কমলগঞ্জ ও শ্রীমঙ্গলে মনোনয়ন পত্র জমা দিলেন চিফ হুইপ উপাধ্যক্ষ আব্দুস শহীদ

December 2, 2013, এই সংবাদটি ২৭৪ বার পঠিত

১০ম জাতীয় সংসদ নির্বাচনে ২৩৮ মৌলভীবাজার-৪ (কমলগঞ্জ আংশিক ও শ্রীমঙ্গল) আসন থেকে ৫ম বারের মত বাংলাদেশ আওয়ামীলীগ মনোনীত প্রার্থী হিসেবে মনোনয়ন পত্র জমা দিয়েছেন বাংলাদেশ জাতীয় সংসদের চিফ হুইপ ও মৌলভীবাজার জেলা আওয়ামীলীগ সভাপতি উপাধ্যক্ষ মো. আব্দুস শহীদ এমপি। ২ ডিসেম্বর সোমবার নির্বাচন কমিশন কর্তৃক ঘোষিত মনোনয়ন পত্র জমা দেওয়ার শেষ দিন বেলা ৩ টায় শ্রীমঙ্গল ও বেলা ৪ টায় কমলগঞ্জে মনোনয়ন পত্র জমা দেন উপাধ্যক্ষ মো: আব্দুস শহীদ। এ সময় দলীয় নেতা কর্মীরা নেচে গেয়ে আনন্দ উল¬াস প্রকাশ করেন। সহকারী রিটার্নিং কর্মকর্তা হিসেবে কমলগঞ্জে মনোনয়নপত্র জমা নেন উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মোহাম্মদ জাহিদুল ইসলাম মিঞা। শ্রীমঙ্গলে মনোনয়ন পত্র জমা নেন উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মো. আশফাকুল হক। মনোনয়ন পত্র জমা দানের সময় উপস্থিত ছিলেন কমলগঞ্জ উপজেলা আওয়ামীলীগ সভাপতি এম, মোছাদ্দেক আহমেদ মানিক, সাধারণ সম্পাদক অধ্যাপক মো. রফিকুর রহমান, সহ-সভাপতি আছলম ইকবাল মিলন, যুগ্ম-সম্পাদক ছিদ্দেক আলী, সাংগঠনিক সম্পাদক রহিমপুর ইউপি চেয়ারম্যান ইফতেখার আহমেদ বদরুল, অধ্যাপক হারুন-অর রশীদ ভুঞা, সদস্য অধ্যক্ষ মো হেলাল উদ্দিন, উপজেলা বিআরডিবি চেয়ারম্যান মো. ইমতিয়াজ আহমেদ বুলবুল, উপজেলা যুবলীগ সভাপতি মো. আনোয়ার হোসেন, সম্পাদক মোশাইদ আলী, যুগ্ম-সম্পাদক জুয়েল আহমেদ, ছাত্রলীগ সভাপতি সানোয়ার হোসেন, সম্পাদক সায়েদুল আলম, সহ-সভাপতি আনোয়ার পারভেজ আলাল, শ্রীমঙ্গল উপজেলা আওয়ামীলীগ সভাপতি আব্দুল মনির, উপজেলা পরিষদ ভাইস চেয়ারম্যান তোফজ্জেল হোসেন ফয়েজ, শ্রীমঙ্গল ইউপি চেয়ারম্যান ভানুলাল রায়সহ দলীয় নেতা কর্মীরা। এদিকে গতকাল সোমবার কমলগঞ্জ ও শ্রীমঙ্গল উপজেলায় আর কোন প্রার্থী মনোনয়নপত্র দাখিল করেননি। সন্ধ্যা সাড়ে ৭টায় মোবাইল ফোনে আলাপকালে মৌলভীবাজারের জেলা প্রশাসক মো: কামরুল হাসান জানান, সোমবার মনোনয়নপত্র দাখিলের শেষদিনে ২৩৮ মৌলভীবাজার-৪ (কমলগঞ্জ আংশিক ও শ্রীমঙ্গল) আসনে আওয়ামীলীগ প্রার্থী উপাধ্যক্ষ মো. আব্দুস শহীদ ছাড়া আর কেউ মনোনয়নপত্র জমা দেননি। ২৩৮ মৌলভীবাজার-৪ (কমলগঞ্জ আংশিক ও শ্রীমঙ্গল) আসন থেকে উপাধ্যক্ষ মো: আব্দুস শহীদ একক প্রার্থী হলে সম্ভবত তিনি বিনা প্রতিদ্বন্দিতায় নির্বাচিত হতে যাচ্ছেন বলে আওয়ামীলীগ সূত্র মনে করছে।
১০ম জাতীয় সংসদ নির্বাচনে ২৩৮ মৌলভীবাজার-৪ (কমলগঞ্জ আংশিক ও শ্রীমঙ্গল) আসন থেকে ৫ম বারের মত বাংলাদেশ আওয়ামীলীগ মনোনীত প্রার্থী হিসেবে মনোনয়ন পত্র জমা দিয়েছেন বাংলাদেশ জাতীয় সংসদের চিফ হুইপ ও মৌলভীবাজার জেলা আওয়ামীলীগ সভাপতি উপাধ্যক্ষ মো. আব্দুস শহীদ এমপি। ২ ডিসেম্বর সোমবার নির্বাচন কমিশন কর্তৃক ঘোষিত মনোনয়ন পত্র জমা দেওয়ার শেষ দিন বেলা ৩ টায় শ্রীমঙ্গল ও বেলা ৪ টায় কমলগঞ্জে মনোনয়ন পত্র জমা দেন উপাধ্যক্ষ মো: আব্দুস শহীদ। এ সময় দলীয় নেতা কর্মীরা নেচে গেয়ে আনন্দ উল¬াস প্রকাশ করেন। সহকারী রিটার্নিং কর্মকর্তা হিসেবে কমলগঞ্জে মনোনয়নপত্র জমা নেন উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মোহাম্মদ জাহিদুল ইসলাম মিঞা। শ্রীমঙ্গলে মনোনয়ন পত্র জমা নেন উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মো. আশফাকুল হক। মনোনয়ন পত্র জমা দানের সময় উপস্থিত ছিলেন কমলগঞ্জ উপজেলা আওয়ামীলীগ সভাপতি এম, মোছাদ্দেক আহমেদ মানিক, সাধারণ সম্পাদক অধ্যাপক মো. রফিকুর রহমান, সহ-সভাপতি আছলম ইকবাল মিলন, যুগ্ম-সম্পাদক ছিদ্দেক আলী, সাংগঠনিক সম্পাদক রহিমপুর ইউপি চেয়ারম্যান ইফতেখার আহমেদ বদরুল, অধ্যাপক হারুন-অর রশীদ ভুঞা, সদস্য অধ্যক্ষ মো হেলাল উদ্দিন, উপজেলা বিআরডিবি চেয়ারম্যান মো. ইমতিয়াজ আহমেদ বুলবুল, উপজেলা যুবলীগ সভাপতি মো. আনোয়ার হোসেন, সম্পাদক মোশাইদ আলী, যুগ্ম-সম্পাদক জুয়েল আহমেদ, ছাত্রলীগ সভাপতি সানোয়ার হোসেন, সম্পাদক সায়েদুল আলম, সহ-সভাপতি আনোয়ার পারভেজ আলাল, শ্রীমঙ্গল উপজেলা আওয়ামীলীগ সভাপতি আব্দুল মনির, উপজেলা পরিষদ ভাইস চেয়ারম্যান তোফজ্জেল হোসেন ফয়েজ, শ্রীমঙ্গল ইউপি চেয়ারম্যান ভানুলাল রায়সহ দলীয় নেতা কর্মীরা। এদিকে গতকাল সোমবার কমলগঞ্জ ও শ্রীমঙ্গল উপজেলায় আর কোন প্রার্থী মনোনয়নপত্র দাখিল করেননি। সন্ধ্যা সাড়ে ৭টায় মোবাইল ফোনে আলাপকালে মৌলভীবাজারের জেলা প্রশাসক মো: কামরুল হাসান জানান, সোমবার মনোনয়নপত্র দাখিলের শেষদিনে ২৩৮ মৌলভীবাজার-৪ (কমলগঞ্জ আংশিক ও শ্রীমঙ্গল) আসনে আওয়ামীলীগ প্রার্থী উপাধ্যক্ষ মো. আব্দুস শহীদ ছাড়া আর কেউ মনোনয়নপত্র জমা দেননি। ২৩৮ মৌলভীবাজার-৪ (কমলগঞ্জ আংশিক ও শ্রীমঙ্গল) আসন থেকে উপাধ্যক্ষ মো: আব্দুস শহীদ একক প্রার্থী হলে সম্ভবত তিনি বিনা প্রতিদ্বন্দিতায় নির্বাচিত হতে যাচ্ছেন বলে আওয়ামীলীগ সূত্র মনে করছে। কমলগঞ্জ প্রতিনিধি॥

সংবাদটি শেয়ার করতে নিচের “আপনার প্রিয় শেয়ার বাটনটিতে ক্লিক করুন”
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •