জুড়ীতে ওএমএসের চাল না পেয়ে ক্ষুব্দ দুর্গতের হামলা ও ভাংচুর

May 20, 2017,

এইচ ডি রুবেল॥ মৌলভীবাজারের জুড়ীতে ১৮মে বৃহস্পতিবার লাইনে দাঁড়িয়েও অবশেষে ওএমএসের চাল না পেয়ে দুর্গত লোকজন বিক্রয় সেন্টার ও পার্শ্ববর্তী দোকানে হামলা ও ভাংচুর করেছে। ওএমএসের দোকানে হাজারো দুর্গত মানুষ সমবেত হলেও বরাদ্দ কম থাকায় সংশ্লিষ্ট ডিলার মাত্র ২০০ মানুষকে চাল দিতে পারছে। এ নিয়ে হাকালুকি হাওরপারের খোলা বাজারের চালের দোকানগুলোতে প্রতিদিন নানা উ্েত্তজনার ঘটনা ঘটছে।
সরেজমিনে জুড়ী উপজেলার পশ্চিম জুড়ী ইউনিয়নের বাছিরপুর বাজারের ওএমএসের দোকানে সকাল সাড়ে দশটায় ৩-৪ শ’ মানুষকে চালের জন্য লাইনে দাঁড়ানো থাকতে দেখা গেছে।


ডিলার সুমন দে’ জানান, প্রতিদিন ২০০ জনের নিকট বিক্রীর জন্য ১ টন চাল বরাদ্দ দেয়া হচ্ছে। দোকান খোলার সাথেই কয়েকশ’ মানুষ একসাথে চালের জন্য ভিড় করেন। সবাইকে চাল দেয়া সম্ভব না হওয়ায় লোকজন তার উপর চড়াও হচ্ছেন। এলাকার ১০ গ্রামের প্রায় ৪-৫ হাজার মানুষ বন্যায় মারাত্মকভাবে ক্ষতিগ্রস্থ হয়েছেন। প্রতিদিন ৩ টন চালের বরাদ্দ থাকলে অভাবী লোকজনের উপকার হতো। দুপুর বারটায় বরাদ্দকৃত চাল শেষ হলে উত্তেজনাকর পরিস্থিতির সৃষ্ঠি হয়। প্রায় শ’ খানেক লোক লাইনে দাঁড়িয়ে চাল না পাওয়ার খবর শুনেই ক্ষুব্দ হয়ে উঠে। উত্তেজিত নারী-পুরুষ ডিলারের দোকান ও পার্শ্ববর্তী নিউ ফ্যাশন টেইলার্সে হামলা চালায়। ক্ষুব্দ লোকজন টেইলার্সের দোকানের শো-কেসের গ্লাস ও সেলাই মেশিন ভাংচুর করেছে। পরে স্থানীয় ওয়ার্ড মেম্বার ও ব্যবসায়ীরা উপস্থিত হয়ে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণ করেন।
নিউ ফ্যাশন টেইলার্সের মালিক রাশেদ আলম জানান, প্রতিদিন এধরণের ঘটনা ঘটছে। চাল না পেলেই লোকজন তার দোকানের দিকের ধাওয়া করে বিশৃঙ্খলা সৃষ্টি করে। দোকানের সামনে বাঁশের বেড়া দেয়ার চিন্তা করছেন।

সংবাদটি শেয়ার করতে নিচের “আপনার প্রিয় শেয়ার বাটনটিতে ক্লিক করুন”

মন্তব্য করুন

Social Media Auto Publish Powered By : XYZScripts.com