শিমুল বিশ্বাসের বিরুদ্ধে দায়েরকৃত মিথ্যা মামলা প্রত্যাহার ও নিঃর্শত মুক্তির দাবীতে মৌলভীবাজারে শ্রমিক ধর্মঘট ও বিক্ষোভ মিছিল

November 21, 2013, এই সংবাদটি ২৫৩ বার পঠিত

বাংলাদেশ সড়ক পরিবহন শ্রমিক ফেডারেশন কেন্দ্রীয় কমিটির যুগ্ম সাধারণ স¤পাদক সামছুর রহমান শিমুল বিশ্বাসের বিরুদ্ধে দায়েরকৃত মিথ্যা মামলা প্রত্যাহার ও নিঃর্শত মুক্তির দাবীতে কেন্দ্রীয় কর্মসূচী অংশ হিসেবে মৌলভীবাজারে শ্রমিক ধর্মঘট, বিক্ষোভ মিছিল ও সমাবেশ অনুষ্টিত হয় বাস-মিনিবাস শ্রমিক ইউনিয়ন ১২২৩ ও অটো টেম্পু শ্রমিক ইউনিয়ন ২৩৫৯ যৌথ উদ্দ্যেগে। শ্রমিকরা শহরের প্রতিটি রাস্তায় গাড়ি আটক করে যাত্রীদের নামিয়ে এতে চরম ভোগান্তিতে পড়তে হয় শিক্ষার্থী, পরীক্ষার্থীসহ সাধারণ মানুষকে। ২১ নভেম্বর বৃহস্পতিবার দুপুরে সদর থানা শ্রমিক দলের সভাপতি ও জেলা অটো টেম্পু শ্রমিক ইউনিয়নের সাধারন সম্পাদক আজিজুল হক সেলিমের সভাপতিত্বে ও আব্দুর রহমান গাজীর পরিচালনায় পশ্চিমবাজার এলাকা থেকে একটি বিক্ষোভ মিছিল শহরের গুরুত্বপূর্ন সড়ক প্রদক্ষিন করে চৌমুহনা চত্ত্বরে গিয়ে শেষ হয়। মিছিল শেষে এক সংক্ষিপ্ত সমাবেশে প্রধান অতিথির বক্তব্য রাখেন, মৌলভীবাজার জেলা শ্রমিক দলের সভাপতি রফিকুল ইসলাম রসিক। বিশেষ অতিথির বক্তব্য রাখেন বাস-মিনিবাস শ্রমিক ইউনিয়নের সভাপতি এখলাছুর রহমান, সাধারন সম্পাদক সালেহ আহমদ ও কয়েছ আহমদ প্রমুখ। এ সময় উপস্থিত ছিলেন শ্রমিক নেতা আনোয়ার হোসেন, ইকবাল হোসেন মাহমুদ, সামছু মিয়া, ফজিল মিয়া, ওয়ারিছ মিয়া, সুন্দর মিয়া, ময়না মিয়া, বেলাল আহমদ, সেলিম আহমদ, আহাদ মিয়া, মনির মিয়া, শাওন মিয়া, ভুটু মিয়া, জসিম মিয়া, সহিদ মিয়াসহ জেলার সর্বস্তরের নেতাকর্মীগন। বক্তরা বলেন, অভিলম্বে কেন্দ্রীয় কমিটির যুগ্ম সাধারণ স¤পাদক সামছুর রহমান শিমুল বিশ্বাসকে নিঃর্শত মুক্তি না দিলে কেন্দ্রীয় কর্মসূচীর মাধ্যমে কঠোর আন্দোলন আহবান করা হবে। উল্লেখ্য, সারাদেশে চলছে ২৪ ঘন্টার পরিবহণ ধর্মঘট। বৃহ¯পতিবার সকাল ৬টা থেকে শুক্রবার সকাল ৬টা পর্যন্ত এ পরিবহণ ধর্মঘট চলবে। বিরোধী দলীয় নেত্রী খালেদা জিয়ার বিশেষ সহকারী ও পরিবহণ শ্রমিক ফেডারেশন নেতা শামছুর রহমান শিমুল বিশ্বাসের মুক্তির দাবিতে শ্রমিক সংগঠনটি এ পরিবহণ ধর্মঘটের ডাক দেয়। এদিকে ধর্মঘটে সারাদেশে চরম ভোগান্তিতে পড়েছে শিক্ষার্থী, পরীক্ষার্থীসহ সাধারণ মানুষ। বিশেষ করে বিভিন্ন বিশ্ববিদ্যালয়ে ভর্তিচ্ছুদের সবচেয়ে বেশী ভোগান্তিতে পড়তে হচ্ছে। দিনের পাশাপাশি রাতেও ধর্মঘট থাকায় ভোগান্তি আরও বেড়েছে।
বাংলাদেশ সড়ক পরিবহন শ্রমিক ফেডারেশন কেন্দ্রীয় কমিটির যুগ্ম সাধারণ স¤পাদক সামছুর রহমান শিমুল বিশ্বাসের বিরুদ্ধে দায়েরকৃত মিথ্যা মামলা প্রত্যাহার ও নিঃর্শত মুক্তির দাবীতে কেন্দ্রীয় কর্মসূচী অংশ হিসেবে মৌলভীবাজারে শ্রমিক ধর্মঘট, বিক্ষোভ মিছিল ও সমাবেশ অনুষ্টিত হয় বাস-মিনিবাস শ্রমিক ইউনিয়ন ১২২৩ ও অটো টেম্পু শ্রমিক ইউনিয়ন ২৩৫৯ যৌথ উদ্দ্যেগে। শ্রমিকরা শহরের প্রতিটি রাস্তায় গাড়ি আটক করে যাত্রীদের নামিয়ে এতে চরম ভোগান্তিতে পড়তে হয় শিক্ষার্থী, পরীক্ষার্থীসহ সাধারণ মানুষকে। ২১ নভেম্বর বৃহস্পতিবার দুপুরে সদর থানা শ্রমিক দলের সভাপতি ও জেলা অটো টেম্পু শ্রমিক ইউনিয়নের সাধারন সম্পাদক আজিজুল হক সেলিমের সভাপতিত্বে ও আব্দুর রহমান গাজীর পরিচালনায় পশ্চিমবাজার এলাকা থেকে একটি বিক্ষোভ মিছিল শহরের গুরুত্বপূর্ন সড়ক প্রদক্ষিন করে চৌমুহনা চত্ত্বরে গিয়ে শেষ হয়। মিছিল শেষে এক সংক্ষিপ্ত সমাবেশে প্রধান অতিথির বক্তব্য রাখেন, মৌলভীবাজার জেলা শ্রমিক দলের সভাপতি রফিকুল ইসলাম রসিক। বিশেষ অতিথির বক্তব্য রাখেন বাস-মিনিবাস শ্রমিক ইউনিয়নের সভাপতি এখলাছুর রহমান, সাধারন সম্পাদক সালেহ আহমদ ও কয়েছ আহমদ প্রমুখ। এ সময় উপস্থিত ছিলেন শ্রমিক নেতা আনোয়ার হোসেন, ইকবাল হোসেন মাহমুদ, সামছু মিয়া, ফজিল মিয়া, ওয়ারিছ মিয়া, সুন্দর মিয়া, ময়না মিয়া, বেলাল আহমদ, সেলিম আহমদ, আহাদ মিয়া, মনির মিয়া, শাওন মিয়া, ভুটু মিয়া, জসিম মিয়া, সহিদ মিয়াসহ জেলার সর্বস্তরের নেতাকর্মীগন। বক্তরা বলেন, অভিলম্বে কেন্দ্রীয় কমিটির যুগ্ম সাধারণ স¤পাদক সামছুর রহমান শিমুল বিশ্বাসকে নিঃর্শত মুক্তি না দিলে কেন্দ্রীয় কর্মসূচীর মাধ্যমে কঠোর আন্দোলন আহবান করা হবে। উল্লেখ্য, সারাদেশে চলছে ২৪ ঘন্টার পরিবহণ ধর্মঘট। বৃহ¯পতিবার সকাল ৬টা থেকে শুক্রবার সকাল ৬টা পর্যন্ত এ পরিবহণ ধর্মঘট চলবে। বিরোধী দলীয় নেত্রী খালেদা জিয়ার বিশেষ সহকারী ও পরিবহণ শ্রমিক ফেডারেশন নেতা শামছুর রহমান শিমুল বিশ্বাসের মুক্তির দাবিতে শ্রমিক সংগঠনটি এ পরিবহণ ধর্মঘটের ডাক দেয়। এদিকে ধর্মঘটে সারাদেশে চরম ভোগান্তিতে পড়েছে শিক্ষার্থী, পরীক্ষার্থীসহ সাধারণ মানুষ। বিশেষ করে বিভিন্ন বিশ্ববিদ্যালয়ে ভর্তিচ্ছুদের সবচেয়ে বেশী ভোগান্তিতে পড়তে হচ্ছে। দিনের পাশাপাশি রাতেও ধর্মঘট থাকায় ভোগান্তি আরও বেড়েছে। স্টাফ রিপোর্টার॥

সংবাদটি শেয়ার করতে নিচের “আপনার প্রিয় শেয়ার বাটনটিতে ক্লিক করুন”
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •