গনমাধ্যমে সংবাদ প্রকাশের পর বড়লেখায় পিডিবির ঝুঁকিপূর্ণ বিদ্যুৎ লাইনের সংস্কার শুরু

September 4, 2021, এই সংবাদটি ৭৮ বার পঠিত

আব্দুর রব॥ বড়লেখা উপজেলার কাশেমনগর এলাকায় পিডিবির দীর্ঘদিনের জরাজীর্ণ ও ঝুঁকিপূর্ণ বিদ্যুৎ লাইনের সংস্কার কাজ পূণরায় শুরু করেছে পিডিবি নিয়োজিত সংশ্লিষ্ট ঠিকাদার। সমপ্রতি বিভিন্ন গনমাধ্যমে ‘পিডিবির বিধিবহির্ভূত সংযোগ-বড়লেখায় ঝুঁকিতে ৫ শতাধিক বিদ্যুৎ গ্রাহক’ শিরোনামে একটি সংবাদ ছাপা হলে বিদ্যুৎ উন্নয়ন বোর্ডের টনক নড়ে। প্রায় ৩ বছর আগে লাইনের সংস্কার কাজের টেন্ডার পাওয়া সংশ্লিষ্ট ঠিকাদার গত ১ সেপ্টেম্বর থেকে সংস্কার কাজ শুরু করেছে।
জানা গেছে, বড়লেখার কাশেমনগর এলাকায় বিদ্যুৎউন্নয়ন বোর্ডের (পিডিবি) বিদ্যুৎ সরবরাহের অব্যবস্থাপনায় ৫ শতাধিক গ্রাহক মৃত্যুঝুঁকি নিয়ে বিদ্যুৎ ব্যবহার করছেন। বিদ্যুৎ আইনের পরিপন্থী নিউটেল লাইন ছাড়াই সিঙ্গেল ফেইসে ১৫-১৬ বছর ধরে জরাজীর্ণ বাঁশের-কাঠের খুঁটিতে মাথা পরিমাণ উচ্চতায় ও জীবন্ত গাছে তার টেনে সংযোগ প্রদান করা হয়। প্রায় ৩ বছর আগে পিডিবি নিয়োজিত ঠিকাদার নতুন লাইন নির্মাণের কাজ মাঝপথে বন্ধ করে দেয়। এতে গ্রাহকরা পড়েন দূর্ভোগে। লো-ভোল্টেজ সমস্যাসহ মারাত্মক ঝুঁকি নিয়ে বিদ্যুৎ ব্যবহার করতে থাকেন।
৩ সেপ্টেম্বর শুক্রবার সকালে সরেজমিনে কাশেমনগর এলাকায় গিয়ে দীর্ঘদিন ধরে ঝুলে থাকা ঝুঁকিপূর্ণ এলটি লাইন স্থাপনের কাজ চলতে দেখা গেছে। ঠিকাদারী প্রতিষ্ঠান সোহাগ এন্টারপ্রাইজের প্রতিনিধি মূর্শেদ আলম জানান, ২০২০ সালে কাজের নির্ধারিত মেয়াদ শেষ হয়। কিন্তু তারা কাজ সম্পন্ন করতে পারেননি। গত ১ সেপ্টেম্বর থেকে তারা লাইনের সংস্কার কাজ পূণরায় শুরু করেছেন।
পিডিবির সহকারী প্রকৌশলী মফিজ উদ্দিন খান জানান, গণমাধ্যমে এসংক্রান্ত সংবাদ প্রকাশের পর পিডিবির উর্ধ্বতন কর্মকর্তারা লাইন নির্মাণের দায়িত্বপ্রাপ্ত ঠিকাদারী প্রতিষ্ঠানকে অসমাপ্ত সংস্কার কাজ দ্রুত সম্পন্ন করতে জোরালো তাগিদ দেন। এরপরিপ্রেক্ষিতে ঠিকাদারী প্রতিষ্ঠান বিদ্যুৎ লাইন নির্মাণের কাজ পূণরায় শুরু করেছে। নির্মাণকাজ শেষ হলে গ্রাহকের আর কোনো সমস্যা থাকবে না।

সংবাদটি শেয়ার করতে নিচের “আপনার প্রিয় শেয়ার বাটনটিতে ক্লিক করুন”
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •