপাতালে চিকিৎসাধীন জাসাস কমলগঞ্জ পৌরসভার আহ্বায়ক সানুর আলী(২৫) অভিযোগ করে বলেন, শনিবার রাত সাড়ে ৮টায় তিনি শ্রীমঙ্গল থেকে কমলগঞ্জে ফেরার পথে কমলগঞ্জ উপজেলা ছাত্রলীগের কর্মী সন্ত্রাসী ইব্রাহীম আলী পথরোধ করে দাঁড়ায়। ইব্রাহীম আলী ও তার সঙ্গীরা জোর পূর্বক তার(সানুরের) কাছ থেকে একটি মুঠোফোন, নগদ দুই হাজার টাকা ও একটি স্বর্ণের চেইন ছিনিয়ে নেয়। এ ঘটনার প্রতিবাদ করায় ইব্রাহীম আলী একটি খুর দিয়ে স্বজোরে টান দিয়ে মারাত্মকভাবে আহত করে। ঘটনার পর পথচারীরা তাকে(সানুরকে) উদ্ধার প্রথমে কমলগঞ্জ উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করেন। অবস্থা আশঙ্কা জনক হওয়ায় রাতেই মৌলভীবাজার সদর হাসপাতালে স্থানান্তর করা হয়। আহত সানুরের দেহে ৬০টি সেলাই লেগেছে। এ ব্যাপারে জাসাস নেতা একটি মামলা করার প্রস্তুতি নিচ্ছেন বলেও জানান। তাছাড়াও চিহিৃত ছাত্রলীগ সন্ত্রাসী ইব্রাহীমের বিরোধে হত্যা, ধর্ষন ও নানা নির্যাতনে অভিযোগে মামলা থাকার পরও গ্রেপ্তার করছে না পুলিশ। নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক এক ছাত্রলীগ নেতা ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করে বলেন, এগুলো ইব্রাহীমের নিয়মিত কাজ। ইব্রাহীমের সন্ত্রাসী কর্মকান্ডে আ,লীগ ও তার অংগ সংগঠনের ভাবমূর্তি নষ্ট হচ্ছে। প্রায় এক মাস আগেও ্ইব্রাহীম আলী একজন দরিদ্র চা বিক্রেতাকে কূপিয়ে জখম করেছিল। কমলগঞ্জ থানার অফিসার ইনচার্জ নিহার রঞ্জন নাথ রবিবারের সন্ধ্যায় জানান এ ঘটনায় এখনো কোন অভিযোগ পাইনি। অভিযোগ করা হলে আইনানুগ ব্যবস্থা গ্রহন করা হবে। কমলগঞ্জ প্রতিনিধি॥

সংবাদটি শেয়ার করতে নিচের “আপনার প্রিয় শেয়ার বাটনটিতে ক্লিক করুন”
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •